শনিবার ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ৩০ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

খুনিদের দোসররা দেশকে ধ্বংসের পাঁয়তারা করছে: দস্তগীর গাজী

আগস্ট ২২, ২০১৯ | ৯:৪৪ অপরাহ্ণ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক বলেছেন, 'বঙ্গবন্ধুর খুনিদের দোসরেরা আজও এই দেশকে ধংসের গভীর পাঁয়তারা করছে। শুধু বঙ্গবন্ধুর খুনিদের ফাঁসি কার্যকর নয় বরং এই হত্যার ষড়যন্ত্রকারীদের খুঁজে বের করে তাদেরকেও বিচারের আওতায় আনতে হবে, তাহলেই দেশ ও জাতি কলঙ্কমুক্ত হবে।’

বিজ্ঞাপন

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪ তম শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (২২ আগস্ট) দুপুরে নারায়ণগ‌ঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার বেলদী ও খাস দাউদপুর এলাকায় দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভায় তি‌নি এ কথা বলেন।

মন্ত্রী ব‌লেন, ‘বঙ্গবন্ধুর দুটি স্বপ্ন ছিল, স্বাধীনতা আর বাংলাদেশকে অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করা। একটি তিনি করে গেছেন, অন্যটি তিনি পারেননি। সেটিই অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে তার মেয়ে শেখ হাসিনা করে যাচ্ছেন।’

গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, ‘জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়তে তারই কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। দেশে ব্যাপক উন্নয়নমূলক কাজ হচ্ছে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। কিন্তু বিএনপি-জামায়াত চক্র দেশের উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করে দেশকে পিছিয়ে দিতে নানা ষড়যন্ত্র করে যাচ্ছে।’

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, 'ভুলি নাই বিএনপি জামায়াতের অত্যাচার নির্যাতন। ২০০১ সালে খালেদা জিয়ার জোট সরকার ছিল দানব। বিএনপি জামায়াতের ক্যাডার বাহিনী ২০০১ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের পাখির মতো গুলি হত্যা করেছে।'

গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, ‘ওয়ান ইলেভেনের সময় আমাকে ইলেকট্রিক শর্ট দেওয়া হয়েছে। ফ্যানের সঙ্গে ঝুলিয়ে নির্যাতন করেছে। ওরা আমাকে বলেছিল, আপনি একটি শর্তে মুক্তি পাবেন। আপনি শেখ হাসিনাকে ৫ কোটি টাকা ঘুষ দিয়ে মনোনয়ন নিয়েছেন। আপনি শেখ হাসিনার নামে ৫ কোটি টাকার মামলা দেন। তখন আমি (গোলাম দস্তগীর গাজী) তাদের বলেছিলাম, আমি বঙ্গবন্ধুর সৈনিক। আমি মরে যাব তবু শেখ হাসিনার নামে মামলা দেব না।’

অনুষ্ঠা‌নে আরও উপস্থিত ছিলেন, রূপগঞ্জ উপজেলা প‌রিষ‌দের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহজাহান ভুঁইয়া, উপজেলা প‌রিষ‌দের ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দা ফেরদৌসী আলম নীলা, উপ‌জেলা আওয়ামী লীগের সা‌বেক সাংগঠ‌নিক সম্পাদক এনামুল হক, উপ‌জেলা আওয়ামী লীগের সা‌বেক দপ্তর সম্পাদক আব্দুল আজিজ, আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ মারফত আলী, খায়রুল আলম নয়ন ও মুকুল পাশা, দাউদপুর ইউ‌নিয়ন প‌রিষ‌দের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম জাহাঙ্গীর, উপজেলা মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক শিলা রানী পাল, দাউদপুর ইউ‌নিয়ন যুবলী‌গের সভাপ‌তি রফিকুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক আমিন রানা, দাউদপুর ইউনিয়ন মহিলা লীগের সভাপতি খাদিজা আক্তার রিনা, সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌসী আক্তার রুমা, দাউদপুর ইউনিয়ন স্বেচ্ছা‌সেবক লী‌গের সভাপ‌তি মামুন আকন্দ, সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামানসহ অনেকে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন