সোমবার ১৬ ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং , ২ পৌষ, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৮ রবিউস-সানি, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

কোনো শিক্ষার্থীর গায়ে হাত তুললেই শাস্তি: জবি উপাচার্য

অক্টোবর ৯, ২০১৯ | ৪:৫৪ অপরাহ্ণ

জবি করেসপন্ডেন্ট

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে (জবি) সকল ধরনের বিশৃঙ্খলা ঠেকানোর জন্য কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। ক্যাম্পাসে যদি কোনো খুনি, সন্ত্রাসী বা শিবির জঙ্গি অপরাধ করে তাহলে তাদের শাস্তি দেওয়া হবে। এছাড়া কোনো ছাত্র অন্যদের গায়ে হাত তুললে তাদের বিরুদ্ধেও সর্বোচ্চ ব্যবস্থার কথা জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মীজানুর রহমান।

বিজ্ঞাপন

আবরার হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় জবি শিক্ষক সমিতির মানববন্ধনে বুধবার (৯ অক্টোবর) তিনি একথা বলেন।

মীজানুর রহমান বলেন, আশির দশকে সকলের সঙ্গে বন্ধুত্বপূর্ণ আচরণের মাধ্যমে স্বৈরাচারি সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করেছিলাম। আমরা কারও ওপর তখন হামলা করিনি।

বিজ্ঞাপন

এসময় উপাচার্য আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হি‌সে‌বে সক‌লের মত প্রকা‌শের স্বাধীনতা আছে। সামান্য ফেসবুক স্ট্যাটাসের জন্য বাংলাদেশের সর্বোচ্চ বিদ্যাপীঠের (বুয়েট) একজন মেধাবী শিক্ষার্থী আবরার কে জীবন দিতে হল। বর্তমানে এটা সামাজিক ব্যাধিতে পরিণত হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, জানি না, বুয়েটের ভিসি, হল প্রোভোস্টের দায়িত্ব অবহেলার কারণে এটি হতে পারে। এমন হত্যাকাণ্ড থেকে সবাইকে সচেতন হতে হবে। এসময় তিনি আবরার হত্যার দ্রুত বিচার দাবি করেন।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক‌ স‌মি‌তির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. নুর মোহাম্মাদ এর সঞ্চালনায় মানববন্ধ‌নে আরও বক্তব্য দেন ইতিহাস বিভা‌গের অধ্যাপক ড. মো সে‌লিম, সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক ড. আবুল হো‌সেন, বাংলা বিভাগের অধ্যাপক ড. হোস‌নে আরা জলী, মাই‌ক্রোবা‌য়েল‌জি বিভা‌গের চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. শামীমা বেগম, প্রক্টর সহ‌যোগী অধ্যাপক ড. মোস্তফা কামালসহ সি‌নিয়র অধ্যাপকরা।

বক্তরা সক‌লেই আবরার হত্যার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চেয়েছেন।

বিজ্ঞাপন

সারবাংলা/জেআর/এনএইচ

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন