রবিবার ২০ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ৪ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ২০ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

জাবিতে ভর্তিচ্ছুদের পকেট কাটার উৎসব

সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৯ | ৪:১৭ অপরাহ্ণ

তুহিন সাইফুল ইসলাম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের পকেট কাটার উৎসবে মেতেছে সবাই! বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী দোকান, রেস্তোরা, রিকশা থেকে শুরু করে ঢাকায় ফেরার বাসেও শিক্ষার্থীদেরকে গুনতে হচ্ছে মাত্রাতিরিক্ত টাকা। তবে বিষয়টি নিয়ে একরকম চুপ আছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

বিজ্ঞাপন

বৃহস্পতিবার (২৬ সেপ্টেস্বর) জাহাঙ্গীরনগরের আইন ও বিচার অনুষদের পরীক্ষা চলাকালীন সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী দোকানগুলোতে এক প্লেট মুরগি খিচুড়ি ১৫০ থেকে ২০০ টাকা, ডিম খিচুড়ি ১০০ টাকার বেশি, ভাত-মাছ ১৫০ টাকা, মিনিট দূরত্বে রিক্সা ভাড়া ২০ থেকে ২৫ টাকায় এবং ঢাকার শ্যামলী-কল্যাণপুর থেকে জাবির গেট পর্যন্ত ৫০ থেকে ৬০ টাকা পর্যন্ত ভাড়া রাখছেন বাস চালকরা।

বাড়তি টাকা আদায়ের বিষয়টি নিয়ে সারাবাংলার কাছে অসহায়ত্ব প্রকাশ করেছেন ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা।

সাব্বির আহমেদ নামের এক অভিভাবক সারাবাংলার এই প্রতিবেদককে বলেন, ‘আমি শুনেছি জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার সময় উৎসব হয়। কিন্তু এখানে এসে দেখলাম উল্টো পকেট কাটার উৎসব শুরু হয়েছে। সকাল ৯টায় আমার মেয়ের পরীক্ষা তাই ৭টায় এসে সপরিবারে (৩ জন) ক্যাম্পাসে নাস্তা সেরেছি। তাতেই বিল হয়েছে ৪৫০ টাকা। এত টাকা বিল কেন, জানতে চাইলে ভর্তি পরীক্ষার সময় এরকমই দাম রাখা হয় বলে জানায় দোকানিরা।

বিজ্ঞাপন

এই অভিভাবকের মতো অসহায়ত্বের কথা বলেছেন হুমায়রা নওশীন নামে এক শিক্ষার্থীও। তিনি জানান, সমাজ বিজ্ঞান ভবন থেকে বটতলা পর্যন্ত দূরত্বে তার কাছ থেকে তিরিশ টাকা রিকশা ভাড়া রেখেছেন এক চালক। যেখানে অন্যান্য দিনে ১০ টাকাও ভাড়া নেওয়া হয় না। ক্যাম্পাসে প্রথমবার এসেছেন বলে বিষয়টি প্রথমে বুঝতে পারেননি, পরে জাবির একজন শিক্ষার্থী বিষয়টি বুঝিয়েছেন তাকে।

হুমায়রা বলেন, এখন পর্যন্ত যে কয়টি বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষা দিয়েছি কোথাও এমন বাড়তি খরচ করতে হয়নি। তবে জাহাঙ্গীরনগরে এসে ভিন্ন অভিজ্ঞতা হল। এখানে সবকিছুর দামই আকাশছোঁয়া! একটা ডিম-পরোটার দামও ৪০ টাকা!

তবে শিক্ষার্থীরা সবচেয়ে বেশি হয়রানির শিকার হচ্ছেন ঢাকায় ফেরার বাসে। বিশ্ববিদ্যালয়ের গেট থেকে শ্যামলী, কল্যাণপুর হয়ে ফার্মগেট পর্যন্ত ৫০ থেকে ৬০ টাকা করে ভাড়া দিতে হচ্ছে। এমনকি বিআরটিসির সরকারি বাসেও একই রকম ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে চালকদের সঙ্গে কথা হলে তারা জানায়, জাহাঙ্গীরনগরের গেটে বাস পার্ক করার জন্য সার্জেন্টকে অতিরিক্ত ঘুষ দিতে হয়েছে তাদের। আর এই লোকসান সামাল দিতেই বাড়তি ভাড়া নেওয়া হচ্ছে শিক্ষার্থীদের পকেট কেটে!

তবে বিশ্ববিদ্যালয়ের গেটে দায়িত্ব পালন করা একজন পুলিশ কর্মকর্তা ‘কিছুই জানেন না’ বলে এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। একই সঙ্গে তার নামটি না ছাপতে সারাবাংলাকে অনুরোধও করেছেন।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান অবশ্য বলছেন, ভর্তি পরীক্ষার প্রথম দিন থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী দোকানগুলোকে মনিটরিং করছেন তিনি। তবে এসব দোকানে বাড়তি দাম আদায়ের বিষয়টি স্বীকার করেছেন তিনি। মেনে নিয়েছেন বাসচালকদের বিরুদ্ধে আনা অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়টিও।

আ স ম ফিরোজ-উল-হাসান বলেন, ‘ভর্তি উৎসব উপলক্ষে ক্যাম্পাসে অনেকগুলো অস্থায়ী দোকান বসেছে। এসব দোকান আমরা মনিটরিং করছি কিন্তু কিছু দোকানে অতিরিক্ত দাম রাখার অভিযোগও আমরা পেয়েছি। বিশেষ করে ক্যাম্পাসে যারা প্রথমবার আসছেন, তাদেরকে কোনো কোনো দোকানে ঠকানো হচ্ছে। এখন এটাতো নীতিবোধের বিষয়, মনিটরিং করে কি সমাধান করা সম্ভব? তারপরও আমরা চেষ্টা করছি।

বাসে বাড়তি ভাড়া আদায়ের বিষয়ে প্রক্টর বলেন, ‘এই অভিযোগটি আজকেই প্রথম শুনলাম। আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের দায়িত্বে থাকা পুলিশ কর্মকর্তাদের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলে বিষয়টি সমাধান করার চেষ্টা করব। এটি সিরিয়াস অপরাধ। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছুদের সঙ্গে এরকম আচরণ কখনোই কাম্য নয়।’

এ ব্যাপারে কথা বলতে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. ফারজানা ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে ব্যস্ততাকে কারণ দেখিয়ে তিনি কোনো মন্তব্য করতে রাজি হননি।

প্রসঙ্গত, গত ২২ তারিখে শুরু হয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে আগামীকাল ভর্তি পরীক্ষা। ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষের প্রথম বর্ষ স্নাতক (সম্মান) ভর্তি পরীক্ষায় এবার প্রতি আসনের বিপরীতে লড়ছেন ১৯১ জন। ভর্তি পরীক্ষা চলবে ১ অক্টোবর পর্যন্ত।

আজ বৃহস্পতিবার আইন অনুষদ ‘এফ’ ইউনিট এবং বঙ্গবন্ধু তুলনামূলক সাহিত্য ও সংস্কৃতি ইনস্টিটিউট ‘আই’ ইউনিটের পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে।

২৯ সেপ্টেম্বর কলা ও মানবিকী অনুষদ ‘সি’ ইউনিট এবং ৩০ সেপ্টেম্বর ‘সি’ ইউনিটের অবশিষ্ট এবং নাট্যতত্ত্ব বিভাগ এবং চারুকলা বিভাগ ‘সি-১’ ইউনিট ও বিজনেস স্টাডিজ অনুষদ ‘ই’ ইউনিট এবং সর্বশেষ ১ অক্টোবর সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ‘বি’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

প্রতি বছরের মতো এবারও ছয়টি শিফটে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রতিদিন সকাল ৯টায় প্রথম শিফটের মাধ্যমে পরীক্ষা শুরু হয়ে বিকেল ৫টা ৪০ মিনিটে ষষ্ঠ শিফটের মাধ্যমে শেষ হবে।

সারাবাংলা/টিএস/এমআই

বিজ্ঞাপন

Tags: , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন