মঙ্গলবার ২৩ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৮ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

আদেশ না মানায় আসামিসহ ২ জনকে গ্রেফতার করে হাজিরের নির্দেশ

জুলাই ১১, ২০১৯ | ৮:৩১ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: উচ্চ আদালতের আদেশ না মানায় মামলা বাতিলের আবেদনকারী ও হলফকারীকে গ্রেফতার করে হাইকোর্টে হাজির করার জন্য সাতক্ষীরার পুলিশ সুপারকে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম হাফিজুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী সৈয়দ মামুন মাহবুব, রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল হেলেনা বেগম চায়না। অন্যদিকে আসামি পক্ষে ছিলেন আইনজীবী তানভির আহমেদ।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক জানান, সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন অফিসের স্টোর কিপার মো. ফজলুল হককে ২০১৭ সালের ২৮ মে সাতক্ষীরা সিনিয়র জুড়িশিয়াল ম্যাজিস্টেট জামিন দেন। ওই জামিন আদেশের বিরুদ্ধে দুদক সাতক্ষীরা সিনিয়র দায়রা জজ আদালতে রিভিশন আবেদন করেন।

রিভিশন শুনানি শেষে দায়রা জজ গত বছরের ১৮ জুলাই দুদকের রিভিশন মঞ্জুর করে আসামির জামিন বাতিল করেন এবং ১৫ দিনের মধ্যে তাকে ম্যাজিস্টেট আদালতে আত্মসমর্পণ করতে বলেন। কিন্তু আসামি আত্মসমর্পণ না করে সেই রিভিশনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে মামলা বাতিলের আবেদন করেন। হাইকোর্ট তার শুনানি নিয়ে গত বছরের ৩০ জুলাই রুল জারি করেন।

বিজ্ঞাপন

তিনি জানান, পরে দেখা যায় আইনত আসামি হাইকোর্টের নিয়ম অনুযায়ী এ আবেদন করতে পারেন না। যে কারণে রুল শুনানির সময় বিষয়টি আদালতের নজরে এলে আসামি মো. ফজলুল হক ও হলফকারী মো. আবুল হোসেন চলতি বছরের ৪ জুলাই হাইকোর্টে হাজির হওয়া নির্দেশ দেন। কিন্তু গত ৪ জুলাই তারা আদালতে হাজির হননি। এ কারণে তাদের গ্রেফতার করে আগামী ২১ জুলাই আদালতে হাজির করার নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

সাতক্ষীরার পুলিশ সুপার ও কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) নির্দেশ বাস্তবায়ন করতে বলা হয়েছে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, আসামি মো. ফজলুল হক সাতক্ষীরা সিভিল সার্জন অফিসে স্টোর কিপার হিসাবে দায়িত্ব পালন করার সময় সিভিল সার্জনের সঙ্গে যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার করে ৭ কোটি ১০ লাখ ৪৩ হাজার৭৪৫ টাকার ‘এমএসআর’ মালামাল আত্মসাৎ করেন। সেই করাণে দুদকের সহকারী পরিচালক মো. মাহতাব উদ্দিন ২০১৭ সালের ২১ মে সিভিল সার্জন ডা. সালাহ উদ্দিন আহমেদ ও স্টোর কিপার ফজলুল হককে আসামি করে সাতক্ষীরা সদর থানার মামলা দায়ের করেন।

বর্তমানে মামলাটি তদন্তাধীন অবস্থায় আছে।

সারাবাংলা/এজেডকে/এমও

Advertisement
বিজ্ঞাপন

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন