সোমবার ২৬ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ১১ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৪ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

সৌদি আরবে ‘অভিভাবকত্ব আইন’ শিথিলের পরিকল্পনা

জুলাই ১৪, ২০১৯ | ৯:১৯ অপরাহ্ণ

রোকেয়া সরণি ডেস্ক।।

পুরুষ অভিভাবকের অনুমতি ছাড়াই নারীদের বিদেশ ভ্রমণের সুযোগ করে দেবে সৌদি সরকার। এজন্য দেশটিতে বিদ্যমান ‘অভিভাবকত্ব আইন’ শিথিল করার পরিকল্পনা হাতে নেওয়া হয়েছে। এই আইন সংস্কার হলে, ১৮ বছরের বেশি সকল নারী তার পুরুষ অভিভাবকের অনুমতি ছাড়াই বিদেশ ভ্রমণ করতে পারবেন।

সৌদি আরবের সরকারি জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যম ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল গত বৃহস্পতিবার এই তথ্য প্রকাশ করে।

প্রচলিত অভিভাবকত্ব ব্যবস্থায়, সৌদি আরবের নারীরা পুরুষ অভিভাবকের অনুমতি ছাড়া দেশের বাইরে যেতে পারেন না। সেই অভিভাবক বাবা, স্বামী, ভাই, মামা এমনকি ছেলেও হতে পারে। প্রত্যেক নারী থাকেন পুরুষ অভিভাবকের অধীনে। দেশটির বিভিন্ন মহলে দীর্ঘদিন ধরে এই আইনের ব্যাপারে কঠোর সমালোচনা হয়ে আসছে। সম্প্রতি এক সৌদি নারী পালিয়ে কানাডায় চলে আসলে (বর্তমানে ওই নারী কানাডার শরনার্থী) ক্ষোভ আরও তীব্র হয়।

সৌদি আরবের একজন জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা ওয়াল স্ট্রিট জার্নালকে বলেন, ‘সরকারের শীর্ষ মহল থেকে এই আইন শিথিলের ব্যাপারে আলোচনা চলছে। চলতি বছরের শেষে নারীদের ভ্রমণসংক্রান্ত আইন-কানুনে পরিবর্তন আনা হবে।’

বিজ্ঞাপন

সৌদি রাজপরিবারের এক সদস্য এই পত্রিকার কাছে বিষয়টি নিয়ে কথা বলেন। তিনি জানান, দেশটির সরকার, জনগণ ও নেতারা এই পদ্ধতির পরিবর্তন চান। কত দ্রুত বিষয়টি কার্যকর করা যায় সেই ব্যাপারে উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে।

সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান তার দেশকে আধুনিক করতে নানামুখী সংস্কার কার্যক্রম হাতে নেন। এরই অংশ হিসেবে নারীর গাড়ি চালানোর ওপর নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছে। কর্মক্ষেত্রে নারীর অংশগ্রহণ বাড়ানো হয়েছে। চাকরি ও বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির জন্য পুরুষ অভিভাবকের অনুমতির ব্যাপারটিও সম্প্রতি তুলে নিয়েছে সৌদি সরকার।

সারাবাংলা/টিসি/

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন