সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৮ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৩ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ভারতীয় ম্যারাডোনাকে নিয়ে ওয়েব ধারাবাহিক

আগস্ট ৩১, ২০১৯ | ২:২৬ অপরাহ্ণ

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট

কৃশানু দে—ভারতীয় ফুটবলের ম্যারাডোনা। পূর্ব ‍পুরুষ বাংলাদেশি। দেশভাগের সময় তৎকালিন পূর্ব বাংলা ছেড়ে পাড়ি জমান পশ্চিমবঙ্গে। সেখানে ধীরে ধীরে বড় হয়ে ওঠেন।

বিজ্ঞাপন

সংগ্রাম আর বাঁধা ডিঙিয়ে হয়ে আবির্ভূত হন ফুটবল কিংবদন্তিরূপে। যদিও ছোটবেলায় তিনি ফুটবল খেলা ছেড়ে দিতে চেয়েছিলেন। কিন্তু কৃশানুর মায়ের কথা, আমরা হচ্ছি বাঙাল (বাংলাদেশি); আমাদের রক্তে আছে লড়াই। মায়ের সেই কথাই কৃশানুকে বড় ফুটবলার হওয়ার রসদ যুগিয়েছে।


আরও পড়ুন :  ইমরান হাশমিকে কেউ আর ‘সিরিয়াল কিসার’ বলবে না


এবার এই কৃশানুকে নিয়ে ‘কৃশানু কৃশানু’ নামে একটি নির্মিত হয়েছে ওয়েব ধারাবাহিক। ভিডিও স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম জি ফাইভে গত ২৯ আগস্ট থেকে প্রচার শুরু হয়েছে পাঁচ পর্বের এই ওয়েব ধারাবহিক।

বিজ্ঞাপন

ওয়েব ধারাবাহিকটি পরিচালনা করেছেন কোরক মুর্মু। আর এর সৃজনশীল পরিচালকের দায়িত্ব সামলেছেন সৌভিক দাশগুপ্ত। সারাবাংলাকে সৌভিক দাশগুপ্ত বলেছেন, কৃশানু বাঙালি ফুটবলের সাথে ওতপ্রতভাবে জড়িয়ে আছে। হোক সেটা বাংলাদেশ কিংবা পশ্চিমবঙ্গ। কৃশানু যখন ইস্টবেঙ্গলে খেলতেন তখন বাংলাদেশি মোনেম মুন্না, রুমির মত ফুটবলাররা ইস্টবেঙ্গলে এসে খেলেছেন।

তিনি আরও বলেন, এই ওয়েব সিরিজের সাংবাদিক রূপ বাগচীর মতো গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে বাংলাদেশি অভিনেতা চঞ্চল চৌধুরীকে নিতে চেয়েছিলাম। তাকে আমরা প্রস্তাবও দিয়েছিলাম। কিন্তু তিনি কি ভেবে করতে রাজি হলেন না, বলতে পারছি না। তিনি চরিত্রটিতে অভিনয় করলে হয়ত ওয়েব সিরিজটি ভিন্ন মাত্রা যোগ করত।

কৃশানু দে’র চরিত্রে অভিনয় করেছেন মধ্যপ্রদেশের অনুরাগ উরহামকে। এ ছাড়াও বিভিন্ন চরিত্রে থাকছেন দেবেশ রায়চৌধুরী, দেবতনু, সাগ্নিক চৌধুরী, ইলিনা কাজান, বাদশা মৈত্র সহ আরও অনেকে। ওয়েব ধারাবাহিকটির চিত্রনাট্য লিখেছেন যৌথভাবে সৌভিক দাশগুপ্ত, কল্লোল লাহিড়ী, অভ্র চক্রবর্তী, চন্দ্রোদয় পাল। টিভিওয়ালা মিডিয়ার ব্যানারে ওয়েব ধারাবাহিকটি প্রযোজনা করেছে জ্যোতি প্রোডাকশন্স।


আরও পড়ুন :  এবিএম সুমন’কে ঘিরে ‘মাসুদ রানা’ রহস্য!


ট্রেইলার দেখুন:

সারাবাংলা/আরএসও/এএসজি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন