সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৮ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৩ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের প্রস্তুতি শনিবার, জয়ে আশাবাদী ফুটবলাররা

আগস্ট ২৩, ২০১৯ | ১০:৪৭ অপরাহ্ণ

স্পোর্টস করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: কাতার বিশ্বকাপ বাছাইয়ের দ্বিতীয় পর্ব ও এশিয়ান কাপ মিশনকে সামনে রেখে বাংলাদেশের ক্যাম্প ও অনুশীলন শুরু হচ্ছে শনিবার (২৪ আগস্ট) থেকে। শুক্রবার (২৩ আগস্ট) ডাক পাওয়া ফুটবলাররা যোগ দিয়েছেন জেমি ডের ক্যাম্পে। এখন থেকে সকালে মাঠে অনুশীলন শেষে বিকেলে জিমনেসিয়ামে ঘাম ঝড়িয়ে রাতে টিম মিটিংয়ে কৌশল নিয়ে বিস্তার গবেষণার মধ্য দিয়ে চলবে এই সপ্তাহখানেক ক্যাম্প।

বিজ্ঞাপন

শুক্রবার (২৩ আগস্ট) রাজধানীর একটি হোটেলে জাতীয় দলের ফুটবলাররা রিপোর্টিং করেছেন। শনিবার থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের প্রস্তুতিতে মাঠে নেমে পড়ছেন জামাল-রবিউলরা। ক্যাম্পে মোট ১৯জন যোগ দিয়েছেন। বাকি ৭ জন এএফসি কাপের ইন্টার জোনাল সেমি ফাইনাল ম্যাচের দ্বিতীয় লেগের প্রস্তুতি নিতে ঢাকা আবাহনী শিবিরে অবস্থান করছেন।

২৮ আগস্ট ম্যাচটি খেলার পর ফিরে এসে এই সাত ফুটবলার ক্যাম্পে যোগ দেবেন। বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুশীলন শুরু করবে জেমি ডে।

ঢাকায় সপ্তাহখানেক অনুশীলন করে দল প্রথম ম্যাচের হোম ভেন্যু তাজিকিস্তানের দুশানবেতে উড়াল দেবে বাড়তি অগ্রগতির জন্য। এর মাঝেই আফগানিস্তানকে ঘায়েল করার পরিকল্পনা এঁটে ফেলবেন কোচ জেমি ডে।

ঢাকায় পৌঁছেই আগামী ১০ সেপ্টেম্বর বাছাইপর্বের প্রথম ম্যাচ আফগানদের নিয়েই পরিকল্পনা করে ফেলেছেন জেমি ডে। সামনের ১৭ দিন ঠিক কীভাবে এগোবে বাংলাদেশ ফুটবল দল সেটারও পরিকল্পনা চূড়ান্ত করে ফেলেছেন এই ইংলিশ কোচ। এখন শুধু ক্যাম্পে সেটির কার্যকর নিয়েই ভাবনা।

বিজ্ঞাপন

ক্যাম্পের প্রথম সপ্তাহটা আপাতত খেলোয়াড়দের রুটিনে ফেরার মনে করেন জেমি, ‘প্রথম সপ্তাহে ফুটবলারদের খাদ্যাভ্যাসসহ ফিটনেস রুটিনে ফেরার কার্যক্রম চালু থাকবে। এরমধ্যে বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে তাদের সকাল বেলা করে অনুশীলন ও বিকেলে জিমনেশিয়ামে ঘাম ঝরানোর ব্যবস্থা করা হবে।’

দ্বিতীয় সপ্তাহ থেকে মূলত আফগান ম্যাচ নিয়ে পরিকল্পনা প্রস্তুতিতে কার্যকর করা শুরু করবে বলে জানান জেমি, ‘ম্যাচটা টাফ হবে। আফগানরা অনেক শক্তিশালী দল। তবে আমরা পুরো প্রস্তুতি নিয়েই মাঠে নামবো। তাই আগে ভাগে তাজিকিস্তানেও যাচ্ছি।’

উচ্চতা ও শক্তিতে এগিয়ে থাকা আফগানিস্তানকে নিয়েই বেশ সচেতন জেমি, ‘তার অনেক লম্বা আর শক্তিশালী। আমাদের সেটা নিয়ে নির্দিষ্ট পরিকল্পনা থাকবে। কর্নার বা সেট পিস নিয়েও কাজ করবো।’

ম্যাচ ভালো কিছু করার আশা নিয়ে ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন ফুটবলাররা। জিতেই তাজিকিস্তান থেকে ফিরতে চান লাল-সবুজ জার্সিধারীরা। জামাল ভূঁইয়ার মতে, ‘ম্যাচটা অবশ্যই কঠিন হবে। তবে আমরা সকল ধরনের প্রস্তুতি নিয়ে যাবো। অতীতের যে অভিজ্ঞতা, বিপিএলের ধারাবাহিকতা আর বর্তমান পারফরম্যান্স ধরে রাখার চেষ্টা করবো। আশা করছি জয় নিয়ে ফিরতে পারবো।’ আফগানদের গতি আর উচ্চতা তেমন কোনও সমস্যা করবে না বলেও জানান তিনি, ‘খেলায় উচ্চতা বলে কোনও কথা নেই। মেসি বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়। তার ‍উচ্চতা নিয়ে কোনও প্রশ্ন উঠে না। তাই আমরা সেরা প্রস্তুতি নিয়েই যাচ্ছি। এ দলটা ও কোচ অনেকদিন ধরেই আমাদের সঙ্গে আছেন। ভালো প্রস্তুতি হবে আশা করছি।’

নয় দিন অনুশীলনের পর ৩১ আগস্ট ২৬ জন থেকে ২৩ জনের দল চূড়ান্ত করবেন কোচ। তাদের নিয়ে পরের দিন উড়াল দেবেন তাজিকিস্তানের পথে। সেখানে ১০ দিন কন্ডিশনিং ক্যাম্প ও দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে আফগানদের মোকাবিলা করবে বাংলাদেশ। স্থানীয় দুটি ক্লাবের বিপক্ষে বাংলাদেশ ম্যাচ খেলবে ৩ ও ৫ সেপ্টেম্বর।

ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন যারা: আশরাফুল ইসলাম রানা, মাজহারুল ইসলাম হিমেল, আনিসুর রহমান জিকো, সুশান্ত ত্রিপুরা, রহমত মিয়া, এসএম মঞ্জুরুর রহমান, ইয়াসিন খান, বিশ্বনাথ ঘোষ, রিয়াদুল হাসান, নুরুল নাইম ফয়সাল, ইয়াসিন আরাফাত, মাসুক মিয়া জনি, জামাল ভুঁইয়া, রবিউল হাসান, বিপলু আহমেদ, আরিফুর রহমান, মোহাম্মদ ইব্রাহিম, মাহবুবুর রহমান সুফিল, মতিন মিয়া।

পরে যোগ দেবেন যারা: শহিদুল আলম সোহেল, টুটুল হোসেন বাদশা, মামুনুল ইসলাম মামুন, সোহেল রানা, নবীব নেওয়াজ জীবন, সাদ উদ্দিন, জুয়েল রানা

সারাবাংলা/জেএইচ/একে

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন