রবিবার ১৮ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৩ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ জিলহজ্জ, ১৪৪০ হিজরী

বিজ্ঞাপন

সৌম্যর উপর প্রত্যাশার পারদটা বেশিই থাকবে

জুলাই ২২, ২০১৯ | ২:৫১ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

লিস্ট ‘এ’ ম্যাচে বাংলাদেশের প্রথম এবং একমাত্র ডাবল সেঞ্চুরিয়ান বাঁহাতি ওপেনার সৌম্য সরকার। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজ আর বিশ্বকাপের ঠিক আগে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে সর্বোচ্চ ছক্কার নিজের আগের রেকর্ড গুঁড়িয়ে সৌম্য সর্বোচ্চ ইনিংস খেলার পথে পেছনে ফেলেন রকিবুল হাসানকে (১৩৮ বলে ১৯০ রান)। ১৪৯ বলে ডাবল সেঞ্চুরিতে পৌঁছান সৌম্য। আবাহনীকে চ্যাম্পিয়ন বানিয়ে পরে অপরাজিত ছিলেন ১৫৩ বলে ২০৮ রান করে। তার ইনিংসে ছিল ১৪টি চার আর ১৬টি ছক্কার মার। লিস্ট ‘এ’ ম্যাচে যা কোনো বাংলাদেশির এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ছক্কার রেকর্ড।

ঠিক তার আগের ম্যাচেই ৭৯ বলে ১০৬ রানের ইনিংস খেলে বাজে ফর্ম থেকে ঘুরে দাঁড়িয়েছিলেন সৌম্য। ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে নিউজিল্যান্ডের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজের তিন ম্যাচে বাঁহাতি এই ওপেনার করেছিলেন ৩০, ২২ আর ০ রান। ত্রিদেশীয় সিরিজের আগে সেঞ্চুরি আর ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকানো সৌম্য আত্মবিশ্বাস ফিরে পান। সেই সিরিজে টানা তিন ম্যাচে ফিফটির দেখা পান। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সেই তিন ম্যাচে সৌম্য করেছিলেন ৭৩, ৫৪ এবং ৬৬ রান।

দুর্দান্ত ফর্মে থাকা সৌম্যকে নিয়ে বিশ্বকাপের আসরে প্রত্যাশার পারদটা বেশিই ছিল। বিশ্বকাপে নামের পাশে কোনো ফিফটি নেই। আট ম্যাচ খেলে বাঁহাতি এই টপঅর্ডার ৪২ রানের সর্বোচ্চ ইনিংস খেলেছিলেন প্রথম ম্যাচে, দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। পরের ইনিংসগুলো ছিল ২৫, ২, ২৯, ১০, ৩, ৩৩ এবং ২২। এবার শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ খেলতে গিয়েছেন সৌম্য। মাশরাফি, সাকিবদের মতো সিনিয়ররা এই সিরিজে না থাকায় বাড়তি দায়িত্ব পড়েছে জুনিয়রদের উপর। ব্যাট হাতে সেই দায়িত্ব কতটুকু সামাল দিতে পারবেন সৌম্য?

সৌম্যকে নিয়ে আলোচনার যথেষ্ট কারণ আছে। বাংলাদেশের হয়ে সর্বোচ্চ স্ট্রাইকরেটে ব্যাট করা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে সৌম্য সবার শীর্ষে। শুধু তাই নয়, ওয়ানডে ক্রিকেটের ইতিহাসে ১৫০০ প্লাস রান আর কমপক্ষে ৫০ ইনিংস খেলা ব্যাটসম্যানদের মধ্যে ১১ নম্বরে আছেন সৌম্য। এই তালিকায় ১০০’র উপরে স্ট্রাইকরেটে ব্যাট করা ব্যাটসম্যানদেরই ধরা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

তালিকায় সবার উপরে অস্ট্রেলিয়ান হার্ডহিটার গ্লেন ম্যাক্সওয়েল। ১০০ ইনিংসে ২৮৭৭ রান করার পথে তার স্ট্রাইকরেট ১২৩.৩৭। ১০০’র উপর স্ট্রাইকরেটে ব্যাট করাদের মধ্যে দুই থেকে ১২ নম্বরে যারা আছেন তাদের তালিকা নিচে দেওয়া হলো।

জস বাটলার: ১১৭ ইনিংসে ৩৮৪৩ রান, স্ট্রাইকরেট ১১৯.৮৩
শহীদ আফ্রিদি: ৩৬৯ ইনিংসে ৮০৬৪ রান, স্ট্রাইকরেট ১১৭.০০
থিসারা পেরেরা: ১২৭ ইনিংসে ২২০৮ রান, স্ট্রাইকরেট ১১১.৭৪
জেসন রয়: ৮১ ইনিংসে ৩৩৮১ রান, স্ট্রাইকরেট ১০৭.৪০
বিরেন্দ্রর শেওয়াগ: ২৪৫ ইনিংসে ৮২৭৩ রান, স্ট্রাইকরেট ১০৪.৩৩
জনি বেয়ারস্টো: ৬৮ ইনিংসে ২৮৬১ রান, স্ট্রাইকরেট ১০৪.০৭
মঈন আলি: ৮২ ইনিংসে ১৭৬৬ রান, স্ট্রাইকরেট ১০৪.০৬
এবি ডি ভিলিয়ার্স: ২১৮ ইনিংসে ৯৫৭৭ রান, স্ট্রাইকরেট ১০১.০৯
ডেভিড মিলার: ১১০ ইনিংসে ৩০৫৮ রান, স্ট্রাইকরেট ১০০.১৩
সৌম্য সরকার: ৫১ ইনিংসে ১৬৩৩ রান, স্ট্রাইকরেট ১০০.০৬
ড্যারেন স্যামি: ১০৫ ইনিংসে ১৮৭১ রান, স্ট্রাইকরেট ১০০.০৫

শ্রীলঙ্কা সফরের বাংলাদেশ স্কোয়াড:
তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম, মোস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, সৌম্য সরকার, মোসাদ্দেক হোসেন, তাইজুল ইসলাম, তাসকিন আহমেদ, ফরহাদ রেজা এবং এনামুল হক বিজয়।

কলম্বোয় সোমবার (২২ জুলাই) দ্বিতীয়দিনের মতো সাধারণ অনুশীলন করবে টাইগাররা। ২৩ জুলাই একটি একদিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে বাংলাদেশ। ২৬ জুলাই প্রথম ওয়ানডে ম্যাচে কলম্বোয় লঙ্কানদের মুখোমুখি হবে তামিম ইকবালের নেতৃত্বাধীন বাংলাদেশ। সিরিজের বাকি দুটি ম্যাচ ২৮ এবং ৩১ জুলাই। সবগুলো ম্যাচই দিবারাত্রির। সিরিজের সব ক’টি ম্যাচ গাজী টেলিভিশন এবং র‍্যাবিটহোলের ওয়েবসাইট সরাসরি সম্প্রচার করবে।

সৌম্যর উপর লঙ্কা সিরিজে প্রত্যাশার পারদটা আবারো উপরে উঠেছে। বাঁহাতি এই টপঅর্ডারকে প্রমাণ দিতে হবে ব্যাট হাতে। বুঝিয়ে দিতে হবে প্রত্যাশার ভারে নুয়ে পড়ার মতো ব্যাটসম্যান তিনি নন।

সারাবাংলা/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন