সোমবার ১৯ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৪ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

লড়াই করে থাইল্যান্ডের কাছে হারলো বাংলাদেশ

জুলাই ১৮, ২০১৯ | ৮:২৭ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট।।

ঢাকা: প্রথমবারের মতো অংশ নিয়ে ইনডোর এশিয়া কাপে ভালো খেলাই উপহার দিয়েছে বাংলাদেশ হকি দল। মালয়েশিয়া, ইরানের কাছে হেরে ফিলিপাইনকে গোলবন্যায় ভাসানো ছিল প্রথম ভালোর সুখস্মৃতি জিমি-শিতুলদের। অবশ্য স্বাগতিক শক্তিশালী থাইল্যান্ডের কাছে শেষ ম্যাচে লড়াই করে হেরেছে লাল-সবুজরা।

থাইল্যান্ডের চনবুড়িতে থাইল্যান্ডের কাছে ৩-১ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ।

ফিলিপাইনকে বড় ব্যবধানে হারানোর আত্মবিশ্বাস নিয়ে থাইল্যান্ডের বিপক্ষে নামে বাংলাদেশ। এই ম্যাচে জয় পেলে টুর্নামেন্টের পঞ্চম স্থান নির্ধারণী ম্যাচ খেলার সম্ভাবনা ছিলো লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের। কিন্তু প্রথমার্ধে ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ে শিতুল-আশরাফুলরা। ম্যাচে পেনাল্টির সুযোগ হাতছাড়া করেন আশরাফুল। সেটা হলে ব্যবধান কমতে পারতো আগেই। দ্বিতীয়ার্ধে প্রতিরোধ গড়ে, এক গোল শোধ দিলেও শেষ পর্যন্ত ৩-১ এর হার নিয়ে মাঠ ছাড়ে দল।

৪ ম্যাচে তিন পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপে চতুর্থ স্থানে বাংলাদেশ।

বিজ্ঞাপন

তবে, এই হারে গ্রুপ পর্ব থেকে বিদায় নিলেও স্থান নির্ধারণী ম্যাচ খেলতে হতে পারে কোচ হামিদ রেজা বোখারী কাশির শিষ্যদের। গ্রুপে চতুর্থ হলেই সপ্তম স্থান নির্ধারণী ম্যাচ খেলতে হবে দলকে। গ্রুপের বাকি দলগুলোর একটি করে ম্যাচ বাকি রয়েছে।

এই আসরটি সামনে রেখে প্রায় মাস দুয়েক অনুশীলন করেছেন জিমি, শিতুল, আশরাফুলরা। শুরুতে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ৩৪ খেলোয়াড় নিয়ে ঢাকার মওলানা ভাসানী জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুশীলন ক্যাম্প শুরু করে হকি ফেডারেশন। ঈদের পর ক্যাম্প স্থানান্তর করে নিয়ে যাওয়া হয় সাভারের বিকেএসপিতে। দলের আকারও ছোট করে আনা হয়। ৩৪ জন থেকে দল নেমে আসে ১৮ জনে। সেখান থেকে শেষ পর্যন্ত ১২ জনকে রাখা হয়েছে চূড়ান্ত স্কোয়াডে। চূড়ান্ত দলে জায়গা পাওয়া খেলোয়াড়রা হলেন- জিমি, শিতুল, আশরাফুল, সারোয়ার, কৌশিক, মিলন, রাব্বি, অসীম, নিপ্পন, খোরশেদ, পিন্টু এবং রোমান।

সিক্স-এ সাইড টুর্নামেন্টে ইনডো এশিয়া কাপের প্রথম অভিজ্ঞতা অর্জন এটি। সবশেষ আসরে (২০১৭ সালে) ৮ দল অংশ নিলেও এবার সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১১-তে।

সারাবাংলা/জেএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন