রবিবার ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ৪ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

‘শুদ্ধি অভিযানে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না’

সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৯ | ৪:২৩ অপরাহ্ণ

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: ক্ষমতাসীন দল এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনে চলমান শুদ্ধি অভিযান প্রসঙ্গে কথা বলেছেন সরকারের মন্ত্রীরা। আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, মন্ত্রী কিংবা এমপি হোক, দুর্নীতির প্রমাণ পেলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। অন্যদিকে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, আওয়ামী লীগে অবৈধ অনুপ্রবেশকারীরা মদ, জুয়ার আসর বসিয়েছে।

বিজ্ঞাপন

রোববার (২২ সেপ্টোম্বর) দুপুরে সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ভিন্ন ভিন্ন ব্রিফিংয়ে তারা এসব কথা বলেন। তথ্যমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ তৃতীয়বার ক্ষমতায় আসার পরে দলে অনেক অনুপ্রবেশকারী ঢুকেছে। তারাই ক্যাসিনো ব্যবসাসহ নানা অপকর্মের সঙ্গে জড়িত হয়েছে। তাদের এখন আইনের আওতায় আনা হচ্ছে। বাকি যারা রয়েছেন, তাদের সবাইকেই ধরা হবে। যাদের ধরা হয়েছে তারা কেউ ছোট নয়, এরাও একেকজন গডফাদার।

কারা পেছন থেকে মদদ দিয়েছেন সে তালিকাও সরকারের কাছে রয়েছে। সবাইকে একে একে আইনের আওতায় আনা হবে। খালিদ মাহমুদ ও জি কে শামিমের কাছ থেকে যারা কমিশন খেয়েছেন তাদের তালিকাও করা হচ্ছে। কেউ রেহাই পাবে না— বলেন তথ্যমন্ত্রী।

কেঁচো খুঁড়তে সাপ বেরিয়ে আসছে আওয়ামী লীগ নিয়ে বিএনপির এমন মন্তব্যে হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানই হলেন একজন দুর্নীতির অজগর সাপ, তাই বিএনপির মুখে এসব কথা মানায় না।

বিজ্ঞাপন

অন্যদিকে কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, দুর্নীতির বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছেন। এরই মধ্যে দুদক কারো কারো বিরুদ্ধে অনুসন্ধান করছে। তিনি (প্রধানমন্ত্রী) পর্যবেক্ষণ করছেন। যারা তার নাম ব্যবহার করে অপকর্ম, চাদাবা‌জি, দুর্নী‌তি ক‌রেছে, দ‌লের শৃঙ্খলা ভেঙেছে তা‌দের বিরু‌দ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সারাবাংলা/জেআর/এটি

বিজ্ঞাপন

Tags: , , , , , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন