বিজ্ঞাপন

পাবনায় গণধর্ষণ মামলার আরেক আসামি গ্রেফতার

সেপ্টেম্বর ১৩, ২০১৯ | ৫:০৬ অপরাহ্ণ

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: পাবনায় গৃহবধূকে গণধর্ষণ, ভুক্তভোগীর সঙ্গে ধর্ষকের বিয়ে মামলার এক আসামিকে শুক্রবার সকালে সদর উপজেলার পৌর এলাকার সিঙ্গা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বিজ্ঞাপন

গ্রেফতার আসামির নাম ওসমান আলী (৩৫)। সে সদর উপজেলার দাপুনিয়া ইউনিয়নের গাঁতি সাতমাইল গ্রামের ফজলুর রহমানের ছেলে।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মো. আছাদুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, চাঞ্চল্যকর এ মামলার পাঁচ আসামিই গ্রেফতার হয়েছেন। শহরের পৌর এলাকার সিংগা থেকে মামলার তিন নম্বর আসামি ওসমান আলী গ্রেফতার করা হয়। এর আগে মামলা চার আসামি রাসেল আহমেদ, শরিফুল ইসলাম ঘন্টু, সঞ্জু হোসেন ও হোসেন ড্রাইভারকে গ্রেফতার করা হয়।

বিজ্ঞাপন

প্রসঙ্গত পাবনা সদর উপজেলার সাহাপুর যশোদল গ্রামের তিন সন্তানের জননী এক গৃহবধূকে গণধর্ষণ করা হয়। পরে থানায় মামলা দিতে গেলে পুলিশ মামলা না নিয়ে অভিযুক্ত রাসেলের সঙ্গে ভুক্তভোগী গৃহবধূকে থানার ভেতরে বিয়ে দেওয়া হয়।

এ ঘটনা জানাজানি হলে জেলা পুলিশ ঘটনা তদন্ত করে তদন্ত প্রতিবেদন প্রাপ্তির পর পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ওবায়দুল হককে প্রত্যাহার করে পুলিশ লাইনে সংযুক্ত এবং থানাতে বিয়ে দেওয়ার অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় উপপরিদর্শক (এসআই) একরামুল হককে সাময়িক বহিষ্কার করে।

এদিকে পুলিশের তদন্ত কমিটির পাশাপাশি মন্ত্রিপরিষদের নির্দেশক্রমে পাবনা জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পুরো ঘটনা তদন্তে তিন সদস্যের একটি পৃথক কমিটি গঠন করা হয়। ওই কমিটিতে অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট (এডিএম) জাহিদ নেওয়াজকে প্রধান করা হয়। বাকি সদস্যরা হলেন জেলার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. এ কে এম আবু জাফর ও পাবনা সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবনে মিজান।

সারাবাংলা/একে

Advertisement
বিজ্ঞাপন

Tags: ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন