রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৭ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২২ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

পরিবেশ দূষণে দণ্ডিত কেডিএস, রয়েল, কনফিডেন্স ও ন্যাশনাল সিমেন্ট

সেপ্টেম্বর ১১, ২০১৯ | ৯:৫২ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো: চট্টগ্রামের প্রথম সারির চারটি শিল্প প্রতিষ্ঠানকে ৪১ লাখ টাকা জরিমানা করেছে পরিবেশ অধিদফতর। পরিবেশ ছাড়পত্রের শর্ত অমান্যসহ বিভিন্ন অভিযোগে তাদের এই জরিমানা দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয়েছে। আদেশ অমান্য করলে কারখানাগুলো বন্ধ করে দেওয়া হবে বলেও জানিয়েছে পরিবেশ অধিদফতর।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) চট্টগ্রাম বিভাগীয় পরিবেশ অধিদফতরের পরিচালক মোয়াজ্জেম হোসাইন এই আদেশ দিয়েছেন।

দণ্ডিত প্রতিষ্ঠানগুলো হচ্ছে- রয়েল সিমেন্ট, কনফিডেন্স গ্রুপের কনফিডেন্স সিমেন্ট, কেডিএস গ্রুপের কে ওয়াই সি আর কয়েল ইন্ডাস্ট্রিজ ও ন্যাশনাল সিমেন্ট।

বিভাগীয় পরিবেশ অধিদফতরের পরিচালক মোয়াজ্জেম হোসাইন সারাবাংলাকে জানান, চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে একটি প্ল্যান্টের অনুমোদন নিয়ে তিনটি প্ল্যান্টে সিমেন্ট উৎপাদন করায় রয়েল সিমেন্টকে ৩০ লাখ টাকা জরিমানা দেওয়ার আদেশ দেওয়া হয়েছে।

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে কনফিডেন্স সিমেন্ট কারখানার কোনো পরিবেশ ছাড়পত্র নেই। তাদের কারখানায় বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কোনো মানসম্মত পদ্ধতি নেই। অথচ তারা পুরোদমে উৎপাদন করে যাচ্ছে। প্রতিষ্ঠানটিকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

বিজ্ঞাপন

সীতাকুণ্ডে কে ওয়াই সি আর কয়েল কারখানা থেকে তরল বর্জ্য সরাসরি নিষ্কাশন করা হচ্ছে। তাদের কোনো তরল বর্জ্য শোধনাগার নেই। কারখানাটিকে ৩ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

একইভাবে চট্টগ্রামের কর্ণফুলী উপজেলায় ন্যাশনাল সিমেন্ট কারখানায়ও স্বাভাবিক মানমাত্রার চেয়ে বেশি পরিমাণে ধোঁয়া নির্গত করে পরিবেশ দূষণের প্রমাণ পাওয়ায় তাদের ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

মোয়াজ্জেম হোসাইন সারাবাংলাকে বলেন, ‘গত ৪ সেপ্টেম্বর আমরা কারখানাগুলো পরিদর্শন করে বিভিন্ন অনিয়ম ও দূষণের প্রমাণ পাই। আমরা তাদের শুনানিতে হাজির হওয়ার নোটিশ দিয়েছিলাম। আজ (বুধবার) প্রতিষ্ঠানগুলোর প্রতিনিধিদের উপস্থিতিতে শুনানি শেষে পরিবেশ সংরক্ষণ আইন, ১৯৯৫-এর ৭ ধারায় তাদের জরিমানা করা হয়েছে।’

এদিকে পরিবেশ দূষণের অভিযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার বিজয়নগরে সিঙ্গার বিল ব্রিকস নামে একটি ইটভাটাকে ২ লাখ টাকা এবং পাহাড় কাটার অপরাধে কক্সবাজারের চার ব্যক্তিকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মোয়াজ্জেম হোসাইন।

সারাবাংলা/আরডি/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন