মঙ্গলবার ২৩ জুলাই, ২০১৯ ইং , ৮ শ্রাবণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৯ জিলক্বদ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

‘গবেষণা নিয়ে হুমকি দিলে শিক্ষকরা গবেষণা করবে কিভাবে?’

জুলাই ১১, ২০১৯ | ১১:০৪ অপরাহ্ণ

ইউনিভার্সিটি করেসপন্ডেন্ট

ঢাবি: ‘ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষক গবেষণা করবেন। কিন্তু সে গবেষণার ফল নিয়ে যদি যাছাই-বাছাই না করে হুমকি দেওয়া হয়, তাহলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা জনস্বার্থে গবেষণা করবেন কিভাবে?’

অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে অনুষ্ঠিত এক মানববন্ধনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি অনুষদের ডিন এ প্রশ্ন রাখেন। বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকদের করা গবেষণা নিয়ে নিয়ে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াছি উদ্দিনের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষক, শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। ফার্মেসি অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. এস এম আবদুর রহমান বলেন, ‘প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বনামধন্য প্রফেসরের গবেষণা নিয়ে যে মন্তব্য করেছেন সেটা খুবই অপমানজনক। ওই শিক্ষকের গবেষণার ফল সত্য, না মিথ্যা তা পরীক্ষার জন্য আরেকটি গবেষণা দরকার। তা প্রমাণ না করে কেউ মন্তব্য করতে পারে না। সচিবের চেয়ে একজন শিক্ষক বেশি জানেন গবেষণা কীভাবে করতে হয়। তথ্য-প্রমাণ ছাড়া সরকারের দায়িত্বশীল ব্যক্তি হিসেবে সচিবের মন্তব্য করা বিধি সম্মত না।’

গবেষণার জন্য শিক্ষকদের ভয়ভীতি প্রদর্শন করলে শিক্ষকরা নিরুৎসাহিত হবে মন্তব্য করে তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের দেশে গবেষণাগুলো হবে সমস্যা সম্পর্কিত এবং জনস্বার্থ নির্ভর গবেষণা। কিন্তু এভাবে যদি গবেষণার জন্য সরকারের কর্মকর্তারা শিক্ষকদের হুমকি দেন তাহলে তো শিক্ষকরা উৎসাহ হারিয়ে ফেলবে।’

বিজ্ঞাপন

মানববন্ধনে মাইক্রোবায়োলজি বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী চয়ন বড়ুয়া বলেন, ‘শিক্ষকদের কাজই হলো গবেষণা করা। কিন্তু তাদের গবেষণাকে নিজেদের স্বার্থে বিতর্কিত করে ঢালাও মন্তব্য করা ঠিক নয়।’ এসময় তিনি ওই কর্মকর্তার শাস্তির দাবি জানান।

প্রসঙ্গত, গত ২৫ জুন ঢাবির বায়োমেডিক্যাল রিসার্স সেন্টারের পরিচালক আ ব ম ফারুকসহ ফার্মেসি অনুষদের কয়েকজন শিক্ষক পাস্তুরিত দুধে এন্টিবায়োটিক ও ডিটারেজেন্ট পাওয়া বিষয়ক একটি গবেষণার ফল প্রকাশ করেন। এরপরের দিন সংসদের পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগের প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য ওই গবেষণার ফলকে মিথ্যা বলে মন্তব্য করেন। এরপর গত ৯ জুলাই গবেষকদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার হুমকি দেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কাজী ওয়াছি উদ্দিন।

সারাবাংলা/কেকে/এমও

Advertisement
বিজ্ঞাপন

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন