রবিবার ১৮ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৩ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

বন্যা দুর্গতদের জন্য বিএনপির ২১ সদস্যের ত্রাণ কমিটি

জুলাই ১৯, ২০১৯ | ৭:২৪ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বন্যা দুর্গতদের সহায়তা দিতে ২১ সদস্য বিশিষ্ট ত্রাণ কমিটি গঠন করেছে বিএনপি। শুক্রবার (১৯ জুলাই) সন্ধ্যায় গুলশান কার্যালয়ে দলটির স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ কমিটি গঠন করা হয়।

বৈঠক শেষে বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জানান, ২১ সদস্যের একটি ত্রাণ কমিটি গঠন করা হয়েছে। এর আহ্বায়ক বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু ও সদস্য সচিব দলের ত্রাণ বিষয়ক সম্পাদক হাজী আমিনুর রশীদ ইয়াসীন। কমিটিতে দলের ভাইস চেয়ারম্যান, যুগ্ম মহাসচিব, সাংগঠনিক সম্পাদক, সংশ্লিষ্ট জেলার নেতারাও থাকবেন। এ ত্রাণ কমিটি অবিলম্বে তাদের কর্মকাণ্ড শুরু করবে।

বন্যা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সরকার উদাসীন বলে অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘দেশের বন্যা পরিস্থিতি ক্রমেই এটা অবনতির দিকে যাচ্ছে এবং একের পর এক জেলা বন্যাকবলিত হচ্ছে। জনগণের দুর্ভোগ বেড়েই চলেছে। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সরকারের যে উদ্যোগ প্রয়োজন সেটা আমরা লক্ষ্য করছি না। সরকার বন্যার্তদের পাশে দাঁড়াতে পারছে না।’

এখন পর্যন্ত ত্রাণমন্ত্রী কোথাও পরিদর্শন করেননি অভিযোগ করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সরকারের পদক্ষেপগুলো মানুষ দেখতে চায়। আপনারা পত্রিকায় কি ছবি দেখছেন যে, কোনো মন্ত্রী এলাকাতে গেছেন বা বন্যা কবলিত এলাকায় হেলিকপ্টার মুভ করেছে? দেখেননি। অর্থাৎ জনগণের প্রতি সরকারের যে কোনো দায়বদ্ধতা নেই, সেটি পরিষ্কার।’

বিজ্ঞাপন

আইনশৃঙ্খলা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে তিনি বলেন, ‘আমরা অত্যন্ত উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করেছি যে, দেশে ক্রমাগত আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি, জনগণের নিরাপত্তা ভেঙে পড়ছে। এমন একটা অবস্থা তৈরি হয়েছে যেন দেশে নৈরাজ্য চলছে।’

আদালতের ভেতরে গিয়ে হত্যা করা হচ্ছে, ছোট্ট শিশুর মাথা কেটে ফেলা হচ্ছে, প্রকাশ্য দিবালোকে হত্যা করা হচ্ছে, একজন প্রধান আসামিকে (নয়ন বন্ড) ক্রসফায়ারে হত্যা করে সেই মামলার বাদীকে ( আয়শা সিদ্দিকা মিন্নি) গ্রেফতার করা হচ্ছে, তাকে রিমান্ডে নেওয়া হচ্ছে। পুরো বিষয়গুলো দেখা যায় যে, এখানে একটা নৈরাজ্য সৃষ্টি হয়েছে।’

ডেঙ্গু প্রসঙ্গে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘ডেঙ্গু এখন মহামারী আকার ধারণ করেছে। অর্থমন্ত্রী ডেঙ্গুর ভয়ে অফিসে যাচ্ছেনা না। এখন পর্যন্ত ২১ জন মারা গেছেন, কয়েক হাজার মানুষ আক্রান্ত হয়েছে। সবাই এখন দিনের বেলায় শিশুদের মশারীর নিচে রাখছেন। বড়রা মোজা পরে থাকেন। অথচ একজন মেয়র বলছেন, এখন পর্যন্ত কিছুই হয়নি।’

স্থায়ী কমিটির বৈঠকে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরুউদ্দিন সরকার, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু।

লন্ডন থেকে স্কাইপে যুক্ত ছিলেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান।

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন