রবিবার ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ১ পৌষ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

মতিন মিয়ার হ্যাটট্রিক ম্যাজিকে কিংসের জয়ের মাইলফলক

জুলাই ১৬, ২০১৯ | ৬:২৬ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস করেপসন্ডেন্ট।।

ঢাকা: মতিন মিয়ার হ্যাটট্রিক ম্যাজিকে উড়ন্ত জয় পেয়েছে বসুন্ধরা কিংস। টিভিএস বাংলাদেশ ফুটবল প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) ব্রাদার্স ইউনিয়নকে গোল বন্যায় ভাসালো স্বাধীনতা কাপ জয়ীরা। এ জয়ে শিরোপার দৌড়ে আরেকধাপ এগিয়েতো গেলোই বরং জয়ের নতুন মাইলফলকও গড়েছে অস্কার ব্রুজনের শিষ্যরা।

বিজ্ঞাপন

নীলফামারির শেখ কামাল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে বসুন্ধরা কিংস ৫-০ ব্যবধানে হারিয়েছে ব্রাদার্সকে। এ জয়ে টানা ১৪ ম্যাচ জয় পাওয়ার রেকর্ড গড়েছে কিংস। এর আগের দশ আসরে সর্বোচ্চ এগার ম্যাচ টানা জয় পেয়েছে ঢাকা আবাহনী। এবার সেই রেকর্ডটাকে যেন ধরাছোঁয়ার বাইরে নিয়ে গেছে বসুন্ধরা।

বিপিএলের প্রথম লেগে ব্রাদার্সকে ২-০ ব্যবধানে হারিয়েছিল কিংস। এবারও তার ব্যতিক্রম হয়নি। বরং আজ আরও বড় পেল ব্রুজনের শিষ্যরা।

ম্যাচে প্রথমার্ধেই প্রায় জয় নিশ্চিত করে ফেলেছে কিংস। ৩২ মিনিটে মতিন মিয়ার পাস পেয়ে দারুণভাবে বলটা নিয়ে ঢুকে পড়েন ইব্রাহিম। ডি বক্সের ভেতরে নিয়ে গতির শটে প্রায় অসম্ভব অ্যাঙ্গেল থেকে বলটা জালে জড়ান। লিড নেয় বসুন্ধরা কিংস।

বিজ্ঞাপন

৩৯ মিনিটে ডি বক্সের ভেতরে উড়ে আসা বলটা হেড করে মতিন মিয়ার মাথায় পৌঁছে দেন মার্কোস। বুদ্ধিদীপ্তভাবে বলটা বারের ডান কোনা বরাবর পাঠিয়ে নিজের প্রথম গোলের যাত্রা শুরু করেন মতিন মিয়া।

প্রথমার্ধে ২-০ লিড নিয়ে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই ব্রাদার্সকে আবারও ধাক্কা দেয় কিংস। এবারও গোলদাতা মতিন। ৪৯ মিনিটে কর্নার থেকে বলটা পড়ে দুশবেকভের পায়ে। ডি বক্সের বাম প্রান্ত থেকে নেয়া তার শট গিয়ে পড়ে মতিনের পায়ে। বাঁ পায়ে তাৎক্ষণিক ফিনিশিংয়ে গোল করে তার জবাব দেন স্থানীয় এই স্ট্রাইকার। সঙ্গে জোড়া গোলও।

৬৭ মিনিটে নিজের প্রথম ও লিগের সপ্তম হ্যাটট্রিকটা তুলে ফেলেন মতিন। এবারও যোগানদাতা দুশবেকভ। নিজেই শট নিতে পারতেন বাঁ প্রান্ত থেকে। সেটা না করে সিক্স ইয়ার্ডের সামনে ফাঁকায় ওঁত পেতে থাকা মতিনের পায়ে এগিয়ে দিলেন বল। সেখানে থেকে গোলরক্ষকের দু’পায়ের মাঝ দিয়ে বল জালে জড়ান মতিন।

মতিনের হ্যাটট্রিক চলতি বিপিএলের সপ্তম হ্যাট্রটিক। এর আগেও ছয়টি হ্যাটট্রিক দেখেছে ফুটবল সমর্থকরা। দুটি হ্যাটট্রিক এসেছে স্থানীয় ফুটবলারের কাছ থেকে। বাকী ৪ টা এসেছে তিন বিদেশির কাছ থেকে। হ্যাটট্রিক ম্যাজিশিয়ানরা হলেন- আরামবাগের জাহিদ হোসেইন, ঢাকা আবাহনীর নবীব নেওয়াজ জীবন, সানডে সিজোবা, মুক্তিযোদ্ধা সংসদের বাল্লো ফামৌসা, নোফেল স্পোর্টিং ক্লাবের ইসমাইল বাঙ্গুরা।

ম্যাচের অতিরিক্ত সময়ে এবার কলিনদ্রেসের পাস থেকে বল পেয়ে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন কবির রানা। তার গতির শট ঢুকে পড়ে জালে। ৫-০ বিশাল ব্যবধানে জয় তুলে নেয় বসুন্ধরা কিংস।

এ জয়ে ২০ ম্যাচে ৫৮ পয়েন্ট নিয়ে অনেক শিরোপার দৌড়ে অনেক এগিয়ে গেল কিংস। সমান সংখ্যক ম্যাচ খেলে ব্রাদার্স ইউনিয়ন অবস্থান করছে ১২তম স্থানে। অবনমন জোনে।

সারাবাংলা/জেএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন