বুধবার ২০ নভেম্বর, ২০১৯ ইং , ৬ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২২ রবিউল-আউয়াল, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

দায়িত্ব নিয়েই বিআরটিসি চেয়ারম্যানের আল্টিমেটাম

সেপ্টেম্বর ৯, ২০১৯ | ৫:২১ অপরাহ্ণ

সাব্বির আহমেদ, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দায়িত্ব নিয়েই ডিপো ম্যানেজারদের একমাসের আল্টিমেটাম দিয়েছেন বিআরটিসির নতুন চেয়ারম্যান এহছানে এলাহী। একমাসের মধ্যে ডিপো ম্যানেজারদের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ আসলে তাদের তুলে নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি করেছেন তিনি।

বিজ্ঞাপন

অনিয়মের কারণে বিআরটিসির সারাদেশের ডিপোতে ১০ থেকে ১২ মাসের বেতন বকেয়া পড়ে আছে। এ অবস্থায় গত চারদিন আগে দায়িত্ব নেওয়ার পরেই চেয়ারম্যানের হুঁশিয়ারি পেয়ে আসছেন ডিপো ম্যানেজাররা।

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) সরেজমিনে তার অফিসে গিয়ে দেখা যায়, দায়িত্ব নেওয়ার চতুর্থ দিনে তাকে ফুল দিতে আসেন এক বাস মালিক। ফুল নিয়ে অফিসে আসার কারণে প্রথমে বেঁকে বসলেও শুধু সৌজন্যতার খাতিরে তা নেন তিনি। এমন সময় সেখানে আসেন বিআরটিসির কমলাপুর ডিপো ম্যানেজার। তাকে সাফ জানিয়ে দেন, আজ থেকে কোথাও চাঁদা দিয়ে থাকলে সেটি বন্ধ। এখানে টাকা নিয়ে আসলে হাত কেটে দেবো। পরে শ্রমিকদের বেতন দেওয়ার প্রতিশ্রতি নিয়ে তাকে ছাড়েন তিনি।

সারাবাংলার সঙ্গে সাক্ষাৎকারে এলাহী বলেন, ‘২৮ বছরের চাকুরি জীবনে কখনও গায়ে কালিমা লাগে নি। এবারও তা হতে দেবো না। বিআরটিসিতে কেউ কাউকে অবৈধ এক টাকাও দেবে না।’

বিজ্ঞাপন

জানালেন, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর কাছে তিনি অঙ্গীকার করে এসেছেন, বিআরটিসিতে দুর্নীতি বন্ধ করবেন। সেই অঙ্গীকারে এবার ৬ মাসে বিআরটিসিকে বদলে ফেলতে চান নতুন চেয়ারম্যান।

সারাবাংলা লাইভে বিআরটিসির চেয়ারম্যান

এহছানে এলাহী জানান, তার প্রথম কার্যদিবস থেকে এ পর্যন্ত ডিপো ম্যানেজারদের অনিয়ম থেকে বের করতে কঠোর হয়েছেন তিনি। এজন্য ডিপো ম্যানেজারের প্রত্যেককে আলাদা আলাদা ফোন করে হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন। সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, এক মাস পরীক্ষা দিতে হবে। মাস শেষে কাজের মান বিবেচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি। প্রয়োজনে পদবীতে ছোট এমন কাউকে দিয়ে ডিপো চালানো হবে বলেও জানান তিনি।

চেয়ারম্যান বলেন, ‘প্রত্যেক ডিপো ম্যানেজারকে টেলিফোনে কয়েকটা বার্তা দিয়েছি। প্রথমেই বলেছি আজ থেকে সব ধরণের অনিয়ম চাঁদাবাজি বন্ধ। কোথাও যদি কোনো টাকা পয়সা লেনদেন অবৈধ বা অনৈতিক হয় তাহলে কঠোর শাস্তি পেতে হবে।’

নতুন চেয়ারম্যান বললেন, ‘প্রধান কার্যালয়ে চাঁদা দেওয়ার কথা শোনা যায় তবে হলফ করে কিছু বলতে পারবো না। এই ধরণের কিছু হয়ে থাকলে আজ থেকে তা বন্ধ। কেউ চাঁদা নিয়ে আসলে তার পরিণতি হবে খারাপ।’

বিআরটিসি চেয়ারম্যান স্বীকার করেন, ‘এ সংস্থায় ম্যানেজমেন্টে বেশ কিছু দুর্বলতা আছে। এ কারণে ডিপোগুলোতে বাস চলার পরও বেতন হয় না। বকেয়া পড়ে আছে ১০ থেকে ১২ মাস পর্যন্ত। আগামী মাস থেকে আমি বেতন নিয়মিত করবো । শ্রমিকরা বেতন পাবে না আর আমি এখানে বসে বেতন নেবো এমন হবে না।’

বিআরটিসিতে চালক সংকট রয়েছে এজন্য বহু বাস ডিপোতে বসে আছে। এবার এসব বাসের ড্রাইভার দ্রুত নিয়োগ দিয়ে সড়কে নামাতে চান তিনি।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/এসএ/জেএএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন