শুক্রবার ২৩ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৮ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২১ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ডেঙ্গু আক্রান্ত শিশুদের জন্য খেলনা উপহার মেয়রের

আগস্ট ১২, ২০১৯ | ১০:১৫ অপরাহ্ণ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: রাজধানীর শিশু হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত শিশুদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করলেন ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম। এসময় শিশুদের মাঝে খাওয়ার জুস ও খেলনা বিতরণ করেছেন তিনি।

আজ (১২ আগস্ট) সকালে ঈদের নামাজ শেষে রাজধানীর আগাঁরগাওয়ের শিশু হাসপাতালে ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত শিশুদের দেখতে যান তিনি। এসময় সঙ্গে করে তিনি ৫ শতাধিক জুসের প্যাকেট ও খেলনা নিয়ে যান। পরে সেখানে ডেঙ্গু আক্রান্ত শিশুসহ অন্যান্য শিশুদের সঙ্গে প্রায় ঘন্টাখানেক ঈদের আনন্দ ভাগাভাগি করেন তিনি। এসময় চিকিৎসাধীন শিশুদের অভিবাবকদের সঙ্গেও কুশল বিনিময় করেন মেয়র।

এ বিষয়ে ডিএনসিসির মেয়র আতিকুল ইসলাম বলেন, ‘প্রতিবছর পথশিশুদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করি। এবার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শিশুদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করলাম। এবার ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে যেসব শিশুরা হাসপাতালে ভর্তি সেসব শিশুরা যদি ডেঙ্গু আক্রান্ত না হত তাহলে বাসায় তারা কত আনন্দ করত, এ ভাবনা থেকেই তাদের সঙ্গে ঈদ আনন্দ ভাগাভাগি করতে চেয়েছি। একজন মেয়র হিসেবে এটা আমার দায়িত্বও বটে।’

শিশু হাসপাতাল থেকে সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালেও যান মেয়র আতিকুল। সেখানে সাংবাদিকদের মেয়র বলেন, ‘ডিএনসিসি নাগরিকদের সেবায় সর্বদা নিবেদিত প্রাণ। আমরা আমাদের সমস্ত আন্তরিকতা ও মানবিকতা দিয়ে আমাদের সকল সীমাবদ্ধতা অতিক্রম করব। প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনা এবং সার্বক্ষণিক তদারকিতে আমরা নিশ্চয়ই ডেঙ্গু মোকাবেলায় সক্ষম হবো। এখন থেকেই আমাদের বছরের ৩৬৫ দিনই ডেঙ্গু নিয়ে কাজ করতে হবে এবং এর সঙ্গে ডেঙ্গু রোগের জন্য একটি আধুনিক গবেষণা কেন্দ্র করাও জরুরি হয়ে দাঁড়িয়েছে।’

বিজ্ঞাপন

এদিকে, দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র মোহাম্মদ সাঈদ খোকন জাতীয় ঈদগাহ মাঠে ঈদের নামাজ আদায় শেষে রাষ্ট্রপতি-প্রধান বিচারপতিসহ সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তা ও বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। এরপরে তিনি গণভবনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে কুশল বিনিময় করতে যান। পরে বনানীর বাসায় স্থায়ী পাড়া-প্রতিবেশিদের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করেন। এরপর করপোরেশন এলাকায় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা মনিটরিং কাজে যুক্ত হন।

সারাবাংলা/এসএইচ/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন