রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৭ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২২ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

অধিক পুষ্টি সমৃদ্ধ ফসল চাষে উদ্বুদ্ধ করছে কৃষি মন্ত্রণালয়

সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯ | ১:০৪ পূর্বাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: কফি, কাজু বাদাম, অ্যাভোকাডোর মতো অধিক পুষ্টি সমৃদ্ধ ফসল চাষে কৃষকদের উদ্বুদ্ধ করছে কৃষি মন্ত্রণালয়। বুধবার (১১ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক এ তথ্য জানান।

বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, ধানের পাশাপাশি অপ্রচলিত ফসল চাষে কৃষকরা যেন লাভবান হতে পারে সেই চেষ্টা করছে সরকার। বাংলাদেশ এখন খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। সরকারের বড় চ্যালেঞ্জ এখন পুষ্টি নিশ্চিত করা। এরই মধ্যে রুমা উপজেলায় কফির চাষ শুরু হয়েছে। কফির উৎপাদন বাড়ানোর পাশাপাশি রফতানি করতে চাই আমরা। প্রশিক্ষণের জন্য কৃষকদের ভিয়েতনামে পাঠানোর উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। বান্দরবানের রুমা উপজেলায় ২০১১ সালে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রতিষ্ঠান নর্থ এন্ড (প্রাইভেট) লিমিটেড ৫শ’ কফি গাছ দিয়ে পরীক্ষামূলকভাবে কফি চাষ শুরু করে। বর্তমানে গাছের সংখ্যা বেড়ে দেড় লাখে দাঁড়িয়েছে।

এদিন সচিবালয়ে প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক রিক হারবার্ডের সঙ্গে বৈঠক করেন কৃষিমন্ত্রী। বৈঠকে রিক হারবার্ড বলেন, একটি কফির গাছ তিন বছর বয়স হলে ফল দিতে শুরু করে। ৯০ বছর পর্যন্ত ফল দেয়। এটা উৎপাদনে কম পানি লাগে। নর্থ এন্ড এবং জাতিসংঘ খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) মনে করে বাংলাদেশে বিশ্ব মানের কফি হচ্ছে। পোকামাকড় ও রোগজীবাণুর আক্রমণ নেই। এই প্রকল্পকে এগিয়ে নিতে জাতিসংঘ খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) বাংলাদেশকে বিনামূল্যে কফি প্রসেসিং মেশিন দিচ্ছে।

এ সময় রিক হারবার্ডের প্রস্তাবের জবাবে ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক কফি রফতানিতে ডিউটি ফি কমানোর আশ্বাস দেন। তিনি বলেন, কৃষিজাত পণ্যের ওপর সরকার প্রণোদনা দিচ্ছে। কফিকেও এর আওতায় আনা হবে।

সারাবাংলা/জেআর/এটি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন