বিজ্ঞাপন

‘ফ্লাইওভার থেকে ফেলে দেওয়া ৪০ হাজার ইয়াবা ভারতে পাচার হচ্ছিল’

September 22, 2019 | 12:02 am

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

চট্টগ্রাম ব্যুরো : প্রায় একমাস আগে চট্টগ্রাম নগরীতে ফ্লাইওভারের ওপর থেকে ৪০ হাজার ইয়াবাভর্তি বস্তা নিচে রাস্তায় ফেলে দেওয়ার রহস্য উদঘাটন করেছে ডবলমুরিং থানা পুলিশ। গ্রেফতার হওয়া এক কভার্ড ভ্যান চালকের স্বীকারোক্তি অনুযায়ী পুলিশ জানিয়েছে, কভার্ড ভ্যানে করে ইয়াবা নিয়ে ফ্লাইওভার অতিক্রমের সময় একটি মাইক্রোবাস সামনে এসে তাদের থামানোর সংকেত দেওয়ায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ভেবে তিনি ইয়াবাগুলো ফেলে দেন। ইয়াবাগুলো ওই কভার্ড ভ্যানের মালিকের নির্দেশে ভারতে পাচারের উদ্দেশে নেওয়া হচ্ছিল বলে জানিয়েছেন চালক।

বিজ্ঞাপন

শনিবার (২১ সেপ্টেম্বর) সকালে নগরীর পাহাড়তলী থানার গ্রিণভিউ আবাসিক এলাকার সামনে সড়ক থেকে ওই চালককে গ্রেফতার করা হয়। এসময় যে কভার্ড ভ্যান থেকে ইয়াবা ছুঁড়ে ফেলা হয়েছে সেটিও জব্দ করা হয়েছে।

‘ফ্লাইওভার থেকে ফেলে দেওয়া ৪০ হাজার ইয়াবা ভারতে পাচার হচ্ছিল’

বিজ্ঞাপন

গ্রেফতার জয়নাল আবেদিন (৪৮) যশোর জেলার বেনাপোল উপজেলার নারায়ণপুর গ্রামের মৃত মো. রৌশন আলীর ছেলে।

জয়নালকে জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ডবলমুরিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সদীপ কুমার দাশ সারাবাংলাকে জানান, জয়নাল ও তার ছেলে আবদুল্লাহ বেনাপোল এলাকার জনৈক হযরত আলীর মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান মেসার্স ছামিয়া এন্টারপ্রাইজের কভার্ড ভ্যান চালান। গত রমজানের সময় হযরত আলীর নির্দেশে জয়নাল ও তার ছেলে নগরীর সদরঘাট থানার মাদারবাড়ি এলাকায় জনৈক শাহীনের কাছ থেকে তিন দফায় ইয়াবার চালান নিয়ে হযরত আলীকে দেন। প্রতি চালানের জন্য হযরত আলী তাকে ২০ হাজার টাকা করে দেন।

বিজ্ঞাপন

‘ফ্লাইওভার থেকে ফেলে দেওয়া ৪০ হাজার ইয়াবা ভারতে পাচার হচ্ছিল’

গত ২৯ আগস্ট রাতে একইভাবে মাদারবাড়িতে শাহীনের কাছ থেকে জয়নাল ও তার ছেলে ৪০ হাজার ইয়াবা গ্রহণ করেন। অন্যান্য মালামালের সঙ্গে ইয়াবা নিয়ে কভার্ড ভ্যান চালিয়ে তারা ফিরছিলেন বেনাপোলে। গাড়ি চালাচ্ছিলেন আবদুল্লাহ। কভার্ড ভ্যান দেওয়ান হাট ফ্লাইওভার অতিক্রমের সময় সাদা পোশাকে একটি মাইক্রোবাস তাদের গতিরোধের চেষ্টা করে এবং থামানোর সংকেত দেয়। মাইক্রোবাসের ভেতরে থাকা সাদা পোশাকের লোকগুলোকে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য ভেবে জয়নাল ইয়াবাভর্তি বস্তা ফেলে দেন নিচে রাস্তায়। এরপর দ্রুত গাড়ি চালিয়ে চলে যান তারা।

বিজ্ঞাপন

‘ফ্লাইওভার থেকে ফেলে দেওয়া ৪০ হাজার ইয়াবা ভারতে পাচার হচ্ছিল’

ওসি সদীপ কুমার দাশ সারাবাংলাকে বলেন, ‘ঘটনাস্থলে থাকা সিসিটিভির ফুটেজ পর্যালোচনা করে আমরা কভার্ড ভ্যানের তথ্য পাই। জয়নাল গাড়ি নিয়ে আবারও মালামাল নেওয়ার জন্য চট্টগ্রামে আসার পর আমরা তাকে আটক করেছি। জিজ্ঞাসাবাদে সে জানিয়েছে, কভার্ড ভ্যানের মালিক নিয়মিত চট্টগ্রাম থেকে ইয়াবা নিয়ে বেনাপোল সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাচার করে। ৪০ হাজার ইয়াবার চালানটিও নিয়ে যাচ্ছিল একই উদ্দেশে।’

বিজ্ঞাপন

গ্রেফতার জয়নাল দায় স্বীকার করে শনিবার সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম আবু ছালেহ মো.নোমানের আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন ওসি।

উল্লেখ্য, ২৯ আগস্ট রাতে ৪০ হাজার ইয়াবাভর্তি বস্তাটি দেওয়ানহাট এলাকায় ট্রাফিক বক্সের সামনে পড়ে। ট্রাফিক পুলিশের সদস্যরা সেটি উদ্ধার করেন। পরে অজ্ঞাত পরিচয় লোকজনকে আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়।

সারাবাংলা/আরডি/ইএইচটি

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন