সোমবার ৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৫ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১১ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

প্রথমবার অংশ নিয়ে সপ্তম হয়েছে বাংলাদেশ

জুলাই ২০, ২০১৯ | ৫:৪২ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

প্রথমবারের মতো অংশ নিয়ে ইনডোর এশিয়া কাপে সপ্তম হয়ে নিজেদের মিশন শেষ করলো বাংলাদেশ হকি দল। মালয়েশিয়া, ইরানের কাছে হেরে ফিলিপাইনকে উড়িয়ে দিয়েছিল জিমি-শিতুলরা। পরে স্বাগতিক থাইল্যান্ডের বিপক্ষে ৩-১ গোলে হেরেছে বাংলাদেশ। সপ্তম স্থান নির্ধারনী ম্যাচে চাইনিজ তাইপেকে ৯-০ গোলে হারিয়েছে শিতুল-কৌশিকরা।

বিজ্ঞাপন

থাইল্যান্ডের চোনবুরিতে পুল ‘বি’র চতুর্থ দল চাইনিজ তাইপের বিপক্ষে শুরু থেকেই গতিময় বাংলাদেশকে খুঁজে পাওয়া যায়। প্রথমার্ধে কোচ হামিদ রেজা বোখারী কাশির শিষ্যরা এগিয়ে যায় ৫-০ গোলে। দ্বিতীয়ার্ধে আসে আরও ৪ গোল। ম্যাচের ৫ মিনিটের মাথায় বাংলাদেশের হয়ে প্রথম গোলটি করেন আশরাফুল ইসলাম। ১৫ মিনিটে মিলন হোসেন, ১৮ মিনিটে আশরাফুল, ২০ মিনিটে মিলন হোসেন, একই মিনিটে রাসেল মাহমুদ জিমি গোল করলে ৫-০ তে লিড নেয় বাংলাদেশ।

২৬ মিনিটের মাথায় ফরহাদ আহমেদ শিতুল, ২৮ মিনিটে মাইনুল ইসলাম কৌশিক, ৩২ মিনিটে শিতুল আর ৩৩ মিনিটের মাথায় খোরশেদুর রহমান গোল করলে বাংলাদেশ এগিয়ে যায় ৯-০ গোলের ব্যবধানে। এই স্কোরেই জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা।

টুর্নামেন্টে প্রথম অংশ নেয়া দলগুলোর মধ্যে নিজেদের সেরা প্রমাণ করলো বাংলাদেশ। নবাগত বাকি তিন দলের মধ্যে চাইনিজ তাইপে, নেপাল ও ফিলিপাইন যথাক্রমে অষ্টম, নবম ও দশম স্থান লাভ করেছে।

বিজ্ঞাপন

এই আসরটি সামনে রেখে প্রায় মাস দুয়েক অনুশীলন করেছেন জিমি, শিতুল, আশরাফুলরা। শুরুতে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত ৩৪ খেলোয়াড় নিয়ে ঢাকার মওলানা ভাসানী জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুশীলন ক্যাম্প শুরু করে হকি ফেডারেশন। ঈদের পর ক্যাম্প স্থানান্তর করে নিয়ে যাওয়া হয় সাভারের বিকেএসপিতে। দলের আকারও ছোট করে আনা হয়। ৩৪ জন থেকে দল নেমে আসে ১৮ জনে। সেখান থেকে শেষ পর্যন্ত ১২ জনকে রাখা হয় চূড়ান্ত স্কোয়াডে।

সিক্স-এ সাইড টুর্নামেন্টে ইনডোর এশিয়া কাপের প্রথম অভিজ্ঞতা অর্জন এটি। সবশেষ আসরে (২০১৭ সালে) ৮ দল অংশ নিলেও এবার সংখ্যাটা বেড়ে দাঁড়ায় ১১-তে।

আগামী ২২ জুলাই বিকেল ৫টায় ঢাকায় ফিরবে জাতীয় ইনডোর হকি দল। বাংলাদেশের হয়ে খেলেছেন যারা জিমি, শিতুল, আশরাফুল, সারোয়ার, কৌশিক, মিলন, রাব্বি, অসীম, নিপ্পন, খোরশেদ, পিন্টু এবং রোমান।

সারাবাংলা/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন