বুধবার ১৬ অক্টোবর, ২০১৯ ইং , ১ কার্তিক, ১৪২৬ বঙ্গাব্দ, ১৬ সফর, ১৪৪১ হিজরি

বিজ্ঞাপন

‘ভাসানচরের একপাশে রোহিঙ্গা, একপাশে ক্যাসিনোর ব্যবস্থা করে দেবো!’

অক্টোবর ৯, ২০১৯ | ৭:৩২ অপরাহ্ণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: দেশে চলমান ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের প্রসঙ্গ উঠে এসেছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুক্তরাষ্ট্র ও ভারত সফর পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনেও। আর এ প্রসঙ্গ নিয়ে মৃদু হাস্যরস করেছেন প্রধানমন্ত্রী। রসিকতা করে তিনি বলেছেন, প্রয়োজনে বিশালাকার ভাসানচরের একপাশে রোহিঙ্গাদের রাখার ব্যবস্থা করে আরেক অংশে ক্যাসিনো খেলায় অভ্যস্তদের জন্য ক্যাসিনো বসানোর ব্যবস্থা করে দেবেন। তাতে সরকারও কিছু টাকা পাবে বলে হেসে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

বিজ্ঞাপন

বুধবার (৯ অক্টোবর) প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে ওই সংবাদ সম্মেলন আয়োজন করা হয়।

আরও পড়ুন- ‘মানুষের ভালো-মন্দ দেখার দায়িত্ব আমার, এ নিয়ে প্রশ্ন কেন?

সংবাদ সম্মেলনে একজন সাংবাদিক ক্যাসিনোবিরোধী অভিযানের প্রসঙ্গ টানলে প্রধানমন্ত্রী রসিকতা করে বলেন, যারা ক্যাসিনো ও জুয়া খেলে অভ্যস্ত হয়ে গেছেন, তাদের কেউ কেউ হয়তো দেশ থেকেও ভেগে গেছে। তাদের কেউ কেউ হয়তো এখানে-ওখানে খেলার জায়গা খুঁজে বেড়াচ্ছে। আমি বলেছি, একটা দ্বীপ মতো জায়গা খুঁজে বের করো, সে দ্বীপে আমরা সব ব্যবস্থা করে দেবো। ভাসানচর বিশাল দ্বীপ, দরকার হলে এর একপাশে রোহিঙ্গাদের থাকার ব্যবস্থা করব, আরেক পাশে এই ক্যাসিনোর ব্যবস্থা করে দেবো। যারা ক্যাসিনো খেলতে চায়, তারা সবাই ওখানে চলে যাবে।

বিজ্ঞাপন

আরও পড়ুন- ‘ছাত্র রাজনীতি নিষিদ্ধ করব কেন, কোনো প্রতিষ্ঠান চাইলে করবে’

প্রধানমন্ত্রীর এমন বক্তব্যে সাংবাদিকরা হেসে ফেললে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাস্তবতার নিরিখে বলছি, অভ্যাস যখন বদঅভ্যাসে পরিণত হয়, তখন তো আর কিছু করার নেই। এই বদঅভ্যাস তো আর যায় না। ক্যাসিনো যারা খেলে, তাই তারা ক্যাসিনো খেলার জায়গা খুঁজতেই থাকবে। তাই বারবার খোঁজাখুঁজি না করে একটা জায়গা ঠিক করে দেবো। ভাসানচর খুব বড় জায়গা। অসুবিধা নাই। ১০ লাখ লোকের বসতি করে দেওয়া যাবে। তার একটা এলাকা না হয়... (ক্যাসিনো খেলার জন্য ছেড়ে দেওয়া হবে)। যারা ক্যাসিনো করতে চায়, সেখানে করতে পারবেন। তবে এর জন্য লাইসেন্স নিতে হবে, সরকারকে ট্যাক্স দিতে হবে। তারপর ওখানে গিয়ে কারা কারা খেলবেন খেলেন, আমার কোনো আপত্তি নেই।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, অনেকেই লুকিয়ে-চুরিয়ে ক্যাসিনো খেলছিলেন। সেখানে (ভাসানচর) আর লুকিয়ে খেলতে হবে না। যারা ক্যাসিনো দিতে চান, লাইসেন্স করে নিতে হবে। দরকার হলে আমরা নীতিমালা করে দেবো। তাতে আমরা (সরকার) অন্তত টাকা পাব। প্রধানমন্ত্রী নিজেও এসময় সাংবাদিকদের সঙ্গে হেসে ফেলেন।

আরও পড়ুন- ‘দেশের স্বার্থ শেখ হাসিনা বিক্রি করবে এটি হতে পারে না’

তবে এ প্রসঙ্গে ইঙ্গিতে সাংবাদিকদেরও খোঁচা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, যেখানে যেখানে অনিয়ম আছে, সেখানে আমরা ধরব। এটা (ক্যাসিনো) বহু যুগ থেকে ছিল। কেউ হয়তো খেয়াল করেনি। আপনারাও বলেননি এ রকম অনিয়ম হচ্ছে। আমি জানি, জিজ্ঞাসা করলে আপনারা উত্তর দিতে পারবেন না। আর কেন পারবেন না, তাও যে একেবারে জানি না, তা নয়।

আরও পড়ুন-

‘কোনো প্রতিষ্ঠান চাইলে ছাত্ররাজনীতি নিষিদ্ধ করতে পারে’

ফুটেজের জন্য পুলিশদের অবরুদ্ধ করা হলো কেন, প্রশ্ন প্রধানমন্ত্রীর

জাতিসংঘ অধিবেশন ও ভারত সফর নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী

‘নগণ্য পরিমাণ পানি দিচ্ছি, এটা নিয়ে কেন এত চিৎকার আমি জানি না’

সারাবাংলা/এটি/টিআর

বিজ্ঞাপন
বিজ্ঞাপন