বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৭ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ঈদের পরদিনের রান্নাবান্না

আগস্ট ১০, ২০১৯ | ১:২৬ অপরাহ্ণ

কুরবানির ঈদের দিন গরু বা খাসির মাংস খেতে খেতে বিরক্তি এসে গেলে ঈদের পরদিন স্বাদ বদলের জন্য রান্না করুন ভিন্নরকম কিছু খাবার। মেন্যুতে রাখতে পারেন, ভিন্ন স্বাদের পোলাও, কলিজা, সবজি, মুরগি আর ডেজার্ট। ঈদের পরদিনের দুপুর বা রাতের দাওয়াতের জন্য এমনই কিছু খাবারের রেসিপি দিয়েছেন রন্ধনবিদ শারমিন ইফতেখার

 

মোতি পোলাও

ঈদের দ্বিতীয় দিন

মোতি তৈরির উপকরণ

  1. বিফ কিমা বা চিকেন কিমা ১ কাপ
  2. ধনেপাতা কুচি ১ চা চামচ
  3. মরিচের গুড়া ১ চা চামচ
  4. ধনিয়া গুড়া ২ চা চামচ
  5. টালা জিরা গুড়া ১ চা চামচ
  6. আদা বাটা ১ চা চামচ
  7. রসুন বাটা ১ চা চামচ
  8. লবণ আন্দাজমতো
  9. ভাজার জন্য তেল
  10. এলাচ গুড়া ১/৪ চা চামচ
  11. দারচিনি গুড়া ১/৪ চা চামচ
  12. জয়ফল গুড়া ১/৪ চা চামচ
  13. জয়এি গুড়া ১/৪ চা চামচ
বিজ্ঞাপন

মোতি তৈরির পদ্ধতি

একটা পাত্রে তেল বাদে সব উপকরণ নিয়ে ভালো করে মাখাতে হবে। তারপর ছোট ছোট বল বানাতে হবে।

এবার একটি কড়াইতে তেল হালকা গরম করে বলগুলো লাল করে ভাজতে হবে। লাল হয়ে গেলে কিচেন টাওয়েল বা টিস্যু পেপারের ওপর নামাতে হবে।

পোলাও এর উপকরণ:

  1. পোলাও বা বাসমতি চাউল ২ কাপ
  2. ঘি ১/২ কাপ
  3. পেয়াজ কুঁচি ১/২ কাপ
  4. এলাচ ৩ টা
  5. দারুচিনি ২ টুকরা
  6. পানি ২ কাপ
  7. দুধ ১ কাপ
  8. আদা বাটা ১ চা চামচ
  9. রসুন বাটা ১ চা চামচ
  10. লবণ আন্দাজমতো
  11. কাচা মরিচ ৬ টি
  12. জর্দার রং সামান্য

পোলাও রান্নার পদ্ধতি

চাল ধুয়ে ২০মিনিট পানিতে ভিজিয়ে রেখে এরপর পানি ঝরিয়ে নিতে হবে।

এরপর একটি পাত্রে ঘি গরম করে তাতে পেঁয়াজ, এলাচ, দারুচিনি দিতে হবে, পেয়াজ লাল হলে আদা বাটা, রসুন বাটা আর লবণ দিয়ে ভেজে নিতে হবে। এরপর চাল দিয়ে নাড়াচাড়া করে হালকা ভেজে নিয়ে পানি আর দুধ দিতে হবে। তারপর মিডিয়াম আঁচে ৫ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে ।

পানিটা শুকিয়ে আসলে ঢাকনা তুলে ভেজে রাখা বলগুলো দিয়ে আলতো করে নেড়ে মিশিয়ে দিতে হবে, এরপর জর্দার রং সামান্য পানি দিয়ে মিশিয়ে এর ওপর ছিটিয়ে ঢেকে কম আঁচে দমে রাখতে হবে ১৫ থেকে ২০মিনিট। চাল সিদ্ধ হলে নামিয়ে পরিবেশন করতে হবে গরম গরম মোতি পোলাও।

কেউ চাইলে জর্দার রং ব্যবহার না করে জাফরান দুধে ভিজিয়ে সেটিও ব্যবহার করতে পারে। ওপরে বেরেস্তা, ধনেপাতা কুচি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে পারেন।

 

স্পেশাল কলিজা ভুনা

ঈদের দ্বিতীয় দিন

উপকরণ

  1. গরু বা খাসির) কলিজা  ১/২ কেজি
  2. পেঁয়াজ (কিউব করে কাটা)  ১ কাপ
  3. আদা বাটা  ১ চা চামচ
  4. রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ
  5. পেঁয়াজ বাটা  ২ টেবিল চামচ
  6. মরিচ গুঁড়ো  ১ চা চামচ
  7. হলুদ গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
  8. জিরা বাটা ১/২ চা চামচ
  9. ধনে গুঁড়ো ১ চা চামচ
  10. লবণ আন্দাজমতো
  11. দারুচিনি, এলাচ, লং একত্রে বাটা – ১/২ চা চামচ,
  12. তেজপাতা ১ টি,
  13. পাঁচফোড়ন গুঁড়ো ১ চিমটি পরিমাণ
  14. দারুচিনি টুকরো ৩ টি (১ ইঞ্চি সাইজের)
  15. জায়ফল ও জয়ত্রী বাটা ১/৩ চা চামচ
  16. চিনি সামান্য
  17. আস্ত কাঁচা মরিচ ৬-৭টি
  18. ভাজা (টালা) জিরা গুঁড়ো ১/২ চা চামচ
  19. তেল  ৩ টেবিল চামচ
  20. টকদই ৩ টেবিল চামচ

পদ্ধতি

কলিজা ছোট ছোট টুকরো (১ ইঞ্চি বাই ১/২ ইঞ্চি) করে কেটে ভালো করে ধুয়ে নিন। তারপর একটি বাটিতে কলিজার টুকরো গুলো নিয়ে তারমধ্যে তেল, টালা জিরার গুঁড়ো, কিউব করে কাটা পেঁয়াজ বাদে বাকি সব উপকরণ একসঙ্গে মেখে নিন।

এবার একটা পাত্রে তেল গরম করে তার মধ্যে মশলা মাখানো কলিজাগুলো দিয়ে অল্প আঁচে নেড়ে কষাতে থাকুন। যতক্ষণ না কলিজার পানি শুকিয়ে তেল ওপরে উঠে আসে ততক্ষণ নাড়তে থাকুন। এ অবস্থায় কিউব করে কেটে রাখা পেঁয়াজ, আস্ত কাঁচা মরিচ দিয়ে দিন, নেড়ে আরো ১৫ মিনিট রান্না করুন। এরপর টালা জিরার গুঁড়ো ছড়িয়ে দিয়ে আরো ৫ মিনিট পরে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। পরিবেশন করুন গরম গরম স্পেশাল কলিজা ভুনা।

 

সতে ভেজিটেবল

ঈদের দ্বিতীয় দিন

উপকরণ

  1. ফুলকপি ১কাপ
  2. ব্রোকলি ১কাপ
  3. গাজর ১/২কাপ
  4. বরবটি ১/২কাপ
  5. ক্যাপসিকাম ১টা মাঝারি
  6. পেঁয়াজ ভাজে খোলা ১কাপ
  7. বাটন মাশরুম ৪-৫টা
  8. ডিম ২টা
  9. আদাবাটা ১/২ চা চামচ
  10. রসুনবাটা ১/২চা চামচ
  11. গোলমরিচেরগুড়া ১/২ চা চামচ
  12. লবন স্বাদমতো
  13. মাখন ২ টেবিল চামচ
  14. চিকেন পাউডার ১ টেবিল চামচ
  15. লেবুররস অল্প
  16. আস্ত কাঁচা মরিচ ৩-৪টা
  17. কয়লা
  18. ঘি ১ চা চামচ

পদ্ধতি

ফুলকপি, ব্রোকলি ছোট ছোট টুকরা করে নিন। গাজর আর বরবটি একই সাইজে ছোট করে কেটে নিন। ক্যাপসিকাম ছোট ডুমো করে কেটে নিন। পেঁয়াজ ছোট টুকরা করে ভাঁজে ভাঁজে খুলে নিন। মাশরুম টুকরা করে নিন।

কড়াইতে পানি দিয়ে অল্প আদা-রসুনবাটা, লবণ দিয়ে ফুটিয়ে নিন। এর মধ্যে একে একে ফুলকপি, ব্রোকলি, গাজর, বরবটি আলাদা করে ভাঁপিয়ে তুলে নিন।

একটা বাটিতে ডিম ভেঙে তাতে অল্প লবণ, গোলমরিচ গুঁড়া ও অল্প লিকুইড দুধ দিয়ে ফেটিয়ে প্যানে অল্প তেল দিয়ে তাতে ডিম পাতলা করে ছড়িয়ে ভেজে নিন। এবার এটাকে রোল করে চিকন করে কেটে নিন। সুন্দর লম্বা লম্বা স্টিকের মতো দেখতে লাগবে।

অন্য চুলায় কয়লা পোড়াতে দিতে হবে।

এবার কড়াইতে মাখন গরম করে তাতে আদা-রসুনবাটা দিয়ে ভাজে খোলা পেঁয়াজ দিয়ে নেড়েচেড়ে ক্যাপসিকাম দিয়ে মাশরুম দিয়ে আস্ত কাঁচা মরিচ দিয়ে সব ভাপানো সবজি দিয়ে নেড়েচেড়ে ডিমকুচি আর চিকেন পাউডার মেশাতে হবে। এরপর গোলমরিচগুঁড়া ও লবণ দিয়ে নেড়েচেড়ে উপরে অল্প লেবুর রস আর অল্প চিনি দিয়ে নেড়েচেড়ে চুলা বন্ধ করে দিতে হবে।

এবার ছোট স্টিলের বাটিতে জ্বলন্ত কয়লা রেখে সবজির ভেতর ওই বাটিটা বসিয়ে দিতে হবে। এরপর কয়লার ওপর ১ চামচ ঘি দিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এতে করে কয়লার ধোঁয়া সবজিতে মিশে সুন্দর একটা স্মোকি ফ্লেভার আনবে।

পোলাও বা ফ্রায়েড রাইস এর সঙ্গে ভালো লাগে এই সতে ভেজিটেবল।

বাসায় চিকেন পাউডার না থাকলে চিকেন কিউব গুঁড়া করেও দেওয়া যায়। আর ডিম দিতে না চাইলে চিকেন ছোট টুকরা করে বা চিংড়ি দিয়েও করতে পারেন।

 

ঈদ স্পেশাল কাঁচকলার টিকিয়া

ঈদের দ্বিতীয় দিন

উপকরণ

  1. কাঁচকলা ৮টি
  2. চিকেন কিমা ১কাপ
  3. পেয়াজ বেরেস্তস ১/২ কাপ
  4. কাচামরিচ কুচি ২ টেবিল চামচ
  5. ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ
  6. পুদিনাপাতা ১ টেবিল চামচ
  7. লেবুর রস ১ টেবিল চামচ
  8. রসুনবাটা ১/২ চা চামচ
  9. আদাবাটা ১/২ চা চামচ
  10. টালা জিরাগুঁড়া ১/২ চা চামচ
  11. গরম মশলা গুঁড়া (এলাচ, দারুচিনি শুধু) ১/২ চা চামচ
  12. লবণ স্বাদমতো
  13. চিনি ১/২ চা চামচ
  14. ২ টি ডিমের সাদা অংশ
  15. তেল ভাজার জন্য
  16. বিস্কুটের গুড়া (ব্রেড ক্রাম) পরিমাণমতো

 

প্রথমেই আদা-রসুনবাটা, অল্প লবণ, লেবুর রস, অল্প গরম মসলা, গোলমরিচের গুঁড়া দিয়ে চিকেন কিমা মেখে রাখুন ১৫ থেকে ২০মিনিট।

কাঁচকলা ধুয়ে খোসাসহ সিদ্ধ করে নিন। তারপর গরম থাকতে থাকতেই খোসা ছাড়িয়ে ভালো করে মথে নিন।

এবার একটা বাটিতে কিমা ও কাঁচকলা, পেয়াজ বেরেস্তা, কাঁচামরিচ কুচি, লেবুর রস, ধনেপাতা কুচি, পুদিনা পাতা, আদা-রসুনবাটা, জিরার গুঁড়া, গরম মশলা, চিনি এবং আন্দাজমতো লবণ দিয়ে ভালো করে মেখে নিন।

তারপর মিশ্রণটি হাতের তালুতে নিয়ে গোলাকার কিন্তু চ্যাপ্টা আকৃতির টিকিয়ার মত করে তৈরি করুন। টিকিয়াগুলো এবার ডিমের সাদা অংশে চুবিয়ে ব্রেড ক্রামে গড়িয়ে নিন।

সবগুলো টিকিয়া এবার ১৫ থেকে ২০ মিনিট ফ্রিজে রেখে দিন। এতে ব্রেডক্রাম টিকিয়ার গায়ে বসে যাবে, তেলে ভেসে পুড়ে যাবেনা।

এবার কড়াইতে তেল দিন। টিকিয়াগুলো এবার অল্প আঁচে ডুবো তেলে এপিঠ-ওপিঠ ভাল করে ভেজে তুলুন।

ভাত বা পোলাও যে কোনো কিছুর সঙ্গে খেতে ভালো লাগবে কাঁচাকলার টিকিয়া। বাচ্চাদের টিফিনেও দিতে পারেম মজার এই স্ন্যাকস।

 

মিল্ক কেক

ঈদের দ্বিতীয় দিন

উপকরণ

  1. গুড়া দুধ ১কাপ
  2. ময়দা ১কাপ
  3. চিনি ৩/৪ কাপ
  4. তেল ১কাপ
  5. ডিম ৩টা
  6. বেকিং পাউডার আড়াই চা চামচ
  7. লবণ ১ চিমটি
  8. এলাচগুড়া ১/৪ চা চামচ

পদ্ধতি

কড়াইতে তেল দিয়ে গুড়াদুধ ভেজে নিতে হবে। এরপর পুরোপুরি ঠাণ্ডা করে নিতে হবে।

আলাদা পাত্রে ময়দা ও বেকিং পাউডার চেলে নিতে হবে।

আরেক পাত্রে ভালোভাবে ডিম ফেটে নিতে হবে। এর মধ্যে চিনি দিয়ে আবারও বিট করতে হবে। এরপর গুঁড়াদুধের মিশ্রণ ডিমে দিয়ে মেশাতে হবে। এলাচগুড়া ও লবণ দিতে হবে।

এই পর্যায়ে চেলে রাখা ময়দা ও বেকিং পাউডারের মিশ্রন ডিমের মিশ্রনের সঙ্গে মেশাতে হবে।

একটা ওভেনপ্রুফ বাটিতে ঘি ব্রাশ করে কেকের মিশ্রন দিয়ে মাইক্রোওভেনের হাই পাওয়ারে পাঁচ মিনিট বেক করতে হবে। বেক করা হলে বের করে কেকের ভেতর একটা কাঠি ঢুকিয়ে দেখতে হবে ঠিকমতো হয়েছে কি না।

ঠাণ্ডা হলে ওপরে ফেটানো হুইপড ক্রিম বা যে কোনো ফ্রস্টিং দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করতে হবে।

সারাবাংলা/আরএফ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন