শুক্রবার ২২ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ৮ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৪ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

দুয়েকটা লোক বেরিয়ে যাচ্ছে—যাবেই, হতাশ হবেন না

জুলাই ১০, ২০১৯ | ৮:৫১ অপরাহ্ণ

ঢাকা: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম শরিক দল বাংলাদেশ কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীকে ইঙ্গিত করে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ‘দুয়েকটা লোক বেরিয়ে যাচ্ছে— যাবেই। জাতীয় রাজনীতিতে অতীতে এমন ঘটনা অনেক ঘটেছে। এতে কেউ হতাশ হবেন না।’

বিজ্ঞাপন

বুধবার (১০ জুলাই) সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘মশিয়ুর রহমান যাদু মিয়া স্মৃতি পরিষদ’ আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। যাদু মিয়ার ৯৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, ‘মানুষকে হতাশ হতে দেবেন না। মানুষকে হতাশার কথা বলবেন না। দুয়েকটা লোক বেরিয়ে যাচ্ছে— যাবেই। জাতীয় রাজনীতি এমন ঘটনা অতীতে অনেক ঘটেছে। সবাই তো আর এক রকম হয় না। একেক জনের একেক রকমের হিসাব-নিকাশ থাকে।’

তিনি বলেন, ‘আমরা মাঠের রাজনীতি করছি। আমরা বাস্তবতাকে সামনে নিয়ে আছি। এখনকার রাজনৈতিক পরিপ্রেক্ষিতটা ভিন্ন। ভারতের মহাত্মাগান্ধিকে যারা হত্যা করেছিল, এখন তারা ক্ষমতায় এবং তারা জনগণের ভোটেই নির্বাচিত হয়েছে। ভাবুন পরিবর্তনটা কোথায়? ইটস অ্যা ফ্যাক্ট, ইটস অ্যা রিয়েলিটি। ’

বিজ্ঞাপন

ফ্যাসিবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করা খুব কঠিন মন্তব্য করে বিএনপির মহাসচিব বলেন, ‘রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে লড়াই করা সহজ কথা নয়। আমরা মানুষকে সঙ্গে নিয়ে এগোতে চাচ্ছি। নির্বাচনের আগে আমরা চেষ্টা করেছি ২০ দলীয় জোট, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করে এই দানবটাকে পরাজিত করতে। আমরা পারিনি। তার মানে এই নয়, আমরা শেষ হয়ে গেছি। আমরা মুখ থুবড়ে পড়ে গেছি। আমাদের আশা-আকাঙ্ক্ষা সব ধ্বংস হয়ে গেছে।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘কখনই নিজেকে পরাজিত মনে করলে চলবে না। আমি অনেকের চেহারার মধ্যে পরাজিতের ছবি দেখতে পাই। আমাকে খুব আহত করে। আমি কখনই পরাজিত হতে চাই না। আমরা বিশ্বাস করি এ দেশর মানুষ নিজেদের স্বার্থ, নিজেদের অধিকার কখনই কেড়ে নিতে দেয়নি। হয়তো সময় লেগেছে, লড়াই করেছে। তারপর সাফল্য এসেছে।’

কারাগারে থাকলেও সবকিছু খালেদা জিয়ার সিদ্ধান্তেই হচ্ছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার সম্মতি ছাড়া আমরা কোনো সিদ্ধান্তই নিইনি। প্রতিটি সিদ্ধান্ত নিয়েছি তার কনসার্নে। আমরা নির্বাচনে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি তারই পরামর্শে, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করেছি তারই পরামর্শে। কারণ, আমি বিশ্বাস করি বাংলাদেশে সত্যিকার অর্থে যদি কোনো নেতা থেকে থাকেন, তিনি হলেন বেগম খালেদা জিয়া।’

সারাবাংলা/এজেড/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন