বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৭ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও প্রতিবেদকের বক্তব্য

জুলাই ২২, ২০১৯ | ১০:১০ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ‘আইডিয়াল স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধে সহকর্মীকে উত্ত্যক্তের অভিযোগ’ শিরোনামে গত ১৩ জুলাই সারাবাংলাডটনেট-এ প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছেন আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের মুগদা শাখার (বর্তমানে বনশ্রী শাখা) ইংরেজির শিক্ষক মো. আবদুস সালাম মিয়া।

গত ২১ জুলাই পাঠানো প্রতিবাদ লিপিতে তিনি বলেন, আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজের বনশ্রী শাখার শিক্ষিকা এবং আমার প্রতিবেশী ওই শিক্ষিকার বাসায় বিভিন্ন লোকজন বিভিন্ন সময়ে আসা যাওয়া করায় আমার কাছে দৃষ্টিকটু মনে হয়েছে। তাই আমি বিষয়টি ওই শিক্ষিকার ফ্লাটের মালিককে অবহিত করি। আর এই অবহিত করাকে উত্ত্যক্ত মনে করে ওই শিক্ষিকা আমার বিরুদ্ধে বিভিন্ন ভিত্তিহীন, অসত্য, বানোয়াট ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত সংবাদ বিভিন্নভাবে প্রচার করে আমার মান-সম্মানে আঘাত হেনেছেন বলে প্রতিবাদলিপিতে উল্লেখ করেন।

প্রতিবেদকের বক্তব্য : গত ১৩ জুলাই সুনির্দিষ্ট তথ্য প্রমাণের ভিত্তিতে ‘আইডিয়াল স্কুল শিক্ষকের বিরুদ্ধে সহকর্মীকে উত্ত্যক্তের অভিযোগ’ শিরোনামে সারাবাংলাডটনেট-এ প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়। প্রতিবেদনে অভিযোগকারী শিক্ষিকা এবং যার বিরুদ্ধে উত্ত্যক্ত করার অভিযোগ আনা হয়েছে সেই শিক্ষক মো. আবদুস সালাম মিয়ার বক্তব্যও প্রকাশ করা হয়েছে। পাশাপাশি এ বিষয়ে আইডিয়াল স্কুলের অধ্যক্ষ ড. শাহান আরা বেগম অভিযোগকারী শিক্ষিকার দরখাস্ত পাওয়া বিষয়টি সারাবাংলাকে নিশ্চিত করেছিলেন। একইসঙ্গে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার কথাও বলেন। এছাড়াও তিনি প্রতিবাদ লিপিতে প্রকাশিত প্রতিবেদনে কোনো অংশের প্রতিবাদ না করে বরং শিক্ষিকার বিরুদ্ধে নানা ধরেনর অভিযোগ উত্থাপন করেন।

এদিকে সোমবার (২২ জুলাই) বিকালে আইডিয়াল স্কুলের অধ্যক্ষ ড. শাহান আরা বেগম সারাবাংলাকে বলেন, শিক্ষিকার অভিযোগের আলোকে অভিযুক্ত শিক্ষক মো. আবদুস সালাম মিয়াকে আইডিয়াল স্কুলের মুগদা শাখা থেকে বনশ্রী (দিবা) শাখায় বদলি করা হয়েছে। একইসঙ্গে সালাম মিয়াকে কারণ দর্শানোরও নোটিশ দেওয়া হয় এবং তিনি সে নোটিশের জবাব দিয়েছেন। অন্যদিকে অভিযোগকারী শিক্ষিকাকে মুগদা (প্রভাতী) শাখায় কর্মরত রয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/জিএস/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন