সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১১ ফাল্গুন ১৪২৬, ২৯ জমাদিউস-সানি ১৪৪১

বিজ্ঞাপন

মালদ্বীপে সংসদে সেনাবাহিনীর তালা

ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৮ | ৬:০৯ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

বিজ্ঞাপন

মালদ্বীপের নিরাপত্তা বাহিনী দেশটির সংসদকে সীলগালা করেছে।

দেশটির বিরোধী দলের রাজনীতিবিদদের জেল থেকে মুক্তি দেওয়া নিয়ে দেশটির সরকার ও আদালত মুখোমুখি অবস্থানে ছিল।

বিজ্ঞাপন

সুপ্রিম কোর্ট গত বৃহস্পতিবার বন্দী বিরোধীদলীয় নেতাদের মুক্তির আদেশ দিয়েছিলেন। বিরোধীরা আশঙ্কা করছিল তা না মানা হতে পারে।

এর মধ্যে গতকাল শনিবার দেশটির পার্লামেন্ট অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত করেছে কর্তৃপক্ষ।

আজ (রোববার) বিরোধী দলের পক্ষ থেকে দেশটির অ্যাটর্নি জেনারেল এবং তার প্রধান প্রসিকিউটরকে অপসারণ করার জন্য আবেদন করা হয়। এরপরই বিকেলে যুদ্ধের সাজে সেনা সদস্যরা সংসদ ঘেরাও করে।

সংসদের সামনে দাঁড়িয়ে থাকা সেনারা সরকার দলীয় সদস্যদের ভিতরে ঢুকতে দিলেও, বাধা দিচ্ছে বিরোধীদলকে। তাও দেওয়াল টপকে কয়েকজন বিরোধী সংসদসদস্য ঢুকে যান।

দেশটির বর্তমান প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিন সন্ত্রাসবাদ, দুর্নীতি, প্রতারণা ও বিশ্বাসঘাতকতার অভিযোগ এনে সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদসহ নয়জন বিরোধী নেতাকে বন্দী করেছেন এবং ১২ জন আইন প্রণেতাকে বহিষ্কার করেন।

বিরোধীদের দাবি, প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিনের এইসব অভিযোগ উদ্দেশ্য প্রণীত। এই ১২ জন আই প্রণেতার উপর থেকে বহিষ্কারাদেশ তুলে নেওয়া হলে বর্তমান বিরোধীদল সংসদে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে যাবে।

গত বৃহস্পতিবার বিরোধীদলের বন্দিদের মুক্তির নির্দেশ দেয় দেশটির সুপ্রিমকোর্ট। তখন থেকে সরকারপক্ষ নির্দেশ না মেনে নানান পদক্ষেপ নিচ্ছে। প্রথমে শুক্রবার তারা জানায়, এ বিষয়ে সুপ্রিমকোর্টের সঙ্গে তারা আলোচনা করবে। পরে শনিবার সংসদ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ ঘোষণা করে। আজ (রোববার) সেনাবাহিনী সংসদ সিলগালা করে দিল।

দেশটির স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম এভাস অনলাইন জানায়, মালদ্বীপের সেনা সদস্যদের রাজধানী মালেতে তলব করা হয়েছে। বাতাসে গুজব রয়েছে, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিন আবদুল গাইয়ুম দেশে জরুরি অবস্থা জারি করতে পারে। তবে এ তথ্য নিশ্চিত করার মতো সেনা কর্মকর্তাকে পাওয়া যায়নি।

 

সারাবাংলা/এমএ

 

Advertisement
বিজ্ঞাপন

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন