বিজ্ঞাপন

তারা নেই ৮ বছর

August 13, 2019 | 2:03 pm

এন্টারটেইনন্টে করেসপন্ডেন্ট

বাংলা বিষয়ভিত্তিক সিনেমা যার হাত ধরে বিশ্ব দরবারে পৌঁছেছে তিনি তারেক মাসুদ। পর্দায় তিনি যে জীবনবোধের চিত্র ফ্রেমবন্দী করতেন সেই জীবনবোধ তাকে অধিষ্ঠিত করেছে খ্যাতিমান বাংলা চলচ্চিত্র পরিচালকের আসনে।

বিজ্ঞাপন

আজ এই কিংবদন্তি চিত্র পরিচালকের অষ্টম মৃত্যুবার্ষিকী। ২০১১ সালের আজকের এই দিনে (১৩ আগস্ট) তিনি সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যান। শুধু তিনি একা নন, তার সাথে মারা যান গুণী চিত্রগ্রাহক ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মিশুক মুনীর।

তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীর যুগল নির্মিতব্য নতুন ছবি ‘কাগজের ফুল’ ছবির শুটিংয়ের লোকেশন দেখতে মানিকগঞ্জ গিয়েছিলেন। সেখান থেকে ফেরার পথে তারা সড়ক দুর্ঘটনার মুখে পড়েন।

বিজ্ঞাপন

এরপর থমকে যায় ক্যামেরা। এখনো আলোর মুখ দেখেনি তাদের দুজনের স্বপ্নের সেই ‘কাগজের ফুল’ সিনেমাটি। যদিও তারেক মাসুদের স্ত্রী ক্যাথরিন মাসুদ সিনেমাটি শেষ করার দায়িত্ব নিয়েছেন।

আশির দশকের গোড়ার দিকে খ্যাতনামা শিল্পী এসএম সুলতানের ওপর নির্মিত প্রামাণ্যচিত্র ‘আদম সুরত’ দিয়েই তারেক মাসুদ ও মিশুক মুনীরের যাত্রা শুরু হয়েছিল। তখন দুই বন্ধু এসএম সুলতানের সঙ্গে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল ঘুরে বেড়ান। ১৯৮২ থেকে ১৯৮৯ পর্যন্ত সাত বছর সুলতানের সান্নিধ্যে থেকে নির্মাণ করেন প্রামাণ্যচিত্র ‘আদম সুরত’।

এরপর এই দুজন মিলে একাধিক গল্প ক্যামেরা বন্দী করেছেন। পেয়েছেন আন্তর্জাতিক নানা সম্মাননা। সেইসব ছবির মধ্যে রয়েছে ‘মাটির ময়না’, ‘রানওয়ে’, ‘মুক্তির কথা’, ‘মুক্তির গান’ ইত্যাদি।

সারাবাংলা/আরএসও/পিএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন