বুধবার ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ১ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

দক্ষিণ কোরিয়ায় বসে বিএ করতে পারবেন বাংলাদেশিরা

সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৯ | ৮:৩০ অপরাহ্ণ

ওমর ফারুক হিমেল, দক্ষিণ কোরিয়া থেকে

সিউল: দক্ষিণ কোরিয়ায় বসবাসকারী বাংলাদেশিদের ব্যাচেলর অব আর্টস (বিএ)-এর সনদ অর্জনের সুযোগ সৃষ্টি করেছে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়। সোমবার (২৩ সেপ্টেম্বর) শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি অনুষ্ঠানিকভাবে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

বিজ্ঞাপন

এর ফলে দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থানরত বাংলাদেশিরা, বিশেষ করে ইমপ্লয়মেন্ট পারমিট সিস্টেম (ইপিএস) কর্মীরা দক্ষিণ কোরিয়ায় বসে বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিনে বিএ ডিগ্রি অর্জন করতে পারবেন। মোট ছয় সেমিস্টারে (প্রতি সেমিস্টার ৬ মাস মেয়াদী) ২০টি কোর্সের মাধ্যমে তিনবছর মেয়াদী বিএ সনদপত্র অর্জনের সুযোগ পাবে।

দ. কোরিয়ার ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী করতে সেমিনার

দক্ষিণ কোরিয়ায় সরকারি সফরে গিয়ে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি ইপিএস কর্মীদের সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এ কোর্সের উদ্বোধ করেন। সেসময় রাষ্ট্রদূত আবিদা ইসলাম, কাউন্সিলর মোহাম্মদ মাসুদ রানা চৌধুরী, মকিমা বেগম, প্রথম সচিব (শ্রম) উপস্থিত ছিলেন।

বিজ্ঞাপন

দক্ষিণ কোরিয়ায় ১৩ হাজার ৩০০ বাংলাদেশি কর্মী রয়েছে। যাদের অধিকাংশই বয়সে তরুণ এবং শিক্ষা জীবন অসমাপ্ত রেখে উন্নত জীবনের আশায়, বেকারত্ব ঘুচাতে দক্ষিণ কোরিয়ায় পাড়ি জমিয়েছেন। তাদের অনেকেই চাকরির পাশাপাশি লেখাপড়াও চালিয়ে যেতে ইচ্ছুক। তাছাড়া, উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত হলে তা ভিসার শ্রেণি পরিবর্তনের মাধ্যমে দীর্ঘ সময় দক্ষিণ কোরিয়ায় বৈধভাবে অবস্থানের ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা রেখে থাকে। তাই দক্ষিণ কোরিয়ায় অবস্থানকারী বাংলাদেশি ইপিএস কর্মীদের উচ্চশিক্ষার পথ সুগম ও বৈধ উপায়ে ভিসার শ্রেণি পরিবর্তনের লক্ষ্যে বাংলাদেশ দূতাবাস, সিউল ও বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ উদ্যোগে এ কোর্সের উদ্বোধন করা হয়েছে।

চলতি বছরের ১ এপ্রিল থেকে অনলাইনে এইচএসসি প্রোগ্রাম চালু করা হয়েছে। বিদেশে অবস্থানরত বাংলাদেশি কর্মীদের জন্য অনলাইন শিক্ষা কার্যক্রম চালুর এটিই ছিল প্রথম উদ্যোগ। এর ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ দূতাবাস, সিউল এবং বাংলাদেশ উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের যৌথ সহযোগিতায় তিন বছর মেয়াদী অনলাইন এই শিক্ষা কার্যক্রমে বিএ ভর্তিচ্ছু প্রার্থীদের আগামী ৩ নভেম্বরের মধ্যে রেজিস্ট্রেশন সম্পন্ন করার জন্য অনুরোধ জানিয়েছে।

কোর্সটি আগামী ১ ডিসেম্বর থেকে শুরু হবে। প্রাথমিকভাবে ৭০ জন বাংলাদেশি ইপিএস কর্মী এই কোর্সে অংশগ্রহণের জন্য আগ্রহ প্রকাশ করেছে।

বাংলাদেশ সরকারের ‘সবার জন্য শিক্ষা’ এ নীতির আলোকে বিদেশে বসে দেশের সমমানের ডিগ্রি লাভের এই সুযোগ কোরিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিরা গ্রহণ করে দেশের উন্নয়নে আরও অধিকতর অবদান রাখবে বলে আশা করাছেন স্থানীয়রা।

সারাবাংলা/এমআই

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন