সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৮ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৩ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ভারতে বিটিভি সম্প্রচার উদ্বোধন

সেপ্টেম্বর ২, ২০১৯ | ৪:২১ অপরাহ্ণ

এন্টারটেইনমেন্ট করেসপন্ডেন্ট

এবার ভারতবর্ষের মানুষ বাংলাদেশের টেলিভিশন অনুষ্ঠান উপভোগ করতে পারবেন অনায়াসেই। রোববার (২ আগস্ট) থেকে ভারতে দেখা যাচ্ছে বাংলাতেশ টেলিভিশন (বিটিভি)। ভারতের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন দূরদর্শনের ডিটিএইচ প্লাটফর্ম-ডিডি ফ্রি ডিশের মাধ্যমে এই সম্প্রচার কার্যক্রম পরিচালনা করবে বিটিভি।

বিজ্ঞাপন

সোমবার বিকাল ৩টায় রামপুরায় বিটিভির মিলনায়তনে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এই সম্প্রচার কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাস, তথ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. মুরাদ হাসান, প্রধানমন্ত্রীর সাবেক তথ্য উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরীসহ আরও অনেকে। এছাড়া এক ভিডিও বার্তায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে অংশ নেন ভারতের তথ্য ও সম্প্রচার সচিব শ্রী অমিত খারে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখছেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ।


বিজ্ঞাপন

উদ্বাধনী অনুষ্ঠানের বক্তৃতায় তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আজ সকাল ৯টা থেকে ভারতে বাংলাদেশ টেলিভিশন সম্প্রচার শুরু হয়েছে। এটা আমাদের জন্য আনন্দের খবর। সেজন্য আমি ভারত সরকারের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর দূরদর্শী চিন্তার কারণে বাংলাদেশের চ্যানেল ভারতে প্রচার করা সম্ভব হয়েছে।’


আরও পড়ুন :  মৃত্যুবাষির্কীতে বাবার গান গাইবে দুই পুত্র


তিনি আরও বলেন, ‘প্রকৃতপক্ষে পৃথিবী আজ গ্লোবাল ভিলেজ। সেকারণে সব খবর মুহূর্তেই ছড়িয়ে পড়ছে। যার কারণে চ্যানেল আটকে রাখা সম্ভব নয়। তাছাড়া বাংলাদেশ ও ভারতের সংস্কৃতি একই রকম। তাই যদি ভারতের মানুষ বাংলাদেশের চ্যানেল দেখতে পায় তাহলে এই সংস্কৃতির বিনিময় হবে। দু’দেশের মধ্যে নৈকট্য বাড়াবে।’

উদ্বোধনী বক্তব্য রাখছেন ভারতীয় হাইকমিশনার রিভা গাঙ্গুলী দাস।


রিভা গাঙ্গুলী দাস বলেন, ‘উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিটিভি অডিটরিয়ামে উপস্থিত হতে পেরে আনিন্দত। এটি একটি ঐতিহাসিক সময়। চলতি বছরের ১৭ মে ভারতের সবথেকে বড় ব্রডকাস্ট এজেন্সি প্রসার ভারতী ও বাংলাদেশ টেলিভিশনের মধ্যে চুক্তি স্বাক্ষর হয়। সেই চুক্তি স্বাক্ষরের চার মাসের মধ্যে ভারতে বিটিভি সম্প্রচার শুরু করেছে। এটা খুব খুশির বিষয়। ভারতে বাংলাদেশি চ্যানেল সম্প্রচারের মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্ক আরও দৃঢ় হবে।’

উদ্বোধন অনুষ্ঠান ও আলোচনার পর শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত গান পরিবেশন করেছেন অনিমা রায়।


আরও পড়ুন :  টিআরপি’র দৌড়ে এগিয়ে থাকা ঈদের নাটক


সারাবাংলা/আরএসও/পিএ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন