বৃহস্পতিবার ১৭ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ২ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৭ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

টেলিভিশন যখন নারীমুক্তির হাতিয়ার

জুলাই ২২, ২০১৯ | ১১:০৪ অপরাহ্ণ

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট

বাংলাদেশে নারীদের অগ্রযাত্রা চোখে পড়ার মতো। নারীর ক্ষমতায়নে সরকারের উদার নীতির কারণে লাল-সবুজের এই দেশে নারীরা এখন আত্মনির্ভরশীল হচ্ছে ক্রমান্বয়ে। বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে গুরুত্বপূর্ণ পদে অনেক নারী কর্মরত আছেন। পুরুষদের পাশাপাশি নারীদের হাত ধরে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে।

বিজ্ঞাপন

এবার সেই এগিয়ে থাকা নারীরা একত্রিত হয়ে প্রতিষ্ঠা করেছেন একটি নারীকেন্দ্রিক টেলিভিশন চ্যানেল, যেটির নাম ‘হারনেট টেলিভিশন’। এটি মূলত আইপি টিভি। ইন্টারনেট থাকলেই কেবল দেখা যাবে চ্যানেলটি।

নারীকেন্দ্রিক চ্যানেলটির যাত্রা শুরুর পূর্ব মুহূর্তে রাজধানীর গুলশান ক্লাবে সোমবার (২২ জুলাই) এক আড়ম্বর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সড়ক ও জনদপদ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন্নেছা ইন্দিরা, র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্টদূত আর্ল আর মিলার ও ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত এইচ ই জোয়াও তাবাজারা ডি অলিভেরা জুনিয়রসহ অনেকে।

বিজ্ঞাপন

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন হারনেট টিভির প্রধান আলিশা প্রধান, সমাজকর্মী খুশি কবিরসহ আরও অনেকে।

অনুষ্ঠানে বক্তৃতাকালে নারীকেন্দ্রিক একটি চ্যানেল প্রতিষ্ঠার জন্য ওবায়দুল কাদের সাধুবাদ জানান। তিনি বলেন, এ ধরনের একটি চ্যানেল প্রতিষ্ঠা করা অত্যন্ত সাহসের ব্যাপার। এমন উদ্যোগ এশিয়ায় প্রথম বলে আমার মনে হয়। এই চ্যানেল নারীদের উন্নয়নে নিরলস কাজ করে যাবে বলে আমার বিশ্বাস। আমাদের দেশের প্রধানমন্ত্রী নারী। তার নেতৃত্বে দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। হারনেট নারীদের টিভি। এখন দেখা যাক তাদের হাত ধরে নারীরা এগিয়ে যেতে কতদূর এগোতে পারেন!

তিনি আরও বলেন, এই চ্যানলে পুরুষদেরও অংশ নেওয়ার সুযোগ থাকলে ভালো হয়। নারী-পুরুষ সমানতালে দেশ এগিয়ে নিয়ে যাবে। আর হ্যাঁ, এমন অনেক চ্যানেল আছে যেগুলো ঢাকঢোল পিটিয়ে শুরু হয়। কিন্তু একটা সময় তার কোনো খবর পাওয়া যায় না। এই চ্যানেলটি যেন তেমন না হয়।

র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজির আহমেদ বলেন, দেশের উন্নয়নে নারীরা পুরুষদের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে এগিয়ে যাচ্ছে। দেশের ১০ শতাংশ নারী ব্যবসার সঙ্গে সম্পৃক্ত। ধীরে ধীরে এই সংখ্যা বাড়ছে। এই যে চ্যানেলটির আজ উদ্বোধন হলো তা যেন নারীদের কল্যাণে কাজ করবে সেই আশা করব। পশ্চাৎপদ নারীদের নিয়ে হারনেট টিভি কাজ করুক; এটাই আমাদের সবার চাওয়া।

এছাড়া অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত, ব্রাজিলের রাষ্ট্রদূত, প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী, ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র আতিকুল ইসলাম।

তারা প্রত্যেকে তাদের বক্তব্যে চ্যানেলটিতে নারীদের উন্নয়নে নিরলস কাজ করার অনুরোধ জানিয়েছে। তাদের মতে, নারীদের এই চ্যানেল নারী মুক্তির কথা বলবে।

ছবি: আশীষ সেনগুপ্ত

সারাবাংলা/আরএসও/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন