মঙ্গলবার ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৯ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৪ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

খুলছে চামড়ার বাজার, আড়তদারদের বকেয়া আদায়ে ফের বৈঠক ২২ আগস্ট

আগস্ট ১৮, ২০১৯ | ৬:৪৩ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: সরকারের মধ্যস্থতায় ট্যানারি মালিকদের কাছে চামড়া বিক্রি করতে সম্মত হয়েছেন আড়তদাররা। তবে ট্যানারি মালিকদের কাছে তাদের যে বকেয়া পাওনা রয়েছে, সে বিষয়ে সমাধান বের করতে আগামী ২২ আগস্ট ফের একটি বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে। ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) সে বৈঠকে মধ্যস্থতা করবে।

বিজ্ঞাপন

রোববার (১৮ আগস্ট) কোরবানির পশুর চামড়া বিক্রিতে ব্যাপক দরপতনের ঘটনায় উদ্ভূত পরিস্থিতিতে চামড়া ব্যবসায়ী ও ট্যানারি মালিকদের সঙ্গে সরকারের ত্রিপক্ষীয় এক বৈঠক থেকে এ সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। প্রায় তিন ঘণ্টার বৈঠক শেষে শিগগিরই চামড়া কেনা- বেচার বিষয়ে সম্মত হন চামড়া ব্যবসায়ী ও ট্যানারি মালিকরা।

আরও পড়ুন- চামড়া নিয়ে বৈঠক: নেই বাণিজ্যমন্ত্রী, নেতৃত্বে সালমান এফ রহমান

বৈঠকে সরকার পক্ষে নেতৃত্ব দেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি খাত উন্নয়ন বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান। বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, একটি কুচক্রী মহল সরকারকে বিপদে ফেলতে চামড়া ব্যবসায়ীদের বিভ্রান্ত করেছে। ফলে চামড়ার বিশাল দরপতন হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, স্বাভাবিকভাবে প্রতিবছর কোরবানির সময়ে ৫ হাজার পিস চামড়া নষ্ট হলেও এবার এই কুচক্রী মহলের কারণে ১০ হাজার পিস চামড়া নষ্ট হয়েছে। তবে এটা বড় ধরনের কোনো ক্ষতি নয়।

কাঁচা চামড়া রফতানি করা হবে কি না— সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রীর এই উপদেষ্টা জানিয়েছেন, অবস্থা বুঝেই রফতানির সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। সরকার যদি এখনই রফতানি করার প্রয়োজন মনে করে, তবে রফতানি করবে।

এসময় চামড়া নিয়ে বিএনপি নেতাদের দেওয়া বক্তব্যেরও সমালোচনা করেন সালমান এফ রহমান। তিনি বলেন, রাজনীতি থেকে ছিটকে পড়ে বিএনপি চামড়ার পেছনে পড়েছে।

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি বিদেশে থাকায় বৈঠকে উপস্থিত থাকতে পারেননি। তবে শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন উপস্থিত ছিলেন বৈঠকে। চামড়াকে গুরুত্বপূর্ণ খাত উল্লেখ করে তিনি বলেন, এ খাত নিয়ে যেন ভবিষ্যতে কেউ বিশৃঙ্খলা না করতে পারে, সেজন্য টেকসই পদক্ষেপ নিতে হবে।

ব্রিফিংয়ে বাংলাদেশ হাইড অ্যান্ড স্কিন মার্চেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি মোহাম্মদ দেলোয়ার হোসেনও সাংবাদিকদের জানান, তারা এখন থেকে ট্যানারি মালিকদের কাছে চামড়া বিক্রি করবেন। তবে কবে থেকে চামড়ার এই বাজার খুলছে, সেই সুনির্দিষ্ট তারিখ তিনিও জানাননি।

ট্যানারি মালিকদের কাছে চামড়া ব্যবসায়ীদের বকেয়া পরিশোধে এফবিসিসিআইয়ের মধ্যস্থতার কথা জানান দেলোয়ার হোসেন। এ প্রসঙ্গে এফবিসিসিআইয়ের সহসভাপতি সিদ্দিকুর রহমান বলেন, বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ২২ আগস্ট সংশ্লিষ্ট ফিনিস লেদার অ্যাসোসিয়েশন ও টানার্স অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিনিধিদের সঙ্গে বসে আড়তদারদের পাওনা আদায়ের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

এ সংক্রান্ত আরও খবর:

কাঁচা চামড়া রফতানির সিদ্ধান্তে ব্যবসায়ীদের ‘দৌড়ঝাঁপ’

কাঁচা চামড়া রফতানির সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি বিটিএ’র

গরুর চামড়ার দাম ৭ বছরে অর্ধেক, খাসির এক-তৃতীয়াংশ

‘কাঁচা চামড়া রফতানি ট্যানারি শিল্পে প্রতিকূল প্রভাব ফেলবে’

চামড়ার দাম কমে যাওয়া ব্যবসায়ীদের কারসাজি: বাণিজ্যমন্ত্রী

বকেয়া পরিশোধ না হলে চামড়া বিক্রি বন্ধের ঘোষণা ব্যবসায়ীদের

সারাবাংলা/জেআর/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন