বিজ্ঞাপন

মেসি-পিকেদের সাথে বার্সা বোর্ডের অন্তর্দ্বন্দ্ব

September 30, 2019 | 12:25 pm

স্পোর্টস ডেস্ক

শেষবার গুঞ্জন উঠেছিল উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগে লিভারপুলের কাছে হারের পর বার্সেলোনার ড্রেসিং রুম ক্ষোভে ফেটে পড়েছিল কোচ আর্নেস্টো ভালভার্দের উপর। শোনা গিয়েছিল কোচের উপর নাকি অখুশি মেসি-পিকেরা। তবে তা গুঞ্জন হয়েই রয়ে গিয়েছিল। গত হয়ে যাওয়া ঘটনা ভালভার্দেকে নিয়ে অখুশি বার্সা খেলোয়াড়েরা, তবে এবার কোচের উপর নয়, পুরো বার্সেলোনার ম্যানেজমেন্টের ওপরেই অখুশি মেসি-পিকেরা।

বিজ্ঞাপন

হেতাফের বিপক্ষে চলতি মৌসুমের প্রথম এওয়ে ম্যাচে জিতেছে বার্সেলোনা, তবে ম্যাচ জয়ের পরেই যত অঘটনের গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে। বার্সেলোনার মদদপুষ্ট স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যম মুন্ডো দিপোর্তিভো কিছুদিন আগেই বার্সার ক্লাব ম্যানেজমেন্টের একটি সংবাদ প্রচার ছেপেছে যেখানে কর্মকর্তারা ক্লাবের খেলোয়াড়দের কটূক্তি করেছেন। আর এতেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বার্সেলোনার অভিজ্ঞ খেলোয়াড় এবং অধিনায়কদের একজন জেরার্ড পিকে।

পিকে এবং ক্লাবের প্রায় সব খেলোয়াড়েরা মিলে একটি রেস্টুরেন্টে নৈশভোজে মিলিত হয়েছিলেন। আর সেখানেই ক্লাবের বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা এবং সমালোচনা হয়। আর নৈশভোজ শেষে কথা বলেন সাংবাদিকদের সাথেও।

পিকে এবং দলের বাকি খেলোয়াড়েরা মুন্ডো দিপোর্তিভোর প্রকাশিত সংবাদে যে প্রচন্ড ক্ষিপ্ত তা পিকের কথাতেই স্পষ্ট ফুটে উঠেছে। পিকে বলেন, ‘আমরা জানি কর্মকর্তাটি কে, আমরা জানি কোনো পত্রিকার সাথে কার কেমন সম্পর্ক। আমরা এটাও জানি যে কে কোন সংবাদ লিখে, আর পত্রিকায় সাংবাদিকের নাম লেখা না থাকলেও আমরা জানতে পারি।’

বিজ্ঞাপন

বার্সেলোনার কর্তৃপক্ষের সাথে খেলোয়াড়দের যে একটি নিরব অন্তর্দ্বন্দ্ব চলছে তা পিকের কথাতে স্পষ্ট বোঝা যায়। এ বিষয়ে পিকে বলেন, ‘আমরা কারো ওপর রাগ করতে চাই না এবং আমরা কোনো ঝামেলাতেও জড়াতে চাই না। আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে বার্সেলোনার হয়ে ভালো পারফরম্যান্স করা আর ম্যাচ জয় করা। আমি এটাও বলতে চাই যে আমাদের মধ্যে কোনো দ্বন্দ্ব নেই কিন্তু কেউ যেন এমন দ্বন্দ্ব সৃষ্টি করার চেষ্টাও না করে।’

কেবল পিকেই নন, বার্সার ম্যানেজমেন্টের ওপর বেশ চটেছেন অধিনায়ক লিওনেল মেসিও। দলবদলের মৌসুমে বার্সেলোনা বেশ উঠে পড়ে লেগেছিলেন নেইমারকে পুনরায় দলে ভেড়ানোর জন্য। তবে শেষ পর্যন্ত নেইমার পিএসজিতেই রয়ে গেছেন। আর এতেই বেশ অখুশি মেসি। দলবদলের মৌসুম শেষ হওয়ার পর এ নিয়ে সংবাদমাধ্যমের সাথে খোলাখুলি কথাও বলেছেন মেসি। তিনি বলেন, ‘আমি আসলে জানি না যে নেইমারকে দলে ভেড়ানোর জন্য সর্বোচ্চ চেষ্টাটুকু করেছিল কিনা বার্সেলোনার কর্তৃপক্ষ।’

আর সেই সাথে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ থেকে ১২০ মিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে অ্যান্তোনিও গ্রিজম্যানকে দলে ভিড়িয়েছে বার্সেলোনা। তবে গ্রিজম্যানকে দলে ভিড়িয়েও বিপাকে পড়েছে বার্সা ম্যানেজমেন্ট। অনৈতিকভাবে ফ্রেঞ্চম্যানকে দলে ভিড়িয়ে গুনেছেন ৩০০ ইউরোর জরিমানা। যদিও এই জরিমানা বার্সেলোনার পক্ষে গিয়েছে বলেছে আপিল করেছে অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ।

বিজ্ঞাপন

গ্রিজম্যানকে দলে ভেড়ানোতে খুশি হতে পারেনি লিওনেল মেসি। আর স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমগুলো গুঞ্জন ছড়াচ্ছে অনুশীলনে গ্রিজম্যানের সাথে কথাও বলেন না মেসি। আর এর পেছেনের একটিই কারণ মেসির পছন্দ অনুযায়ী নেইমারকে দলে না ভিড়িয়ে তার জায়গায় আনা হয়েছে বিশ্বকাপ জয়ী গ্রিজম্যানকে।

খেলোয়াড় এবং ম্যানেজমেন্টের মধ্যকার অন্তর্দ্বন্দ্ব, সেই সাথে দলের সেরা খেলোয়াড় এবং অধিনায়ক লিওনেল মেসি অখুশি। সব মিলিয়ে বেশ ঝড় চলছে বার্সেলোনার ড্রেসিং রুমে। তবে সব কিছুকে পেছনে ফেলে লিগ ম্যাচে লড়েই চলেছে বার্সেলোনা। মৌসুমের প্রথম এওয়ে ম্যাচও জিতেছে কাতালানরা। তবে অন্তর্দ্বন্দ্ব সমাধান না হলে মৌসুম জুড়ে ভুগতে হবে তাদেরই।

সারাবাংলা/এসএস

Tags: , , , , ,

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন