শুক্রবার ১৫ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

বাড়ছে কোডার্সট্রাস্টের বিস্তৃতি, মৌচাকে পঞ্চম শাখা

জুলাই ১২, ২০১৯ | ৩:০৮ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর মৌচাকে নিজেদের পঞ্চম ব্রাঞ্চ খুলেছে ডেনমার্কভিত্তিক ফ্রিল্যান্সিং প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান কোডার্সট্রাস্ট। শুক্রবার (১২ জুলাই) থেকে যাত্রা শুরু করেছে দেশের সবচেয়ে বড় এই আইটি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠানটির মৌচাক শাখা।

বিজ্ঞাপন

কোডার্সট্রাস্টের মৌচাক শাখা উদ্বোধন করেন বাংলাদেশ সরকারের সাবেক মুখ্য সচিব আব্দুল করিম।

উদ্বোধনী বক্তৃতায় আব্দুল করিম বলেন, ‘পৃথিবীটা এখন অনেক ছোট হয়ে এসেছে। এখন ঘরে বসেই অনেক দূরের কাজ করা যায়। দূরের দেশ থেকে আয় করা যায়। কোডার্সট্রাস্ট আইটি প্রশিক্ষণের মাধ্যমে আমাদের দেশের মানুষকে সেই পথটি চিনিয়ে দিচ্ছে। তাদের এই উদ্যোগ দারুণভাবে প্রশংসার দাবিদার।’

সাবেক এই আমলা আরও বলেন, ‘ফ্রিল্যান্সিংয়ের এই যুগ মেয়েদের জন্য সহায়ক। বিয়ে করে অবসর জীবন না কাটিয়ে এখান থেকে আয় করা যায়, নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করা যায়। এই সুযোগ সবাইকেই নিতে হবে। আমাদের দেশে এত মেধাবী মানুষ রয়েছে তারা চাইলে খুব সহজেই ফ্রিল্যান্সিংয়ের এই বাজার দখল করতে পারেন।’

বিজ্ঞাপন

মৌচাক শাখার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আব্দুল করিম ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সাবেক সচিব নজরুল ইসলাম খান, কোডার্সট্রাস্টের কো-ফাউন্ডার আজিজ আহমেদ, কান্ট্রি ডিরেক্টর আতাউল গনি ওসমানী সহ অনেকে।

এ সময় স্কাইপের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের শুভকামনা জানান কোডার্সট্রাস্টের প্রধান নির্বাহী মাডস গালসগার্ড।

কোডারস ট্রাস্টের কো-ফাউন্ডার বাংলাদেশি আমেরিকান আজিজ আহমদ যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্ক থেকে স্কাইপে যোগ দিয়ে বলেন, আমরা বাংলাদেশের তরুণ ও যুব শ্রেণিকে আন্তর্জাতিক মানের কর্মশক্তি হিসেবে গড়ে তুলতে চাই । আত্ম কর্মসংস্থান ও আত্ম উদ্যোগী হয়ে তারা দেশের উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে পারবে।

সাবেক সচিব নজরুল ইসলাম খান বলেন, ‘এই বুড়ো বয়সে আমি নিজেও একটি ইউটিউব চ্যানেল করেছি। সেখান থেকে টাকাও আসে। যেখানে ঘুরতে যাই সেখানকার ভিডিও এডিট করে ইউটিউবে প্রকাশ করি। আপনারা চাইলে নিজেরাও এটি করতে পারেন। ইন্টারনেটের যত সুবিধা সব আমাদের নিতে হবে। পৃথিবীর এগিয়ে যাওয়ার সঙ্গে তাল মেলাতে হবে। এবং এটি আমাদের দ্বারা সম্ভব।’

কোডার্সট্রাস্টের কান্ট্রি ডিরেক্টর আতাউল গণি ওসমানী বলেন, ‘ইন্টারনেটের পৃথিবীতে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এই এগিয়ে যাওয়ায় আমরা দেশের মানুষকে সহযোগিতা করতে চাই। এখানে অনেক সম্ভাবনা, সে সম্ভাবনাগুলোকে সাফল্যে রূপান্তরিত করতে চাই। অবসর সময়টুকু কাজে লাগিয়েও বহুদূর যাওয়া যায়। এজন্য থাকতে হবে তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে বিশদ জ্ঞান। আমরা সেই জ্ঞানটুকু বিতরণ করার চেষ্টা করি সবসময়।’

ডেনমার্কভিত্তিক তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান কোডার্সট্রাস্ট একটি গ্লোবাল কোম্পানি যার হেড অব অপারেশন বাংলাদেশে অবস্থিত। চার বছরের বেশি সময় ধরে বাংলাদেশে কার্যক্রম পরিচালনা করছে প্রতিষ্ঠানটি। এই সময়ে অনলাইন এবং অন-ক্যাম্পাসের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং এখন পর্যন্ত সাত হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থীকে প্রশিক্ষণ দিয়েছে।

অনলাইন মার্কেটপ্লেসগুলোর কাজের চাহিদার ওপর ভিত্তি করে কোডার্সট্রাস্ট এখন ১০টি বিষয়ে শিক্ষার্থীদের পড়াচ্ছে। বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ ও আন্তর্জাতিক এই ফ্রিল্যান্সিং ট্রেনিং ইনস্টিটিউটটি দক্ষ জনশক্তি তৈরির মাধ্যম হিসেবেও দেশীয় অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

সারাবাংলা/টিএস/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন