বুধবার ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ১ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ডাক বিভাগের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ডিজিটাল হচ্ছে

সেপ্টেম্বর ১, ২০১৯ | ১০:৩৩ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের অধীন বিটিসিএল, ডাক অধিদফতর ও টেলিফোন শিল্প সংস্থার ব্যবস্থাপনায় পরিচালিত ১৭টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ডিজিটাল করা হচ্ছে। খুব শিগগিরই এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ডিজিটাল পদ্ধতিতে পাঠদান কার্যক্রম শুরু হবে। রোববার (১ সেপ্টেম্বর) গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সভাপতিত্বে বিভাগের অধীনস্থ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিচালনা পর্ষদ ও সংশ্লিষ্ট শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানদের সঙ্গে এক বৈঠকে সম্প্রতি এ সিদ্ধান্ত হয়। ওই বৈঠকে মন্ত্রী বলেন, ডাক বিভাগের অধীন প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে ডিজিটালাইজড করা এই বিভাগের গুরুত্বপূর্ণ একটি দায়িত্ব। এর ফলে ক্লাসরুমে বই-পেন্সিলের পরিবর্তে ডিজিটাল কনটেন্ট দিয়ে পড়ালেখা করানো সম্ভব হবে।

ডিজিটালাইজেশনের অংশ হিসেবে এই সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানসমূহে ডিজিটাল হাজিরা ও ফলাফলসহ প্রতিষ্ঠানে ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত সব কার্যক্রম ডিজিটালাইজড করা হবে বলেও জানান মন্ত্রী। ডিজিটাল পদ্ধতিতে পরিচালিত দেশের প্রায় একহাজার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পাঠ্য কার্যক্রমের দৃষ্টান্ত তুলে ধরে মোস্তাফা জব্বার বলেন, ‘প্রচলিত পাঠ্যক্রমের একবছরের সিলেবাস ডিজিটাল কনটেন্টের মাধ্যমে শেষ করতে একমাসের বেশি সময় লাগে না। কম্পিউটার শুধু বাংলা লেখার যন্ত্র না, প্রোগ্রামিংয়ের যন্ত্র না, কম্পিউটার সবচেয়ে বড় উপকার হচ্ছে এর মাধ্যমে শিক্ষা গ্রহণ করা যায়।’

প্রসঙ্গত, টিএন্ডটি স্কুল অ্যান্ড কলেজ নামে যেসব প্রতিষ্ঠান রয়েছে সেগুলো ডাক বিভাগের অধীনে পরিচালিত হয়। এর বাইরেও তাদের আরও কিছু প্রতিষ্ঠান রয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/ইএইচটি/এমও

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন