বিজ্ঞাপন

দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখর ঐতিহাসিক মুজিবনগর

August 14, 2019 | 1:39 pm

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

মেহেরপুর: ঈদের ছুটিতে প্রাণচঞ্চল হয়ে উঠেছে ঐতিহাসিক মুজিবনগর স্মৃতি কমপ্লেক্স। বৃষ্টি উপেক্ষা করে পরিবার-পরিজন নিয়ে চিত্তবিনোদনের জন্য ঐতিহাসিক মুজিবনগরে  ভিড় করছেন হাজারো দর্শনার্থী। ঈদের দিন বিকেল থেকেই মুজিবনগরের ঐতিহাসিক বিশাল আম্রকানন মুখর হয়ে উঠতে শুরু করে বিভিন্ন বয়েসী ও শ্রেণীপেশার মানুষের পদচারণায়। ঈদে বাড়তি আনন্দ আর বিনোদনের জন্য মেহেরপুর জেলাসহ পার্শ্ববর্তী চুয়াডাঙ্গা, কুষ্টিয়া, ঝিনাইদহসহ বিভিন্ন জেলা থেকে নারী-পুরুষ ও শিশু-কিশোররাও ভিড় করছে মুজিবনগর স্মৃতি কমপ্লেক্সে।

বিজ্ঞাপন

দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখর ঐতিহাসিক মুজিবনগর

সরেজমিনে দেখা গেছে, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূতিকাগার মেহেরপুরের মুজিবনগর কমপ্লেক্সে মুক্তিযুদ্ধের সেক্টরভিত্তিক বাংলাদেশের মানচিত্র, স্মৃতিসৌধ, আম্রকানন, মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক ভাস্কর্যসহ বিভিন্ন স্থাপনা ঘুরে ঘুরে দেখছেন দর্শনার্থীরা। তবে, সংযোগ সড়কগুলোতে দর্শনার্থী ও পরিবহনের ভিড়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখর ঐতিহাসিক মুজিবনগর

আব্দুল আজিজ লালন নামের এক দর্শনার্থী সারাবাংলাকে বলেন, ‘মুজিবনগরে এসে বাংলাদেশের প্রথম মন্ত্রীসভা গঠন ও শপথের স্থান এবং মুক্তিযুদ্ধের সেক্টরভিত্তিক মানচিত্র দেখে খুবই ভালো লেগেছে। মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসগুলো ধরে রাখতে বর্তমান সরকার অনেক পরিকল্পনা করেছেন ও অনেক টাকার বরাদ্দ দিয়েছেন। এখন এই পরিকল্পনা সঠিকভাবে বাস্তবায়ন হলে দেশের অন্যতম মুক্তিযুদ্ধ পর্যটন এলাকা হিসেবে গড়ে উঠবে এই মুজিবনগর। দেশ-বিদেশ থেকে দর্শনার্থীরাও ঘুরতে আসবে এখানে।’

দর্শনার্থীদের পদচারণায় মুখর ঐতিহাসিক মুজিবনগর

পুলিশ সুপার এস এম মুরাদ আলী সারাবাংলাকে বলেন, ‘দর্শনার্থীদের নিরাপত্তার জন্য পুলিশ সবসময় সতর্ক অবস্থানে থাকে। পাশাপাশি মেহেরপুর-মুজিবনগর সড়কের গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পুলিশি নজরদারি থাকায় উশৃঙ্খল চালকেরা বেপরোয়া গাড়ি চালাতে পারছেনা। তাই সড়ক দুর্ঘটনাও অনেক কমে গেছে। এসব কারণে এবারের ঈদে মুজিবনগর ভ্রমণ দর্শনার্থীদের কাছে আনন্দদায়ক হয়ে উঠেছে।’

সারাবাংলা/ওএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন