রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৭ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২২ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

ব্যাথামুক্ত নরমাল ডেলিভারি হবে ইমপালস হাসপাতালে

সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯ | ৯:০০ অপরাহ্ণ

সারাবাংলা ডেস্ক

দেশের বেশিরভাগ বেসরকারি হাসপাতালে যেখানে অধিকাংশ প্রসূতিই অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে মা হন। সেখানে ব্যাথামুক্ত নরমাল ডেলিভারি সেবা চালু করেছে রাজধানীর বেসরকারি ইমপালস হাসপাতাল।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) এক সংবাদ সম্মেলনে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এই তথ্য জানিয়েছে।

এ সময় সিঙ্গাপুরের ন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. মো. তৌফিক ইসলাম, আয়ারল্যান্ড ওয়াটারফোর্ড ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট জিন্নুরাইন জয়গিদার এবং পোর্টিয়নকুলা ইউনিভার্সিটি হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট ডা. কাজী নাফিজা হামিদ উপস্থিত ছিলেন।

স্বাগ বক্তব্যে ইমপালস হেলথ সার্ভিসেস অ্যান্ড রিসার্চ সেন্টার লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রফেসর ডা. জাহের আল-আমিন বলেন, ‘সিজারিয়ান কোন মতেই স্বাভাবিক প্রসবের বিকল্প হতে পারে না। আবার আধুনিকতার নিরিখে প্রসবের সময় ব্যাথাও কোনমতে কাম্য নয়। এইসব চিন্তা করেই আমরা গত বছর থেকে ব্যাথামুক্ত নরমাল ডেলিভারি শুরু করেছি এবং যথেষ্ট সাফল্যও অর্জন করেছি।’

বিজ্ঞাপন

সিজারিয়ান প্রসবের কারণে মায়েদের কিছু সমস্যা হতে পারে। কারণ এটি একটি অস্ত্রোপচার। অথচ এটি স্বাভাবিক প্রসবের মাধ্যমে এড়ানো সম্ভব।

এই পদ্ধতির নাম এপিডুরাল অ্যানালজেসিয়া। এটি ব্যবহার করলে রোগী সম্পূর্ণ ব্যথামুক্ত ভাবে তাদের সন্তান প্রসব করতে পারবেন।

এই চিকিৎসক আরও বলেন, ‘সাধারণ ব্যাথাহীন নরমাল ডেলিভারির জন্য যা প্রয়োজন তা হচ্ছে একটি সুসজ্জিত ব্যবস্থাপনা, পর্যাপ্ত এনেসথিয়েসিস্ট, ২৪ ঘণ্টার জন্য সার্বক্ষনিক কনসালটেন্টদের উপস্থিতি, যার মাধ্যমে প্রি-ডেলিভারি, ডেলিভারি এবং ডেলিভারি পরবর্তী সেবা দক্ষতার সঙ্গে দেওয়া সম্ভব। ইমপালস হসপিটাল হচ্ছে বাংলাদেশে একমাত্র স্বাস্থ্যকেন্দ্র যেখানে মায়েরা পাবেন সর্বোত্তম ব্যাথাহীন স্বাভাবিক ডেলিভারি সেবা। আর আমরা রোগীর সন্তুষ্টি অর্জনে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ।’

এই উদ্যোগকে আরও বেগবান করতে বিদেশ থেকে বিশেষ দল আনা হয়েছে বলে সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। যারা আগামী ১ সপ্তাহ ইমপালসের সমস্ত ডেলিভারি পরিচালনা করবেন ও স্থানীয় যে দুর্বলতা আছে তা দূর করতে সক্ষম হবেন।

সারাবাংলা/এসএমএন

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন