মঙ্গলবার ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৯ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৪ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

রেকর্ড গড়েই গলে কিউইদের হারালো শ্রীলঙ্কা

আগস্ট ১৮, ২০১৯ | ১:৩২ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

দুই টেস্ট আর তিন টি-টোয়েন্টি ম্যাচের সিরিজ খেলতে নিউজিল্যান্ড দল এখন শ্রীলঙ্কায়। দুই দলের মধ্যকার প্রথম টেস্ট শুরু হয় ১৪ আগস্ট গল আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে। জমজমাট টেস্ট ম্যাচে জয়ের পাল্লা দুই দলের দিকেই ভারি হয়ে ছিল। প্রথম ইনিংসে সমান সমান লড়াই দুই দলেরই। লঙ্কানদের স্পিন ঘূর্ণিতে পড়ে কিউইরা, আবার কিউইদের স্পিন ঘূর্ণিতে পড়ে লঙ্কানরাও।

বিজ্ঞাপন

প্রথম ইনিংসে কিউইদের ইনিংস থামে ২৪৯ রানে আর লঙ্কানরা তোকে ২৬৭ রান। মাত্র ১৮ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামে নিউজিল্যান্ড। তবে লাসিথ এম্বালদেনিয়ার ঘূর্ণিতে আবারও ব্যাটিং ধ্বস কিউইদের। ওয়াটলিংয়ের দারুণ ব্যাটিংয়ে শেষ পর্যন্ত লঙ্কানদের সামনে ২৬৮ রানের লক্ষ্য ছুঁড়ে দেয় কিউইরা।

গল আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের ইতিহাসে এই ম্যাচের আগ পর্যন্ত কোনো দলই ১০০ এর অধিক রান তাড়া করে জিততে পারেনি। তবে শ্রীলঙ্কায় সেই ইতিহাস লিখলো নতুন করে। ২০১৪ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৯৯ রান তাড়া করে জয় পেয়েছিল লঙ্কানরা। আর এত দিন পর্যন্ত এই স্টেডিয়ামের সর্বোচ্চ রান তাড়া করে পাওয়া জয় ছিল এটিই।

আর ২০১৯ সালে এসে কিউইদের বিপক্ষে ২৬৮ রান তাড়া করে পাওয়া জয় ছাড়িয়ে গেল সেই ইতিহাসকে। লঙ্কানদের এই টেস্ট জয়ের নায়ক বনে গেলেন অধিনায়ক দিমুথ করুণারত্নে। ২৬৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে লাহিরু থ্রিমান্নের সাথে গড়েন ১৬১ রানের জুটি। থ্রিমান্নে ৬৪ রান করে আউট হয়ে গেলেও করুণারত্নে তুলে নেন সেঞ্চুরি। শেষ পর্যন্ত দলীয় ২১৮ রানে ব্যক্তিগত ১২২ রানে আউট হয়ে ফিরে যান তিনি।

বিজ্ঞাপন

তবে ততক্ষণে দলের জয়ের ভিত্তি গড়ে দিয়ে যান লঙ্কান অধিনায়ক। অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস আর ধনঞ্জয় ডি সিলভা মিলে দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। আর এতেই আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে নিজেদের প্রথম সিরিজের প্রথম টেস্টেই জয় তুলে নেয় লঙ্কানরা। এই জয়ে লঙ্ককানদের মোট পয়েন্ট দাঁড়ালো ৬০। দুই টেস্ট ম্যাচ সিরিজে মোট পয়েন্ট সংখ্যা ১২০। প্রতি ম্যাচ জয়ের জন্য ৬০ পয়েন্ট করে যোগ হবে দলের সাথে।

সিরিজের দ্বিতীয় টেস্ট কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে ২২ আগস্ট শুরু হবে।

আরও পড়ুন: আন্তর্জাতিক ক্রিকেট না খেলেও যিনি টাইগারদের কোচ!

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন