মঙ্গলবার ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৯ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২৪ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ডেঙ্গু পরিস্থিতি ‘মাঝারি পরিমাণ’ নিয়ন্ত্রণে

সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৯ | ১১:১৮ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বাংলাদেশের বর্তমান ডেঙ্গু পরিস্থিতি ‘মাঝারি পরিমাণ’ নিয়ন্ত্রণে আছে বলে মন্তব্য করেছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক (রোগ নিয়ন্ত্রণ) অধ্যাপক ডা. সানিয়া তহমিনা। বর্তমান পরিস্থিতিকে আরও নিয়ন্ত্রণ করতে হবে বলেও জানান তিনি।

বিজ্ঞাপন

ডা. তাহমিনা বলেন, আগস্টের শুরুর দিকে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়লেও শেষভাগে এটি কমে আসতে থাকে। সেপ্টেম্বরেও সেই ধারা অব্যাহত আছে। এখন রোগীর যে সংখ্যা আছে, সেটাকে আমাদের নিয়ন্ত্রণে আছে বলা যায়। তবে এটাকে আমরা আরও নিয়ন্ত্রণ করতে চাই।

রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদফতরে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ মন্তব্য করেন তিনি।

‘মাঝারি’ নিয়ন্ত্রণের ব্যাখ্যা দিয়ে সানিয়া তহমিনা বলেন, ‘নিয়ন্ত্রণ’ শব্দের কোনো সীমারেখা নেই। যখন রোগীর সংখ্যা বেড়ে গিয়েছিল, তখন আমরা সেটাকে কমাতে চেয়েছিলাম। এখন রোগীর সংখ্যা কমে আসছে। আমরা এটাকে আরও কমাতে চাই। ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে দৈনিক হিসাবে সর্বোচ্চ ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ছিল ১৩৮ জন। এখন পর্যন্ত রোগীর সংখ্যা তার চেয়েও বেশি আছে। তাই আমাদের লক্ষ্য, ওই পরিমাণের চেয়েও কমিয়ে আনা।

বিজ্ঞাপন

ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমে এলেও খুলনা বিভাগে এখনো আক্রান্তের হার বেশি— এ বিষয়ে দৃষ্টি আকর্ষণ করলে ডা. তহমিনা বলেন, যেসব এলাকায় বেশি ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী আছে, সেখানেই কাজ করছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের (আইইডিসিআর) র‌্যাপিড রেসপন্স টিম। এরই মধ্যে আক্রান্ত এলাকাগুলোয় জরিপ করা হয়েছে। খুব শিগগিরই জরিপের ফল প্রকাশ করা হবে।

এদিকে, শনিবার (৭ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা থেকে রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টা সময়ে ৭৬১ জন রোগী ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদফতরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. আয়শা আক্তার।

তিনি জানান, চলতি বছরের ৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত বাংলাদেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসা নিয়েছেন ৭৬ হাজার ৫১৪ জন। এদের মধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছে ৭৩ হাজার ৯১ জন। অর্থাৎ এখন পর্যন্ত ৯৫ দশমিক ৫ শতাংশ রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন আছেন ৩ হাজার ২২৬ জন রোগী। বাকি ১৯৭ জনের মৃত্যু হলেও এদের মধ্যে ৬০ জন ডেঙ্গুজনিত কারণে মারা গেছেন বলে নিশ্চিত হয়েছে আইইডিসিআর।

বর্তমানে ঢাকার বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১ হাজার ৫৯২ জন ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী। ঢাকার বাইরে বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন ১ হাজার ৬৩৪ জন রোগী।

গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকা শহরের বিভিন্ন সরকারি হাসপাতালে ২৪৬ জন ও বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে নতুনভাবে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন ৬৮ জন রোগী।

পাশাপাশি ঢাকা বিভাগের জেলা শহরগুলোতে ১০৪ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৫১ জন ও খুলনা বিভাগে ১৩৯ জন, রংপুর বিভাগে ১৩ জন, রাজশাহী বিভাগে ৪২ জন, বরিশাল বিভাগে ৬৬ জন, সিলেট বিভাগে ৯ জন, ময়মনসিংহ বিভাগে ২৩ জন ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

সারাবাংলা/এসবি/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন