বৃহস্পতিবার ৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ৭ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

রাজনীতিতে ‘ডান’ ‘বাম’, কিভাবে আসলো?

সেপ্টেম্বর ১৪, ২০১৯ | ৬:৫২ অপরাহ্ণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

রাজনীতি সংক্রান্ত যে কোনো কথা আসলেই, অবধারিতভাবে যে দুই ধরনের বিভক্তি চলে আসে, ডান ও বাম। আজকের পৃথিবীতে রাজনৈতিক সুবিধাপ্রাপ্তি বা ট্যাগিংয়ের স্বার্থে খুব সহজেই একজন আরেকজনকে 'ডান' বা 'বাম' বলে দিচ্ছে। কিন্তু কিভাবে আসলো এই বিভক্তি তার পেছনের ইতিহাসই বা কি? তা নিয়ে সংস্কৃতি, রাজনীতি ও ইতিহাস গবেষকরা কাজ করেছেন। খুঁজে পেয়েছেন এর মূল। টাইম পত্রিকার প্রতিবেদন অনুসরনে আজ আমরা সে পথে হেঁটে আসবো।

বিজ্ঞাপন

গল্পটা শুরু হয়েছল ১৭৮৯ সালের গ্রীষ্মে ফ্রান্স থেকে। ফরাসী বিপ্লব তখন তুঙ্গে। বিক্ষুব্ধ জনতা কেবলমাত্র বাস্তিল দূর্গের দখল নিয়েছে। বিপ্লবী সরকার গঠন ও সংবিধান রচনার জন্য এসেম্বলির অধিবেশন বসেছে। এসেম্বলিতে বিতর্কের অন্যতম বিষয় ছিল রাজার হাতে কতখানি ক্ষমতা থাকবে? রাজা কি চাইলেই যা ইচ্ছা তাই করতে পারবেন? বিতর্ক চলছিল। অধিবেশনে উপস্থিত সদস্যদের মধ্যে যারা মনে করতেন রাজা চাইলেই যা ইচ্ছা তাই করতে পারবেন তারা এসেম্বলির ডান দিকে বসেছিলেন। আর যারা মনে করতেন, না, রাজাকেও যে কোন সিদ্ধান্ত যৌক্তিক ও প্রামান্যতার মাধ্যমে নিতে হবে তারা বসেছিলেন এসেম্বলির বাম দিকে। আরও পরিষ্কারভাবে বললে, যারা সেকেলে প্রথাগত রাজ ধারণার অনুগামী ছিলেন তারা ছিলেন 'ডান' আর যারা পরিবর্তনের পক্ষে মত দিয়েছিলেন তারা ছিলেন 'বাম'।

প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক ফ্রান্সের ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক ডেভিড এ বেল 'ডান' ও 'বাম' এর উৎপত্তি খুজতে গিয়ে এই গ্রুপিং খুঁজে পেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

ফ্রান্সের ঐ এসেম্বলিতে বসবার ধরন ক্রমে সমগ্র রাজনৈতিক দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে। পত্রিকার পাতায় ও স্থান করে নেয় ঐ দুটি শব্দ 'ডান' 'বাম'।

সারা বিশ্ব তাকিয়ে ছিল ফরাসী বিপ্লবের দিকে। তাই ফরাসী বিপ্লব থেকে জন্ম নেওয়া শব্দগুলোও সারা পৃথিবীতে খুব দ্রুতই ছড়িয়ে পড়ে। কিন্তু বিশ্ব সে শব্দগুলো রাতারাতিই গ্রহণ করে নাই। ফরাসী বিপ্লবের প্রায় ২৫ বছর পর, বিংশ শতাব্দীর প্রথম দশকে রাজনৈতিক বিভাজনের ক্যাটেগরি হিসেবে ডান ও বাম এই দুই ধারাকে গ্রহণ করে বিশ্ব।

তার প্রমাণ পাওয়া যায় সোভিয়েত ইউনিয়নের বলশেভিক বিপ্লবের পর সেখানে ডান ও বামের সংজ্ঞা ছড়িয়ে পড়ে। ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ের ইউরোপের সংস্কৃতি এবং বুদ্ধিবৃত্তির ইতিহাস বিভাগের অধ্যাপক মার্সি শোর বলেন, বলশেভিকরা ফরাসী বিপ্লব দ্বারা ব্যাপকভাবে প্রভাবিত ছিল এবং তারা ফরাসী বিপ্লবের ঐ ধারাকে আরও সমুন্নত রাখতে চাইতো। তারা বিশ্বাস করতো এই 'ডান' 'বাম' বিভাজন তাদের ঐতিহাসিক পরিক্রমায় সাম্যবাদের পথে যাওয়ার এক জরুরি পদক্ষেপ। সেখানে 'বাম' ও 'ডান' আবির্ভূত হয় এক নতুন অর্থ নিয়ে।

রাশিয়ায় স্ট্যালিনের শাসনের সময় যারা কমিউনিস্টদের পার্টি লাইন ভেঙ্গে বেরিয়ে যেতেন তাদেরকে অপর পক্ষ থেকে বামপন্থি বলে উল্লেখ করা হতো। এছাড়াও বামপন্থি বলতে তখন বুঝানো হতো যারা আন্তর্জাতিক শ্রমিক বিপ্লবের সাথে জড়িত আছেন। আর ডানপন্থি বলা হতো যারা জাতীয় স্বার্থ নিয়ে কাজ করছেন। কিন্তু ডান বামের এই সংজ্ঞায়ন ছিল ভাসমান, যে কোন ইস্যুতে পার্টির অবস্থানের ভিত্তিতে ডান বা বাম নির্ধারিত হতো।

যুদ্ধের বছরগুলোতে ইউরোপে ডানেরা আরও ডান এবং বামেরা আরও বাম হতে থাকে। মাঝখান থেকে লিবারেলরা হাওয়ায় মিলিয়ে যায়।

বিজ্ঞাপন

সারাবাংলা/একেএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন