মঙ্গলবার ১৫ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ৩০ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৫ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

অতিরিক্ত রান যোগ করতে নিষেধ করেছিলেন স্টোকস

জুলাই ১৭, ২০১৯ | ২:১৫ অপরাহ্ণ

বিশ্বকাপ ডেস্ক

বিশ্বকাপের ১২তম আসর বসেছিল ক্রিকেটের জন্মস্থান ইংল্যান্ডে। আর বিশ্বকাপের ইতিহাসে প্রথমবারের মতো ফাইনালে অনুষ্ঠিত হলো সুপার ওভার। শেষ পর্যন্ত অনেক নাটকীয়তার পর সুপার ওভারেও ফলাফল নির্ধারিত না হওয়ায় শেষ পর্যন্ত বাউন্ডারি সংখ্যায় নির্ধারিত হয়েছিল বিজয়ী। তবে এই ম্যাচ জুড়ে জন্ম নিয়েছিল বেশ কিছু বিতর্ক। আর তার মধ্যে একটি বেন স্টোকসের ব্যাট বল লেগে বাউন্ডারি হয়ে যাওয়া।

বিজ্ঞাপন

আইসিসির আইন অনুযায়ী অতিরিক্ত রান যোগ হবে দলীয় স্কোর বোর্ডে। কিন্তু একই নিয়ম বলছে ওই বলে ছয় রান নয়, যোগ হবে পাঁচ রান। কারণ যখন মার্টিন গাপটিল বল ছুঁড়ে দিয়েছিলেন ঠিক সে মুহুর্তে দুই ব্যাটসম্যান রান নেওয়ার জন্য একে অপরকে পার করেননি। আর এই জন্যই উঠেছে যতো বিতর্ক। ঘটনার পর বেন স্টোকস হাটু গেড়ে হয়তো বলছিলেন, ‘আমি ক্ষমাপ্রার্থী, আমি ইচ্ছা করে এটা করিনি।’

তবে শেষ পর্যন্ত মাঠের আম্পায়ার কুমার ধর্মসেনা জানিয়ে দিলেন ৬ রান যোগ হবে ইংলিশদের দলীয় রানের সাথে। এবং শেষ পর্যন্ত এই বিতর্কিত সিদ্ধান্তই ইংলিশদের এনে দিয়েছে বিশ্বকাপ। আর বিশ্বকাপ পরবর্তী সময়ে এই ঘটনা নিয়ে যতো বিতর্ক তার উত্তর দিচ্ছেন বর্তমান এবং সাবেক ইংলিশ ক্রিকেটাররা। বেন স্টোকসের বর্তমান সতীর্থ জিমি অ্যান্ডারসন জানিয়েছেন, ‘এই ঘটনার পর বেন স্টোকস আম্পারদের অনুরোধ করেছিলেন অতিরিক্ত রান যোগ না করতে। আর এই ঘটনার পর স্টোকস ক্ষমাও চেয়েছিল, যদিও সে ইচ্ছাকৃত কিছুই করেনি।’

শেষ পর্যন্ত বিতর্কিত আইসিসির আইনই। কারণ সুস্পষ্ট কোনো নির্দেশনা ছিল না এই ঘটনা সম্পর্কে। আর তাই তো বিশ্বকাপটার মিমাংসা রয়ে গেছে একটু বিতর্কিত ভাবেই।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন: এশিয়ার পাঁচ ক্রিকেট দলেই আসছে পরিবর্তন

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন