বৃহস্পতিবার ২২ আগস্ট, ২০১৯ ইং , ৭ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ জিলহজ, ১৪৪০ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ইবোলার নতুন ওষুধে ‘বেঁচে থাকার হার ৯০ শতাংশ’

আগস্ট ১৩, ২০১৯ | ১০:৫৮ পূর্বাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইবোলার চিকিৎসায় নতুন সম্ভাবনা খুঁজে পেয়েছেন বিজ্ঞানীরা। প্রাণঘাতী এই ভাইরাস শিগগিরই ‘প্রতিরোধযোগ্য’ এবং ‘চিকিত্সাযোগ্য’ হিসেবে বিবেচিত হবে বলে আশা করেছেন তারা। সম্প্রতি ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অফ কঙ্গোতে আক্রান্ত রোগীদের ওপর চালানো এক ওষুধের এক পরীক্ষা সফল হওয়ার পর এ দাবি করা হয়। নতুন এসব ওষুধে আক্রান্তদের ‘৯০ শতাংশ’ই ভালো হয়ে উঠেছেন বলে জানিয়েছেন গবেষকরা।

সম্প্রতি কঙ্গোতে ইবোলা আক্রান্তদের ওপর চার রকমের ওষুধ ব্যবহার করা হয়, যেখানে এই ভাইরাস মহামারী আকার নিয়েছে। গবেষণায় এদের মধ্যে দু’টি ওষুধ ইবোলার চিকিৎসায় যথেষ্ট কার্যকরী বলে প্রমাণিত হয়েছে।

কঙ্গোর স্বাস্থ্য অধিদফতর বলছে, এই ওষুধ এখন দেশের সব ইবোলা আক্রান্তদের চিকিৎসায় ব্যবহৃত হবে। খবর বিবিসি’র।

এই গবেষণার সহযোগী যুক্তরাষ্ট্রের ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অফ অ্যালার্জি অ্যান্ড ইনফেকশাস ডিজিজেস (এনআইএআইডি) বলছে, ‘রোগীদের ওপর চালানো ওষুধের পরীক্ষা আমাদের জন্য খুবই ভালো খবর নিয়ে এসেছে। এখন আমরা ইবোলার বিরুদ্ধে লড়তে পারবো।’

বিজ্ঞাপন

ইবোলার এই ওষুধ দু’টোর নাম রাখা হয়েছে ‘আরইজিএন-ইবি৩ (REGN-EB3)’ এবং ‘এমএবি১১৪ (mAb114)’। এগুলো শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার সঙ্গে মিশে গিয়েই মানবদেহে থাকা ইবোলা ভাইরাসকে নিষ্ক্রিয় করতে থাকে।

এনআইএআইডি পরিচালক ডা. অ্যান্থনি ফাওসি বলেন, ‘এগুলোই ইবোলার বিরুদ্ধে প্রথম শক্তিশালী ওষুধ, যাতে মৃত্যুর হার অনেক কমে গেছে।’

প্রসঙ্গত, গত জুলাই মাসে আফ্রিকার ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোতে প্রাণঘাতী রোগ ইবোলার প্রাদুর্ভাবকে একটি ‘বৈশ্বিক জরুরি অবস্থা’ হিসেবে ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)। ডেমোক্রেটিক রিপাবলিক অব কঙ্গোতে চলতি বছর ইবোলা সংক্রমণে এখন পর্যন্ত এক হাজার ৬০০ মানুষের মৃত্যু হয়েছে।

সারাবাংলা/এমও

Advertisement
বিজ্ঞাপন

Tags: ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন