রবিবার ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৩১ ভাদ্র, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৫ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

নেইমারবিহীন পিএসজি দেখলো হারের মুখ

আগস্ট ১৯, ২০১৯ | ১০:৫৮ পূর্বাহ্ণ

স্পোর্টস ডেস্ক

পিএসজির ২০১৯-২০২০ মৌসুম শুরু হয়েছিল ১২ আগস্ট। আর দ্বিতীয় ম্যাচে রেনের বিপক্ষে মাঠে নামে ১৯ আগস্ট রাতে একটায়। প্রথম ম্যাচ জয় দিয়ে শুরু করলেও হোঁচট খেয়েছে দ্বিতীয় ম্যাচেই। আর নেইমার বিহীন পিএসজি যেন আরও বেশি ধুঁকছে।

বিজ্ঞাপন

গেল মৌসুমে ফ্রেঞ্চ কাপের ফাইনালে এই রেনের কাছে হেরেই শিরোপা হাতছাড়া হয়েছিল পিএসজির। অবশ্য ফ্রেঞ্চ সুপার কাপে রেনেকে হারিয়ে মৌসুমের প্রথম শিরোপা ঘরে তুলেছিল প্যারিসের ক্লাবটি। কিন্তু লিগের নতুন মৌসুমের শুরুতেই পিএসজিকে পরাজিত করলো রেনে। ম্যাচে এগিয়ে গিয়েও শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলের ব্যবধানে হারতে হয়েছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন পিএসজিকে।

লিগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে দলের সাথে ছিলেন না নেইমার, আর দ্বিতীয় ম্যাচেও সেই একই ঘটনা দলে নেই নেইমার। কিলিয়ান এমবাপে আর এডিনসন কাভানিরা শুরু থেকে চেপে ধরেছিল রেনের রক্ষণভাগকে। ম্যাচের ১৪ মিনিটে ডি মারিয়ার ক্রসে কাভানির হেড পোস্টে লেগে ফিরে আসলে গোল বঞ্চিত হয় পিএসজি।

তবে ম্যাচের ৩৬ মিনিটে একই ভুল দ্বিতীয়বার করেননি কাভানি। রেনের অধিনায়কের ভুল ব্যাকপাসে বল পেয়ে যান কাভানি। আর ডান পায়ের চৌকশ শটে রেনে গোলকিপারকে বোকা বানিয়ে পিএসজিকে এগিয়ে নেন এই ফরোয়ার্ড।

মিনিট তিনেক পর কাভানির মতো ভুল করলেন কিলিয়ান এমবাপেও। সুযোগ পেয়েও গোল করতে ব্যর্থ হলেন এমবাপে, তার শট পোস্টে লেগে ফিরে আসে। প্রথমার্ধের শেষের ঠিক আগে ম্যাচে সমতায় ফেরে রেনে। হামারি ট্রাওয়ের ক্রসে এমবে নিয়াংয় গোল করে দলকে সমতায় ফেরান।

বিজ্ঞাপন

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই পিএসজিকে চমকে দিয়ে ম্যাচে প্রথমবারের মতো এগিয়ে যায় রেনে। এডুয়ার্ডো ক্যামাভিঙ্গার ক্রসে রোমাইন ক্যাসিলোর হেডে পরাস্ত আরিওলা। এরপর বেশ কিছু সুযোগ পায় রেনে, তবে সে সুযোগ কাজে লাগাতে ব্যর্থ তারা।

আর সমতায় ফিরতে মরিয়া পিএসজিও কম সুযোগ পায়নি ম্যাচে ফেরার। তবে এমবাপে, কাভানিদের রুখে দিয়েছেন রেনে গোলকিপার সালিন। শেষ পর্যন্ত পিএসজিকে হতাশ করে জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে রেনে।

গেল মৌসুমে লিগে কেবল পাঁচটি ম্যাচেই হারের মুখ দেখেছিল পিএসজি। আর এবারের মৌসুমে দু’টি ম্যাচ যেতে না যেতেই প্রথম হারের স্বাদ পেতে হলো বর্তমান শিরোপাধারীদের। ২ ম্যাচে তিন পয়েন্ট নিয়ে পিএসজি আছে পয়েন্ট তালিকার অষ্টম স্থানে। আর সমান ম্যাচে ছয় পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে অলম্পিক লিঁও।

সারাবাংলা/এসএস

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন