রবিবার ১৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ১ পৌষ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

দক্ষিণ এশিয়াজুড়ে বন্যায় ১৪৬ জনের প্রাণহানি

জুলাই ১৭, ২০১৯ | ৬:১৬ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

মৌসুমী বন্যা এবং ভূমিধস দক্ষিণ এশিয়ায় ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) পর্যন্ত বন্যায় নেপালে ৭৮, ভারতে ৪৩ ও বাংলাদেশে ২৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। সবমিলিয়ে প্রাণহানির সংখ্যা ১৪৬। খবর দ্য কুরিয়ারের।

বিজ্ঞাপন

নেপালের জরুরি সহায়তা কেন্দ্রের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, প্রায় ৪০ হাজার সেনা সদস্য, প্যারা মিলিটারি এবং পুলিশ সদস্যের সমন্বয়ে উদ্ধারকারী ইউনিট গঠন করা হয়েছে। তারা খাবার, তাঁবু, ওষুধ নিয়ে বন্যা উপদ্রুত এলাকাগুলোতে পৌঁছে যাচ্ছে। হেলিকপ্টারযোগে আকাশপথে এবং স্থলপথেও ত্রাণ সাহায্য এবং উদ্ধার অভিযান চলছে। ইতোমধ্যেই নেপালে বন্যায় নিখোঁজ ৩২ জনের সন্ধানে অভিযান চলছে।

ভারতের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আসামে বন্যা উপদ্রুত রয়েছে ৪৫ লাখ মানুষ। মারা গেছেন ১৯ জন। ৮৫ হাজার মানুষকে সরকারি ১৮৭ আশ্রয়কেন্দ্রে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। বন্যার পানিতে ভেসে গেছে ৭০টি গ্রাম। এছাড়া ব্রহ্মপুত্রের পানি বেড়ে যাওয়ায় আসামের ন্যাশনাল পার্ক এবং অভয়রাণ্যে বন্যার প্রকোপ বন্যপ্রাণীদের জীবনযাত্রা হুমকির মুখে ফেলেছে।

বিজ্ঞাপন

ভারতের বিহার রাজ্যে নেপালের বন্যার পানি বেড়ে যাওয়ার প্রভাবে ৩ নদীর পানি বিপৎসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। সরকারি তথ্যে বলা হয়েছে, বিহারে বন্যায় ২৪ জন মারা গেছেন।

এদিকে, ১৩০ নদী এবং ১৬ কোটি মানুষের বাংলাদেশেও মৌসুমী বন্যা হানা দিয়েছে। উজান থেকে আসা পানির ঢলে দেশটির নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়েছে। বন্যায় মারা গেছেন ২৫ জন, যার মধ্যে অধিকাংশই কৃষক।

যদিও মৌসুমী বৃষ্টির প্রভাবে প্রতিবছরই জুন থেকে সেপ্টেম্বরে এ অঞ্চলে বন্যা দেখা দেয়। কিন্তু এ বছর বন্যার পরিস্থিতি অত্যন্ত ভয়াবহ।

সারাবাংলা/একেএম/এনএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন