রবিবার ১৮ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৩ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

‘জিপিএ-৫ পেলেই ভালো প্রতিষ্ঠানে ভর্তির নিশ্চয়তা নেই’

জুলাই ১৭, ২০১৯ | ৩:২৩ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেলেও ভালো প্রতিষ্ঠানে ভর্তির নিশ্চয়তা নেই বলে জানিয়েছেন আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. শাহান আরা বেগম। বুধবার (১৭ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর মতিঝিলে, আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজে নিজ কার্যালয়ে সারাবাংলাকে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, জিপিএ-৫ পেয়ে ভালো কলেজে চান্স পাব এমন আশা করে বসে থাকলে হবে না। কারণ, এখন প্রতিযোগিতার যুগ, রেজাল্টের পর আরো বেশি করে পড়াশোনা করতে হবে। তা না হলে, বুয়েট মেডিকেল ও কিংবা বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্স পাওয়া কঠিন হয়ে দাঁড়াবে।

তিনি বলেন, অনেকে মনে করে আমি শহরের ভালো কলেজ থেকে জিপিএ-৫ পেয়ে পাস করেছি, আমি ভালো জায়গায় চান্স পাবই, আর মফস্বল থেকে যে আসছে সে চান্স পাবে না এই ধরনের চিন্তা করার কোনো যৌক্তিকতা নেই।

তিনি বলেন, এখন ফলাফল প্রকাশ হয়েছে, তাই ফলাফলের দিকে না তাকিয়ে উচ্চ শিক্ষার জন্য ভালো জায়গায় ভর্তি হওয়াই প্রধান লক্ষ্য হওয়া উচিত। লাখ লাখ শিক্ষার্থী এক সঙ্গে প্রতিযোগীতা করবে। এখন একটাই কাজ তা হলো পড়াশোনা করা। শুধু রেজাল্টের উপর নির্ভর না করে, পড়াশোনা করতে হবে।

বিজ্ঞাপন

ড. শাহান আরা বেগম বলেন, কেউ যদি মনে করে আমি জিপিএ-৫ পেয়েছি, আমি চান্স পাবই এই ধরনের নিশ্চয়তা না নিয়ে বইগুলো ভালো করে পড়তে হবে। শুধু একটা পাঠ্যবই পড়লে চলবে না। বাজারে যতগুলো পাঠ্য বই আছে এর মধ্যে কোন বইয়ে কোন জিনিসটা ভালো করে দেওয়া আছে, সেগুলো বাছাই করে পড়তে হবে।

নিজ প্রতিষ্ঠানের ফলাফল সম্পর্কে ড. শাহান আরা বেগম বলেন, আমাদের ছাত্রীরা বরাবরই ভালো ফলাফল করে আসছে। এটা নতুন কিছু না। কলেজের শিক্ষকরা সব সময় যেভাবে পড়ান, এবারও সেভাবেই পড়িয়েছেন। ফলাফল প্রতি বছরের ন্যায় এবারও ভালো হয়েছে। আমাদের মেয়েদের সাফল্যে আমরা সন্তুষ্ট।

পরীক্ষার ফলাফল সম্পর্কে, ড. শাহান আরা বেগেম বলেন, আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ থেকে এবার ১ হাজার ৩৬২ জন পরীক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। এর মধ্যে ১ হাজার ৩৬০ জন পরীক্ষার্থী পাস করেছে। পাসের হার ৯৯ দশমিক ৮৫ শতাংশ। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৫৪২ জন। এর মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগ থেকে ৮১৫ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে ৮১৪ পাস করেছে। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৪৭ জন। মানবিক বিভাগ থেকে ১৬৩ জন পরীক্ষায় অংশ নিয়ে শতভাগ পাস করেছে। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ২৪ জন।

অন্যদিকে, বাণিজ্য বিভাগ থেকে ৩৮৪ জন পরীক্ষার্থী অংশ নিয়ে ৩৮৩ জন পাস করেছে। এর মধ্যে জিপিএ-৫ পেয়েছে ৭১ জন।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের উচ্চ মাধ্যমিক (এইচএসসি) ও সমমান পরীক্ষায় ১০ বিভাগে গড় পাসের হার দশমিক ৯৩ শতাংশ। গত বছর পাসের হার ছিল ৬৬ দশমিক ৬৪ শতাংশ। এবার পাসের হার বেড়েছে ৭ দশমিক ২৯ শতাংশ। অন্যদিকে, এবার জিপিএ-৫ পেয়েছে ৪৭ হাজার ৫৮৬ জন। গত বছর পেয়েছিল ২৯ হাজার ২৬২ জন।

সারাবাংলা/জিএস/জেএএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন