রবিবার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং , ৭ আশ্বিন, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২২ মুহাররম, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

তবুও আশাতুর জিম্বাবুয়ে

সেপ্টেম্বর ১২, ২০১৯ | ৪:১৯ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

বেশ লম্বা সময় ধরেই দুর্নীতিতে নিমজ্জিত জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট। ফলে এক সময়ের দুর্দান্ত নেইল জনসন, অ্যান্ড্রি ফ্লাওয়ার, গ্রান্ট ফ্লাওয়ার, হিথ স্ট্রিকদের দলের সেই গৌরব মিইয়ে গেছে দূর নিলীমায়। ক্রিকেটের গোটা কাঠামো ভেঙে পড়ায় হারিয়েছে ছান্দসিক চলার পথ। এতে করে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে দেশটির অবস্থা গিয়ে ঠেকেছে তলানিতে। দিনের দিনের পর এভাবে চলতে থাকায় বিশ্বকাপের মাঝামাঝি হঠাৎ করেই জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ড ভেঙে দিয়েছে দেশটির সরকার। এর ফলে চরম অনিশ্চয়তার মুখে পড়ে গিয়েছিল দেশটির ক্রিকেট।

বিজ্ঞাপন

রাজনৈতিক হস্তক্ষেপের জেরে অনির্দিষ্ট সময়ের জন্য জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট বোর্ডের ওপর নিষেধাজ্ঞা ও আর্থিক সহযোগিতা বন্ধ করে দেয়ায় বাংলাদেশ ও আফগানিস্তানের সঙ্গে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজটি বন্ধ হবার উপক্রমও হয়েছিল। কিন্তু বিসিবির প্রত্যক্ষ সহযোগিতায় সেই বন্ধ হওয়া পথ উন্মুক্ত হয়।

ঠিক এমন একটি টালমাটাল পথ অতিক্রম করে তবেই ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলতে বাংলাদেশে এসেছে জিম্বাবুয়ে। নিঃসন্দেহে দলটির মানসিক অবস্থা স্বাভাবিক নেই। বিক্ষিপ্ত সেই মানসিকতার ছাপ ফেলতে পারে ক্রিকেটেও। কাজেই ধরেই নেওয়া যায় আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজটিতে তারা অপর দুই প্রতিপক্ষের চাইতে পিছিয়ে থেকেই টুর্নামেন্ট শুরু করবে।

কিন্তু বাস্তবতা হলো বিষয়টি মোটেও তা নয়। বোর্ডের টালমাটাল অবস্থা তাদের ক্রিকেটে কোনো ছাপ ফেলবে না। বরং বরাবরের মতো এবারও সেই শক্তিধর জিম্বাবুয়েকেই দেখা যাবে। অপর দুই প্রতিপক্ষের অনুরূপ তারাও টুর্নামেন্টের শিরোপা স্বপ্নে বিভোর থাকবে।

বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামের সম্মেলন কক্ষে ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে এসে তেমনই আভাস দিয়ে গেলেন দলপতি হ্যামিল্টন মাসাকাদজা। তিনি জানালেন, ‘হ্যাঁ, বোর্ডে অনেক ঘটনা ঘটে গেছে। কিন্তু এগুলো সবই পর্দার আড়ালের ঘটনা। দেখুন ক্রিকেটটাই আমাদের পেশা। মাঠে সেরা খেলাটিই আমাদের কাজ। আমার জেনে দরকার নেই ওখানে কি হয়েছে। আমাদের প্রধান কাজ ক্রিকেট খেলা এবং সেটা ভেবেই আগামীকাল থেকে দেশের জন্য আমাদের কাজটি শুরু করতে চাইছি।’

বিজ্ঞাপন

আগামীকাল থেকে শুরু হওয়া তিন জাতির এই টুর্নামেন্টে জিম্বাবুয়ের দুই প্রতিপক্ষ বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। আক্ষরিক অর্থেই যারা তাদের চাইতে সব বিবেচনাতেই এগিয়ে। ঘরের মাঠেরে সুবিধা নিয়ে এগিয়ে থাকবে বাংলাদেশ। আর রশিদ খান, মুজিব উর রহমান ও মোহাম্মদ নবীদের স্পিন ঘূর্ণিতে চোখ রাঙাবে হালের অপ্রতিরোধ্য আফগানিস্তান।

বাস্তবতার নিরিখে টুর্নামেন্টে দুটি দুর্দান্ত দলের বিরুদ্ধেই জিম্বাবুয়ের আন্ডারডগ হয়ে নামার কথা। কিন্তু হ্যামিল্টন মাসাকাদজা শোনালেন অভয়ের কথা, ‘দুটি দলই খুব শক্তিশালী। আফগানিস্তান দারুণ টি-টোয়েন্টি খেলছে আর বাংলাদেশ খেলেবে ঘরের মাটিতে। আমি বলব দুটো দলই শক্তিশালী। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আমাদেরও সাফল্য আছে। আমার মনে হয় বাংলাদেশে আমরা বেশ ভালো টি-টোয়েন্টি খেলেছি। অতএব আমার মনে হয় না যে আমরা অনেক পিছিয়ে থেকে টুর্নামেন্ট শুরু করবো।’

ত্রিদেশীয় সিরিজের প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশের বিপক্ষে নামবে জিম্বাবুয়ে। দুই দলের মুখোমুখি দেখায় এই পর্যন্ত ৯টি টি-টোয়েন্টির ৫টিতেই জিতেছে বাংলাদেশ। সংবাদ সম্মেলনে যে ইতিবাচক মানসিকতা হ্যামিল্টন দেখালেন তাতে এটা নিশ্চিত শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) বাংলাদেশের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচটিতেই তারা বাজিমাত করতে চাইবেন। আর এই ক্ষেত্রে তাকে আশাতুর করে তুলছে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের বিপক্ষে পাওয়া জয় এবং প্রস্তুতি ম্যাচে ৭ উইকেটে জয়ের তরতাজা সুখস্মৃতি।

তবে হ্যামিল্টন এও মনে করিয়ে দিলেন ফতুল্লার গতকালের ওই ম্যাচ আর শের-ই-বাংলার আগামীকালের ম্যাচটি এক নয়, ‘অবশ্যই আত্মবিশ্বাসী। প্রস্তুতি ম্যাচটা ভালো গিয়েছে। আমাদের প্রক্রিয়া সঠিক ছিল। কিন্তু আমরা সামনে তাকাতে চাইছি। কেননা শেষ ম্যাচটি (প্রস্তুতি) যেমন গিয়েছে বা ওখানে যা করেছি এই ম্যাচে সেটা করা যাবে না। ম্যাচটি ভিন্ন হবে।’

মিরপুর শের-ই-বাংলায় ম্যাচটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায়। ত্রিদেশীয় সিরিজের ম্যাচগুলো সরাসরি সম্প্রচার করবে গাজী টিভি। বরাবরের মতো এবারও বিশ্বের নানা প্রান্তে থাকা বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য খেলা দেখার সবচেয়ে বড় প্ল্যাটফর্ম র‌্যাবিটহোল। এই প্রথমবার বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে উপভোগ করা যাচ্ছে টাইগারদের খেলা। প্রায় ২০০ দেশ থেকে বাংলাদেশ-আফগানিস্তান-জিম্বাবুয়ে ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজটি সরাসরি উপভোগ করতে ক্লিক করুন এখানে: www.rabbitholebd.com

সারাবাংলা/এমআরএফ/এমআরপি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন