রবিবার ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ৪ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

‘চেক ডিজঅনারের মামলায় ব্যবসায়ীকে ৫ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ কেন নয়’

সেপ্টেম্বর ১৯, ২০১৯ | ৯:২৫ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: চেক ডিজঅনারের মামলার আসামি চট্টগ্রামের ব্যবসায়ী এসএম জসিমউদ্দিনকে ক্ষতিপূরণ হিসেবে কেন ৫ কোটি টাকা দিতে নির্দেশ দেওয়া হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. খায়রুল আলমের হাইকোর্ট বেঞ্চ আদেশ দেন।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) আদেশের বিষয়টি জানিয়েছেন আইনজীবী সাইফুল আলম।

আগামী চার সপ্তাহের মধ্যে চট্টগ্রাম ৫ম যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক, মামলা পরিচালনাকারী সরকারপক্ষে আইনজীবী (এপিপি), চেক ডিজঅনার মামলার বাদী ও তার সহযোগী সংশ্লিষ্ট এসএ গ্রুপের ম্যানেজার মো. সাইফুদ্দিন, ইসলামী ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডসহ বিবাদীদের রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

রিট আবেদনকারীপক্ষে আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট মুহাম্মাদ আমিরুল হক ও অ্যাডভোকেট মো. সাইফুল আলম। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত দাস গুপ্ত।

বিজ্ঞাপন

সূচনা এন্টারপ্রাইজের মালিক ব্যবসায়ী জসিম উদ্দিনের করা এক রিট আবেদনে আদালত এ আদেশ দেন।

রিট আবেদন থেকে জানা যায়, লবন ব্যবসায়ী আব্দুল আলীমের মাধ্যমে ২০১৫ সালের ২১ জুন মো. সাইফুদ্দিনের কাছ থেকে চট্টগ্রামের হালিশহরে একটি দোকান ভাড়া নেন জসিম উদ্দিন। এসময় তিনি সিকিউরিটি হিসেবে ইসলামী ব্যাংকের এক লাখ টাকার একটি চেক দেন বাড়ির মালিক সাইফুদ্দিনকে। কিছুদিন পর ওই দোকান ছেড়ে দেন জসিম উদ্দিন। এরপর তিনি তার চেকটি ফেরত চান, কিন্তু সাইফুদ্দিন তাকে চেক ফেরত দেয়নি। এরও কিছুদিন পর ওই চেক ব্যবহার করে জসিম উদ্দিনের বিরুদ্ধে আব্দুল আলীম আদালতে চেক ডিজঅনারের মামলা করেন। এই মামলায় মানিকগঞ্জ থেকে ২০১৭ সালের ৫ জুলাই জসিম উদ্দিনকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এরপর চট্টগ্রামের ৫ম যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ আদালতে মামলার বিচারকালে দেখা যায়, ২০১৫ সালের দেওয়া চেকটি ঘষামাজা করে ২০১৬ সালে ডিজঅনার করা হয়েছে। আর ডিজঅনার করা চেকে ছুটিতে থাকা ইসলামী ব্যাংকের এক কর্মকর্তার সিল ব্যবহার করা হয়েছে।

এ অবস্থায় জালিয়াতির মাধ্যমে মামলা করায় বাদী আব্দুল আলীমের ফৌজদারি ব্যবস্থা নিতে আবেদন জানান। কিন্তু আদালত জসিম উদ্দিনের আবেদন খারিজ করে দেন। তবে চেক ডিজঅনারের মামলা থেকে জসিম উদ্দিনকে খালাস দিয়ে গত ১৩ মে রায় দেয় আদালত। রায়ে বিচারক ব্যবসায়ী এসএম জসিম উদ্দিনকে ‘অভ্যাসগতভাবে অপরাধের সঙ্গে জড়িত’ হিসেবে অভিহিত করেন। এই রায়ে সংক্ষুদ্ধ হয়ে হাইকোর্টে রিট আবেদন করেন জসিম উদ্দিন। পরে হাইকোর্ট রুল জারি করেন।

সারাবাংলা/এজেডকে/এমও

বিজ্ঞাপন

Tags: ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন