বুধবার ১১ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২৭ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৩ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

‘দানাদার খাদ্য শস্যের উৎপাদন বাড়ছে, দাম পাচ্ছে না কৃষক’

আগস্ট ৭, ২০১৯ | ৬:২২ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশে দানাদার খাদ্য শস্যের উৎপাদন বাড়লেও সে অনুপাতে কৃষকরা দাম পাচ্ছেন না বলে মন্তব্য করেছেন কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক। এ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের জন্য কৃষির আধুনিকায়নের দিকে যেতে হবে বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, মানুষের খাদ্যাভ্যাস বদলে যাচ্ছে। এর সঙ্গে তাল মিলিয়ে আমাদের খাদ্য প্রক্রিয়াজাতের দিকে যেতে হবে। কৃষিকেও আধুনিকায়ন করতে হবে। এ ক্ষেত্রে প্রথম ও প্রধান কাজ যান্ত্রিকীকরণ। এর সঙ্গে সঙ্গে খাদ্য প্রক্রিয়াজাতকরণ এবং রফতানিতেও গুরুত্ব দিতে হবে।

বুধবার (৭ আগস্ট) সচিবালয়ে নিজ কার্যালয়ে এসিআই কোম্পানিসহ একাধিক ব্যবসায়ী ও ব্যবসায়ী সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

এদিন সকালে এসিআই গ্রুপের চেয়ারম্যান এম আনিস উদ্দিন দৌলার নেতৃত্বে প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক করেন কৃষিমন্ত্রী। বৈঠকে এসিআই চেয়ারম্যান বলেন, কৃষি যন্ত্রের দাম বেশি বলে প্রচার করা হয়। কিন্তু যন্ত্রের দামের চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ যন্ত্রের সার্ভিসিং। আমাদের প্রতিটি হারভেস্টরের সঙ্গে সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের সরাসরি যোগাযোগ থাকবে। যেকোনো সমস্যা হলে তারা সমাধান করে দেবে।

বিজ্ঞাপন

বৈঠকে কৃষির আধুনিকায়ন, বাণিজ্যিকীকরণ ও প্রক্রিয়াজাতের বিষয়ে এসিআই চেয়ারম্যান বলেন, আমাদের আমদানি নির্ভরতা কমিয়ে নিজেদের উৎপাদন বাড়াতে হবে। খাদ্য সংরক্ষণ ও প্রক্রিয়াজাত করতে হবে।

পরে দুপুরে বাংলাদেশ সবজি ফল ও অন্যান্য খাদ্যদ্রব্য ব্যবাসায়ী প্রতিনিধি দলের সঙ্গেও বৈঠক হয় মন্ত্রীর। সংগঠনের সভাপতি এস এম জাহাঙ্গীর আলম এই ব্যবসায়ী দলের নেতৃত্ব দেন। বৈঠকে খাদ্য রফতানির ক্ষেত্রে সমস্যা ও সম্ভাবনাগুলো তারা তুলে ধরেন মন্ত্রীর কাছে। এসব প্রতিবন্ধকতা দূর করা হলে খাদ্য শস্য রফতানি দ্বিগুণ হবে বলে মন্ত্রীকে আশ্বস্ত করেন তারা।

এসময় মন্ত্রী তাৎতক্ষণিকভাবে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাকে ফোন করে এসব সমস্যা সমাধানসহ রফতানি বাড়ানোর জন্য আন্তরিকতার সঙ্গে কাজ করার নির্দেশ দেন।

এসময় মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষির বিষয়ে সবসময় অত্যন্ত আন্তরিক। প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিকতায় আমরা খুব শিগগিরই আ্যক্রিডেটেড ল্যাব প্রতিষ্ঠা করব এবং বিদ্যমান ল্যাবগুলোও খুব শিগগিরই আধুনিকায়ন করা হবে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এএইচএইচ/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন