বিজ্ঞাপন

শিল্পায়ন হলে বাড়বে কর্মসংস্থান: বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী

July 21, 2019 | 1:57 pm

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশে শিল্পায়নের মাধ্যমে কমর্সংস্থানের ব্যবস্থা করার ওপর জোর দিয়েছেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীর প্রতীক। তিনি বলেন, শিল্পায়ন হলেই নতুন নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি হবে। মানুষ কাজের সুযোগ পাবে।

বিজ্ঞাপন

রোববার (২১ জুলাই) সকালে রাজধানীর রেডিসন হোটেলে এক চুক্তি সই অনুষ্ঠানে একথা বলেন মন্ত্রী। অনুষ্ঠানে পাবলিক প্রাইভেট পার্টনারশিপ বা পিপিপির আওতায় কাদেরিয়া টেক্সটাইল মিলকে ওরিয়ন গ্রুপের কাছে হস্তান্তর করার লক্ষ্যে চুক্তি সই করা হয়।

গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, ‘পিপিপির মাধ্যমে আমরা এগিয়ে যাব। প্রাইভেট সেক্টর মানেই এগিয়ে যাওয়া। পিপিপিতে আমরা সফল হবো। সরকারের টাকা মানেই তো জনগণের টাকা। তাই লোকসানের সেক্টরগুলোকে এগিয়ে নিতে হবে। যেসব সেক্টর পিছিয়ে আছে সেগুলোকে এগিয়ে নিতে হবে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। এবার অনেক বড় বাজেট হয়েছে। শিল্পায়নের মাধ্যমে কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করতে হবে। দিনদিন প্রাইভেট সেক্টর এগিয়ে যাচ্ছে এবং দেশের প্রবৃদ্ধি বাড়ছে। প্রাইভেট সেক্টর এগিয়ে গেলেই দেশ আরও এগিয়ে যাবে।’

বিজ্ঞাপন

শিল্পায়ন হলে বাড়বে কর্মসংস্থান: বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী

পৃথিবীর মধ্যে বাংলাদেশই প্রথম পিপিপির মাধ্যমে বন্ধ টেক্সটাইলগুলো চালু করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘বন্ধ মিলগুলো আবার চালু হলে এসব শিল্প প্রতিষ্ঠানে নতুন কমর্সংস্থানের সুযোগ তৈরি হবে। এ লক্ষ্যে বতর্মান সরকার পর্যায়ক্রমে দেশের সব বন্ধ টেক্সটাইল মিলগুলো পিপিপির মাধ্যমে চালু করার চেষ্টা করছে।’

বিজ্ঞাপন

পিপিপির মাধ্যমে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বিটিএমসির ২৫টি মিলের মধ্যে ১৬টি মিল পিপিপির আওতায় পরিচালনা করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী।

অনুষ্ঠানে বিটিএমসির পক্ষে চুক্তিতে সই করেন বাংলাদেশ টেক্সটাইল মিলস করপোরেশন (বিটিএমসির) চেয়ারম্যান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোহাম্মদ কামরুজ্জামান। ওরিয়ন গ্রুপের পক্ষে সই করেন ওরিয়ন কাদেরিয়া টেক্সটাইল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সালমান ওবায়দুল করিম।

বিজ্ঞাপন

অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, প্রধানমন্ত্রীর এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়ক আবুল কালাম আজাদ, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান মির্জা আজম, বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত সচিব রিনা পারভীন।

সারাবাংলা/এসজে/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন