শুক্রবার ২৩ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৮ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২১ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

উত্তরাখন্ডের ১৩২ গ্রামে ৩ মাসেও জন্মায়নি মেয়ে শিশু

জুলাই ২৩, ২০১৯ | ৩:৫১ অপরাহ্ণ

রোকেয়া সরণি ডেস্ক।।

ভারতের উত্তরাখন্ড রাজ্যের উত্তরকাশী জেলার ১৩২টি গ্রামে গত ৩ মাসে একটিও মেয়ে শিশুর জন্ম হয়নি। তবে একই সময়ে জন্ম নিয়েছে ২১৬ জন ছেলে শিশু। সম্প্রতি উত্তরকাশী জেলা স্বাস্থ্য দপ্তরের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্যই উঠে এসেছে।

এমন ঘটনার পেছনে গোপন ভ্রুণ হত্যা দায়ী বলে অভিযোগ উঠেছে। রাজ্যটির প্রশাসনও এই অভিযোগ অস্বীকার করছে না।

সম্প্রতি উত্তরকাশী জেলায় শিশুস্বাস্থ্য নিয়ে এক সমীক্ষা করা হয়। আর তাতেই উঠে আসে এসব তথ্য। প্রতিবেদনে বলা হয়, স্থানীয় দুন্ডা ব্লকের ২৭টি গ্রামে গত তিন মাসে জন্ম নেওয়া ৫১ শিশুর সবাই ছেলে। একই চিত্র উঠে এসেছে জেলার ভাটওয়ারি ও নওগা ব্লকের গ্রামগুলো থেকে।

তবে এই তথ্য প্রকাশের পর সতর্ক হয়েছে প্রশাসন। এরই মধ্যে জেলা প্রশাসকের পক্ষ থেকে গঠিত হয়েছে তদন্ত কমিটি। এই কমিটি প্রতিটি গ্রামে গিয়ে তদন্ত চালাবে। প্রত্যেক পরিবারে ছয় বছর বয়স পর্যন্ত শিশুদের সংখ্যা জানবে এবং ছেলে ও মেয়ে শিশুদের অনুপাত খুঁজে বের করবে।

বিজ্ঞাপন

উত্তরকাশী জেলা প্রশাসক আশিষ চৌহান বলেন, ‘প্রশাসন বিষয়টিকে গুরুত্বের সাথে দেখছে। স্বাস্থ্যকর্মীদের ওপর বিষয়টি তদন্তের নির্দেশ আছে। স্বাস্থ্যকর্মীরা কাজে গাফিলতি করলে তাদের বিরুদ্ধেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

গ্রামে গ্রামে মেয়ে ভ্রুণ হত্যা ব্যাপকভাবে বেড়েছে বলে অভিযোগ করেন উত্তরকাশীর সমাজকর্মী কল্পনা ঠাকুর। তিনি বলেন, ‘এই ঘটনা কখনোই কাকতালীয় হতে পারে না। রাজ্যে ব্যাপক কন্যাভ্রুণ হত্যা চলছে এই ঘটনা তারই ইঙ্গিত। সরকার ও স্থানীয় প্রশাসন এ ব্যাপারে কোন উদ্যোগ নিচ্ছে না।’

সারাবাংলা/টিসি/পিটিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন