বুধবার ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ১ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

পোপের প্রযুক্তি সম্মেলনে আজিজ আহমদ, কাজের মানবিক অগ্রগতিতে জোর

সেপ্টেম্বর ৩০, ২০১৯ | ৬:৪২ অপরাহ্ণ

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক

ডিজিটাল যুগে সকলের জন্য যা কিছু ভালো, তা নিয়ে কথা বললেন পোপ ফ্রান্সিস। একই কর্মসূচিতে কথা বলেছেন বাংলাদেশি আমেরিকান প্রযুক্তিবিদ আজিজ আহমদ। তিনি কথা বলেছেন, কাজের ভবিষ্যত নিয়ে। গত ২৬-২৮ সেপ্টেম্বর ভ্যাটিকান সিটিতে আয়োজিত প্রযুক্তি বিষয়ক শীর্ষ সম্মেনে বিশেষ বক্তা হিসেবে আমন্ত্রিত ছিলেন যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক এই বাংলাদেশি প্রযুক্তি উদ্যোক্তা ।

বিজ্ঞাপন

গোটা বিশ্ব থেকে নেতৃস্থানীয় প্রযুক্তিবিদরা এতে অংশ নেন। তবে এই সম্মেলনে ডিজিটাল যুগে মানবতা নিয়ে উদ্বেগ জানিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। তিনি বলেছেন, মানবতা এক নতুন যুগে ঢুকে পড়েছে আর আমরা কারিগরি দক্ষতার চৌরাস্তায় এসে দাঁড়িয়েছি। এখানে একদিকে দুই শতাব্দী জুড়ে ব্যাপক পরিবর্তনের জোয়ারে দারুণ সব সুবিধা পাচ্ছি। ডিজিটাল যুগের বাসিন্দা হিসেবে মানবতার অগুনতি সুবিধাও আমরা পাচ্ছি। অন্যদিকে, এই প্রযুক্তির শক্তি একাট্টা হচ্ছে অর্থনৈতিক ও অর্থিক শক্তিগুলোর সাথে। প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার না জেনে সেসব শক্তি মানবতার ওপর তাদের শক্তিমত্তার প্রয়োগ ঘটাচ্ছে।

সম্মেলনে অন্য প্রযুক্তিবিদদের সঙ্গে প্যানেল আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশী আমেরিকান, যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ইউটিসি অ্যাসোসিয়েটস এর সিইও, ঢাকাভিত্তিক আন্তর্জাতিক প্রযুক্তি প্রশিক্ষণ প্রতিষ্ঠান কোডার্স ট্রাস্ট’র কো-ফাউন্ডার আজিজ আহমদ।

ফিউচার অব ওয়ার্ক শীর্ষক বক্তৃতায় আজিজ আহমদ বলেন, কাজের ভবিষ্যতটি মানবতার ভবিষ্যতের সঙ্গেই সম্পৃক্ত। আমরা আমাদের ভবিষ্যত প্রজন্মের জন্য এমনভাবে কাজের সুযোগ তৈরি করে রেখে যেতে চাই, যাতে মানবতা হারিয়ে যাবে না। তাতে প্রযুক্তির অগ্রগতির সাথে মানবতার সমন্বয় ঘটাতে হবে।

বিজ্ঞাপন

বিশ্বে নবীনদের জন্য কাজের সুযোগ তৈরিতে আজিজ আহমদ যে ভূমিকা রেখে চলেছেন তা প্রশংসিত হয় এই আয়োজনে। পোপ নিজেও কাজের ভবিষ্যত ভাবনায় সৃষ্টিশীলতার ওপর জোর দেন।

অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে নিরাপত্তা ও যুদ্ধাস্ত্র, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও ব্লকচেইন নিয়ে আলোচনা এই কর্মসূচিতে গুরুত্ব পায়। প্রযুক্তি ও বেকারত্ব, প্রযুক্তি ও সুশাসন, প্রযুক্তি ও নতুন (গ্রিন) কাজ, প্রযুক্তি ও জনসমন্বয় এই চারটি গ্রুপে বিভক্ত হয়ে বিশ্বখ্যাত প্রযুক্তি বিশারদরা এই কর্মসূচিতে প্যানেল আলোচনা করেন।

কর্মসূচিতে অংশ নেওয়ার পর আজিজ আহমদ সারাবাংলার কাছে তার প্রতিক্রিয়ায় বলেন, এটি ছিলো আমার জন্য অনন্য সম্মান। পোপ ফ্রান্সিস তথা ভ্যাটিকান সিটির আয়োজনে এমন একটি প্রযুক্তি সম্মেলন বিশ্বকে তথ্যপ্রযুক্তির পথ-পরিক্রমা সম্পর্কে দিক-নির্দেশনা দেবে এমনটাই আমার বিশ্বাস। আর আমি তাতে সামান্য যেটুকু অবদান রাখতে পেরেছি তাতে নিজেকে ধন্য মনে করছি।

প্রযুক্তিনির্ভর অগ্রগতির মানবতার সমন্বয়ের ওপর গুরুত্ব দিয়েছেন পোপ ফ্রান্সিস। তার সেই প্রত্যাশার সাথে আমরাও একমত, এবং মানবিক বিশ্ব হিসেবেই ভবিষ্যত বিশ্বকে আমরা দেখতে চাই, বলেন আজিজ আহমদ।

পোপ তার বকৃততায় প্রযুক্তির উন্নয়ন ও সম্ভাবনার প্রশংসা করে বলেছেন, শিল্প বিপ্লবের গোড়ার দিকে যন্ত্রের আবিষ্কার অনেক বিপজ্জনক কাজের হাত থেকে মানুষকে সুরক্ষা দিয়েছে। তবে তিনি সতর্ক করে দিয়ে বলেছেন, মুনাফার লোভে এখন যে হারে রোবোটিকসের ওপর নির্ভরতা বাড়ছে তাতে শ্রমের মর্যাদা হানি ঘটতে পারে। তিনি বলেন, প্রযুক্তির অগ্রগতি যদি সমানহারে অসাম্যও বাড়িয়ে তোলে তাহলে সত্যিকারের অগ্রগতি সম্ভব হবে না।

** কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ব্যবহারে পরস্পরের মঙ্গল চিন্তার আহ্বান পোপের

**  ভ্যাটিকানে পোপের প্রযুক্তি সম্মেলনে আজিজ আহমদ

সারাবাংলা/এমএম

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন