রবিবার ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ৪ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

জাতীয় সম্মেলন কমিটির আহ্বায়ক শেখ হাসিনা, সচিব ওবায়দুল কাদের

সেপ্টেম্বর ১৮, ২০১৯ | ১০:৫৫ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ২১তম জাতীয় সম্মেলন প্রস্তুত কমিটির আহ্বায়ক হিসাবে দলে সভাপতি শেখ হাসিনা; সদস্য সচিব হিসেবে ওবায়দুল কাদেরকে মনোনীত করে ১২টি খসড়া উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডিস্থ কার্যালয়ে দলের সম্পাদকমণ্ডলির বৈঠক সূত্র এ তথ্য জানা গেছে। গত ৩ আগস্ট এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বিজ্ঞাপন

অভ্যর্থনা উপ-কমিটির আহ্বায়ক মোহাম্মদ নাসিম, সদস্য সচিব ডা. দীপু মনি; অর্থ উপ-কমিটির আহ্বায়ক কাজী জাফরউল্লাহ, সদস্য সচিব এইচএন আশিকুর রহমান; ঘোষণাপত্র উপ-কমিটির আহ্বায়ক শেখ ফজলুল করিম সেলিম, সদস্য সচিব আব্দুর রহমান; দপ্তর উপ-কমিটির আহ্বায়ক পীযুষ ভট্টাচার্য, সদস্য সচিব আব্দুস সোবহান গোলাপ; মঞ্চ ও সাজসজ্জা কমিটির আহ্বায়ক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সদস্য সচিব মির্জা আজম; প্রচার ও প্রকাশনা কমিটির আহ্বায়ক এইচ টি ইমাম, সদস্য সচিব হাছান মাহমুদ; শৃঙ্খলা উপ-কমিটির আহ্বায়ক আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহ, সদস্য সচিব আফম বাহাউদ্দিন নাছিম; গঠনতন্ত্র সংশোধন উপ-কমিটির আহ্বায়ক আব্দুর রাজ্জাক, সদস্য সচিব আফজাল হোসেন; স্বাস্থ্য উপ-কমিটির আহ্বায়ক মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, সদস্য সচিব রোকেয়া সুলতানা; সংস্কৃতিক উপ-কমিটির আহ্বায়ক আতাউর রহমান, সদস্য সচিব অসীম কুমার উকিল; খাদ্য উপ-কমিটির আহ্বায়ক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া।

এদিকে বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ত্রি বার্ষিক জাতীয় কাউন্সিলকে সামনে রেখে ১২ টি সম্মেলন প্রস্তুত উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিগুলো আমাদের নেত্রী আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার অনুমোদনের পর প্রেসে পাঠিয়ে দেওয়া হবে।

কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সিদ্বান্ত অনুসারে ২০ ও ২১ ডিসেম্বর জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। ২০ তারিখে দুপুর সাড়ে তিনটায় উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হবে। ২১ তারিখে দ্বিতীয় অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে।

বিজ্ঞাপন

ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কাউন্সিল সামনে রেখে সম্মেলনের ১২টি উপ-কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটিগুলো আপাতত প্রস্তাবিত। কমিটিগুলো আমাদের নেত্রী আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার অনুমোদনের পর প্রেসে পাঠিয়ে দেব। এরপর ২১ সেপ্টেম্বর থেকে পূজার ছুটি সময় ব্যতীত ১৫ অক্টোবর পর্যন্ত বাকি সময়টা সংশ্লিষ্ট বিভাগের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা যে যার বিভাগে সুবিধামতো সভা-সমাবেশ করে সম্মেলন প্রস্তুতিমূলক কর্মসূচিতে অংশ নেবেন। আরেকটা দিক হচ্ছে, জেলা, উপজেলা, থানা, পৌরসভা, মহানগর, ওয়ার্ড ও ইউনিয়ন পর্যন্ত আমাদের যারা টিম সমন্বয়ক আছেন, সেগুলো তারা প্রায়োরিটি বেসিসে দিন-তারিখ নির্ধারণ করে ১০ ডিসেম্বরের মধ্যে কাউন্সিল প্রস্তুতি সম্পন্ন করবে।’

সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম আলম, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজাম্মেল হক, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, এ কে এম এনামুল হক শামীম, মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, দফতর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সবুর, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক শেখ আবদুল্লাহ, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক মৃণাল কান্তি দাস, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রোকেয়া সুলতানা, বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, উপ দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য, আমিরুল আলম মিলন, ইকবাল হোসেন অপু, এ বি এম রিয়াজুল কবির কাওছারসহ অনেকে।

সারাবাংলা/এনআর/একে

বিজ্ঞাপন

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন